Daily Sunshine

অলিম্পিক বাতিলের দাবি তুললেন জাপানের চিকিৎসকরা

Share

স্পোর্টস ডেস্ক: করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে জাপান। সংক্রমণ এতটাই বেড়েছে যে হাসপাতালগুলো নতুন রোগী ভর্তি করতে চাচ্ছে না। আয়োজক ভেন্যু টোকিওসহ বড় বড় শহরে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করতে বাধ্য হয়েছে সরকার। এমন নাজুক পরিস্থিতিতে দেশটির সাধারণ মানুষের পর অলিম্পিক বাতিলের দাবি তুলেছেন চিকিৎসকরা।
করোনা মহামারির মধ্যে অলিম্পিকের মতো মহাযজ্ঞ আয়োজন করা মোটেও সম্ভব নয় বলে মনে করছে টোকিও মেডিক্যাল প্র্যাকটিশনার্স অ্যাসোসিয়েশন। ৬ হাজারেরও বেশি চিকিৎসকদের নিয়ে গঠিত এই সংগঠন অলিম্পিক বাতিলের দাবি জানিয়ে জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগার কাছে কয়েক দিন আগে একটি খোলা চিঠি পাঠায়। সেই চিঠিটি তারা নিজেদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছে।
ওই খোলা চিঠিতে তারা লিখেছেন, ‘এমন পরিস্থিতিতে আমরা আয়োজকদের অলিম্পিক বাতিল করতে অনুরোধ করবো। আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটিকে এটা বোঝানো কঠিন হবে। তাই কৃর্তপক্ষ এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাতে পারে।’ গত ৭ থেকে ৯ মে পর্যন্ত অলিম্পিক আয়োজনের পক্ষে-বিপক্ষে নিয়ে জরিপ চালায় ইওমিউরি শিম্বুন। জানা গেছে, ৫৯ শতাংশ সাধারণ মানুষ অলিম্পিক গেমস বাতিলের পক্ষে।
আগামী ২৩ জুলাই থেকে ৮ আগস্ট পর্যন্ত হওয়ার কথা অলিম্পিক গেমসের। এর ৭০ দিন আগেও করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় উদ্বিগ্ন আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি ও আয়োজক দেশ। দুই পক্ষের মধ্যে একাধিক আলোচনা হলেও এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসেনি।
কিছুদিন আগে জাপানের প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রের প্রধানমন্ত্রী জো বাইডেনকে জানান, শতভাগ স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে পারলেই অলিম্পিক আয়োজন করবে তারা। দুইশর বেশি দেশ থেকে প্রায় ১১ হাজার অ্যাথলেট অলিম্পিকে অংশগ্রহণ করবে। তাদের সবার কোভিড সুরক্ষায় বিশাল অঙ্কের অর্থ ব্যয় হচ্ছে আয়োজকদের। জাপানের গণমাধ্যমের খবর, টোকিও অলিম্পিক পরিচালনা করতে ২৮০ কোটি ডলার খরচের হিসাব দিয়েছে অলিম্পিক কমিটি। যার মধ্যে করোনা প্রতিরোধেই ব্যয় ধরা হয়েছে ৯০ কোটি ডলার।

মে ১৯
০৫:২৬ ২০২১

আরও খবর