Daily Sunshine

রাবিতে মিলল আরও পাঁচটি মর্টার শেল, নিরাপদ বিস্ফোরণ

Share

রাবি প্রতিনিধি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) বধ্যভূমির পাশে খননরত পুকুরের মাটিতে ফের পাওয়া গেল ১৯৭১ সালের অবিষ্ফোরিত পাঁচটি মর্টার শেল। শুক্রবার দুপুরে বিশ^বিদ্যালয় সংলগ্ন পশ্চিম বুধপাড়া এলাকায় এগুলো নিরাপদে নিষ্ক্রিয় করে সেনাবাহিনীর বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল। মতিহার থানার সাব ইন্সপেক্টর ইমরান হাসান এসব তথ্য জানান।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, নিচু জমি ভরাট করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বধ্যভূমি এলাকার খননরত পুকুরের মাটি ক্রয় করেন নগরীর পশ্চিম বুধপাড়া এলাকার মঙলা নামের এক ব্যক্তি। বৃহস্পতিবার জমির মাটি সমান করতে গিয়ে ক্রয়কৃত মাটির ভেতর থেকে একে একে চারটি মর্টারশেল পান তিনি। শুক্রবার সকালে আরও একটি মর্টারশেল পেয়েছেন তিনি। বিষয়টি মতিহার থানাকে জানালে পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে মর্টারশেলগুলো হেফাজতে নেয়। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বগুড়া ক্যান্টনমেন্ট থেকে ক্যাপ্টেন মিনহাজের নেতৃত্বে ২৫ জনের একটি দল আসেন। পরে পরিত্যক্ত মর্টারশেলগুলো নিষ্ক্রিয় করেন তারা।
এর আগে গত ২৭ ও ৩০ এপ্রিল রাবির বধ্যভূমি এলাকার খননরত পুকুর থেকে আরও ৩টি মর্টার শেল ও ১টি রকেট লঞ্চার উদ্ধার করে পুলিশ। সেনাবাহিনী সেগুলো নিস্ক্রিয় করে। এ নিয়ে মোট ৮টি মর্টারশেল ও ১টি রকেট লঞ্চার উদ্ধার করা হলো। পুলিশ ও বিশ^বিদ্যালয় প্রক্টরিয়াল বডি জানায়, ১৯৭১ সালে বধ্যভূমির পাশেই শহীদ শামসুজ্জোহা হলে পাক হানাদারদের ক্যাম্প ছিলো। উদ্ধারকৃত মর্টারশেলগুলো যুদ্ধকালীন সময়ের বলে ধারণা করা হচ্ছে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, এই জায়গাটিতে যেহেতু আর্মি ক্যাম্প ছিল, তাই জায়গাটিতে আরও অনেক অবিস্ফোরিত বোমা থাকতে পারে। আমরা পুলিশ ও সেনাবাহিনীকে জানিয়েছি তারা যেন পুরো এলাকা পরীক্ষা করেন।

মে ২২
০৪:৩৫ ২০২১

আরও খবর