Daily Sunshine

তরুণ তরুণীর ঘরছাড়া নিয়ে সংঘর্ষে আটক ৬

Share

স্টাফ রিপোর্টার, বাঘা: রাজশাহীর বাঘায় প্রেমিক-প্রেমিকা পালানোর ঘটনা এলাকায় ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। উভয় পরিবারের মধ্যে দফায়-দফায় সংঘর্ষের পর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পুলিশ দুই পক্ষের ৬ জনকে আটক করে। পরে দুইপক্ষ বিয়ে মেনে নিয়ে রাতে বিষয়টির নিষ্পত্তি হয়।
স্থানীয় লোকজন জানান, বাঘার আড়ানী পৌর এলাকার চকরপাড়া গ্রামে প্রেমের টানে বাড়ি থেকে পালায় প্রেমিক-প্রেমিকা। আর এ ঘটনার জের ধরে দুই পরিবারের দ্বন্দ্ব ও দফায় দফায় সংঘর্ষে আহত হয় ২০ জন। পুলিশ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দুই পক্ষের ৬ জনকে আটক করে। এতে উভয় পরিবারের মধ্যে টনক নড়ে। রাতে দুইপক্ষ মিমাংসা একমত হন।
উপজেলার আড়ানী পৌরসভার চকরপাড়া গ্রামের জহুরুল ইসলাম রব্বেলের কলেজ পড়ুয়া মেয়ে প্রাইভেট পড়ার নাম করে দুপুরে বাড়ি থেকে বের হয়। তাকে খোঁজ করে না পেয়ে তার প্রেমিক নুরনগর (খয়েরমিল) গ্রামের হিরো উদ্দিনের ছেলে তানভির আহম্মেদ রুহানের বাড়িতে যাই মেয়ের পরিবার ও তাদের লোকজন।
এ নিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে দফায়-দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষ মামলা দিলে পুলিশ বৃহস্পতিবার দুই পক্ষের ৬ জনকে আটক করে। আটককৃতরা হলেন-নাহিদ হোসেন, আশিক আহম্মেদ,সাজু হোসেন, ফয়সাল আহম্মেদ, মিঠন হোসেন ও বিপ্লব।
বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, দুই পক্ষের অভিযোগের ভিত্তিতে ৬ জনকে আটকের পর শুক্রবার সকালে আদালতের মাধ্যমে তাদেরকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এখন লোকমুখে শুনছি উভয় পক্ষ মামলা নিৎপত্তি করার লক্ষে তাদের ছেলে-মেয়ের বিয়ে মেনে নিয়ে নিষ্পত্তি করেছেন। সত্যতা নিশ্চিত করেন ওই ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর মোজাম্মেল হক রাজ।
অপর দিকে নারী ও শিশু নির্যাতন মামলাসহ বিভিন্ন মামলার ওয়ান্টেভূক্ত ৩ জন আসামীকে আটক করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন ওসি নজরুল ইসলাম। আটককৃতরা হলেন শরিফুল ইসলাম বাবু, সেলিম মেল্লা ও গিয়াস উদ্দিন।

মে ২২
০৪:০৫ ২০২১

আরও খবর