Daily Sunshine

আদমদীঘিতে চুরির সন্দেহে প্রতিবন্ধি যুবককে নির্যাতন

Share

আদমদীঘি প্রতিনিধি: বগুড়ার আদমদীঘিতে মোবাইল চুরি করেছে এমন সন্দেহ করে সুরুজ আলী (৩৫) নামের এক প্রতিবন্ধি যুবককে মধ্যযুগীয় কায়দায় অমানবিক নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে। প্রতিবন্ধি সুরুজ আলী উপজেলার সান্তাহার ইউনিয়নের কাশিমিল্লাহ গ্রামের মৃত ফয়েজ উদ্দীনের ছেলে। ঘটনায় গ্রামে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হলে বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছেন প্রভাবশালী মহল।
জানা যায়, গত ১৫ মে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার কাশিমিল্লাহ গ্রামের শরেফুলের মার্কেটের দোকান থেকে একটি মোবাইল চুরির ঘটনা ঘটে। এদিন রাতে মোবাইল চুরির সন্দেহে প্রতিবন্ধি সুরুজ আলীকে নিজ বাড়িতে ধরে নিয়ে আসেন শরেফুলের ছেলে প্রভাবশালী নাহিদ হোসেন। পরে তার সহকর্মী নাহিদ, মৃত আক্কেলের আলীর ছেলে বুলু, জয়মুল্লার ছেলে রাজু ওই প্রতিবন্ধি যুবককে হাত-পা বেধে লাঠি দিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় শরীরের বিভিন্ন স্থানে অমানবিক মারপিট করে মারাত্মক আহত করেছে।
খবর পেয়ে গ্রামের লোকজন তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় চিকিৎসক মোফাজ্জল হোসেনের কাছে প্রাথমিক চিকিৎসা জন্য নিয়ে যান। এ ঘটনাটি গ্রামের প্রভাবশালী মহল ধামাচাপা দেওয়া চেষ্টা করছেন। ওই নির্যাতিত যুবকের হাত-পা সহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ফুলেগেছে। চিকিৎসার অভাবে বর্তমান নিজ বাড়িতে যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে।
ঘটনাটি শরেফুল ইসলাম অস্বীকার করে বলেন আমি তাকে কোন রকম আঘাত করিনি। স্থানীয় মেম্বার একটু ভয়ভিতি দেখিয়েছে।
স্থানীয় চিকিৎসক মোফাজ্জর হোসেন বলেন, ওই প্রতিবন্ধি যুবককে অমানবিকভাবে নির্যাতন করা হয়েছে। যা কোন মানুষের পক্ষে করা সম্ভব না।
আদমদীঘি থানার অফিসার ইনচার্জ জালাল উদ্দীন বলেন, মোবাইল চুরি বিষয়ে থানায় একটি জিডি করা হয়েছে। কাউকে মারপিট করা হয়েছে তা আমার জানা নেই। বিষয়টি তদন্তপুর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

মে ২৩
০৫:০৪ ২০২১

আরও খবর