Daily Sunshine

নাটোরে পাউবো প্রকৌশলীর মামলায় আটক স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা

Share

স্টাফ রিপোর্টার, নাটোর: নাটোরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু রায়হানকে মারধরের মামলায় পুলিশ নাটোর পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মীর নাফিউ ইসলাম অন্তরকে আটক করেছে। অন্তর নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শিমুল এমপির ভাগ্নে ও কোষাধ্যক্ষ ঠিকাদার আমিরুল ইসলাম জাহানের ছেলে। বুধবার সকাল ১১টার দিকে নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা তার দপ্তরে এ বিষয়ে প্রেস ব্রিফিং করেন।
নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা তার দপ্তরে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিং এ বলেন, ‘কর্তব্যরত অবস্থায় সরকারি কর্মকর্তার ওপর হামলা, সরকারি কাজে বাধা প্রদান, মারধর ও হত্যার হুমকির কথা উল্লেখ করে প্রকৌশলী আবু রায়হান মামলা করার সাথে সাথে পুলিশের ছয়টি টিম আসামিকে গ্রেপ্তারের জন্য মাঠে নামে। পরে শহরের বড়গাছা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
নাটোরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী নওগাঁর ধামইরহাটের মালাহার গ্রামের মৃত আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে প্রকৌশলী আবু রায়হান (৩৮) বলেন, এডিবির অর্থায়নে পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধীনে সিংড়া উপজেলার আত্রাই ও নাগর নদ হতে সিংড়া পৌর এলাকাকে রক্ষা প্রকল্পের আওতায় অফিস ভবন ও পরিদর্শন বাংলো মেরামত কাজ পায় রংপুরের একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। সেই প্রতিষ্ঠানের পক্ষে কাজটি করছেন নাটোরের ঠিকাদার আমিরুল ইসলাম জাহান।
এ কাজে শিডিউল মোতাবেক মান সম্মত টাইলস লাগাতে বললে ঠিকাদার তাতে অস্বীকৃতি জানায়। সোমবার বিকেল সোয়া পাঁচটার দিকে এসব বিষয়ে কথা বলার সময় অকথ্য ভাষায় তাকে গালিগালাজ করতে থাকেন ঠিকাদার আমিরুল ইসলাম জাহান।’
এক পর্যায়ে ঠিকাদারের ছেলে নাফিউ ইসলাম অন্তর উত্তেজিত হয়ে আমাকে গলা চেপে ধরে কিল-ঘুষি মারতে থাকে। এতে আমার ঠোঁট কেটে যায় এবং হাত, মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত লাগে। আমি রক্তাক্ত হয়ে পড়ি।’

মে ২৭
০৫:৫৭ ২০২১

আরও খবর