Daily Sunshine

নগরে বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় যুক্ত হলো আরেকটি ট্রান্সফার স্টেশন

Share

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম আধুনিকায়নে আরো একটি সেকেন্ডারী ট্রান্সফার স্টেশনের (এসটিএস) যাত্রা শুরু হয়েছে। মহানগরীর ১২ নং ওয়ার্ডে পদ্মাপাড়ের বড়কুঠিতে এসটিএস’র আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার দুপুরে ফলক উন্মোচন ও ফিতা কেটে এসটিএস‘টির কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। উদ্বোধন শেষে এসটিএস কার্যক্রম পরিদর্শন করেন মেয়র। এরপর এসটিএস চত্ত্বরে একটি গাছের চারা রোপণ করেন তিনিন। ফলক উন্মোচন শেষে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।
সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, বড়কুঠি সেকেন্ডারী ট্রান্সফার স্টেশন নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৫৯ লাখ টাকা। এটি নির্মাণে এ এলাকার পরিবেশ উন্নয়নসহ বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম আরও এক ধাপ এগিয়ে গেল। এখন থেকে এর খোলা স্থানে বর্জ্য থাকবে না। এতে করে পরিবেশ উন্নয়নের পাশাপাশি দূষণমুক্ত হচ্ছে ওই এলাকা। মহানগরীতে আধুনিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় এরআগে আরো চারটি এসটিএস চালু রয়েছে। বড়কুঠি এসটিএস উদ্বোধন হওয়ায় সেটিসহ মোট ৫টি এসটিএস এর কার্যক্রম চলবে। আগামীতে পর্যায়ক্রমে নগরীতে আরো ৩০টি এসটিএস নির্মাণ করা হবে। যার কার্যক্রম চলমান রয়েছে।
অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন বর্জ্য ব্যবস্থাপনা স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও রাসিকের প্যানেল মেয়র সরিফুল ইসলাম বাবু। এ সময় রাসিকের প্যানেল মেয়র-২ রজব আলী, প্যানেল মেয়র-৩ তাহেরা খাতুন মিলি, ২১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিযাম উল আযীম, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা স্থায়ী কমিটির সদস্য কামরুজ্জামান, ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল হক সুমন, ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মোমিন, রাসিকের সচিব মশিউর রহমান, প্রধান প্রকৌশলী শরিফুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ারিং এডভাইজার ও সাবেক প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এফএএম. আঞ্জুমান আরা বেগম, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ মো. মামুন ডলার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মে ২৮
০৫:০৭ ২০২১

আরও খবর