Daily Sunshine

করোনা সংক্রমণেও থেমে নেই সীমান্তে চোরাচালান

Share

স্টাফ রিপোর্টার, শিবগঞ্জ: করোনার সংক্রমণের মধ্যেও থেমে নেয় চাঁপাইনবাবগঞ্জ সীমান্তে চোরাচালান। গত ৪ দিনেই সীমান্তে বিজিবি ও র‌্যাব ৫টি আগ্নেয়াস্ত্র ও বিভিন্ন মাদক জব্দ করেছে। আটক করা হয়েছে একজনকে।
এ নিয়ে সচেতন মহলের উদ্বেগ লক্ষ্য করা গেছে। বিশেষ করে করোনার সংক্রমণ উদ্ধমুখি হওয়ায় সীমান্তে অবৈধ অনুপ্রবেশ বন্দের দাবী তাদের।
মঙ্গলবার র‌্যাবের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানা গেছে, ৩১ মে গভীর রাতে জেলার সদর উপজেলার মহারাজপুর ইউনিয়নের ম্যাংগো মার্কেটের সামনে অভিযান পরিচালনা করে ভোলাহাট উপজেলার বড়গাছি গ্রামের আশরাফুল ইসলামের ছেলে অস্ত্র চোরাকারবারী সোহাগকে বিদেশী পিস্তল ২টি, ওয়ান শুটার গান-২টি, ম্যাগাজিন ৩টি এবং গুলি ৫ রাউন্ডসহ গ্রেফতার করা হয়।
এদিকে ৫৯ বিজিবি ব্যাটালিয়নের চকপাড়া বিওপির একটি টহল দল সোমবার সীমান্ত পিলার ১৮৪/১-এস হতে আনুমানিক ১০ গজ বাংলাদেশের অভ্যান্তরে নলডুবি বাজারে পরিত্যক্ত অবস্থায় ১০০ গ্রাম হেরোইন এবং ১৯৮ পিস ইয়াবা জব্দ করে। একই দিন বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সোনামসজিদ ও শিয়ালমারা বিওপির ২টি পৃথক পৃথক দল অভিযান চালিয়ে ১২০ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল পরিত্যক্ত অবস্থায় জব্দ করে।
এর আগে গত ২৮ মে বিকেলে কামালপুর সীমান্ত ফাঁড়ি সংলগ্ন সীমান্ত পিলার ১৮৮ এর নিকটে একই ব্যাটালিয়নের এশটি অভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাটিতে পুঁতে রাখা অবস্থায় ২ টি ওয়ান শুটার গান ও ২ রাউন্ড গুলি জব্দ করে।
ভারতে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধির পাশাপাশি চাঁপাইনবাবগঞ্জে সংক্রামণ বেড়ে যাওয়ায় জেলার সচেতন মহল উৎকন্ঠা প্রকাশ করেছেন।
শিবগঞ্জ স্নাতক মহাবিদ্যালয়ের প্রভাষক মোস্তফা মামুন জানান, সংক্রমণের উদ্ধগতি রোধ করতে প্রশাসন বিশেষ লকডাউন দিয়েছে। কিন্তু সীমান্তে অবৈধ চলাচল নিয়ন্ত্রন না হলে সংক্রামণের ঝুঁকি থেকেই যাচ্ছে।
সচেতন নাগরিক সমাজের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট সাইফুল রেজা একই আশংকা প্রকাশ করে বলেন, সীমান্তে যে চোরাচাল ও অবৈধ চলাচল রয়েছে তার প্রমান আদালতে বিভিন্ন বাহিনীর অভিযানে আটক চোরাকারবারীদের জামিনের আবেদন।
এ ব্যাপারে রহনপুর ব্যাটালিয়ন (৫৯ বিজিবি) এর অধিনায়ক লে. কর্নেল আমীর হোসেন মোল্লা পিএসসি অস্ত্র ও মাদক উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বর্তমানে করোনা পরিস্থিতিতে ভারতীয় চোরাকারবারীরা যাতে সীমান্ত অতিক্রম করে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে প্রবেশ করতে না পারে সেই লক্ষে সীমান্তে টহল ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে এবং ব্যাটালিয়ন সদর দপ্তর হতে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। আর এ কারণেই জব্দ তালিকা দীর্ঘ হচ্ছে।

জুন ০২
০৫:৪৩ ২০২১

আরও খবর