Daily Sunshine

বাগাতিপাড়ায় মসজিদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

Share

বাগাতিপাড়া প্রতিনিধি: নাটোরের বাগাতিপাড়ায় জালিয়াতি করে মসজিদের বরাদ্দের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের গালিমপুর দিয়াড়পাড়া জামে মসজিদের জি.আর প্রকল্পের এ অর্থ আত্মসাত হয়েছে বলে অভিযোগ। সম্প্রতি মসজিদের সেক্রেটারি উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর এ বিষয়ে অভিযোগ করেছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গালিমপুর দিয়াড়পাড়া জামে মসজিদের উন্নয়ন-সংস্কার কাজের জন্য জি.আর প্রকল্পের আওতায় এক টন চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়। যার মূল্য ৪৫ হাজার টাকা। বরাদ্দকৃত টাকা গালিমপুর গ্রামের সেলিম রেজার ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান সুমন এবং কামাল উদ্দিনের ছেলে আবু হেনা মোস্তফা মামুন ভুয়া সভাপতি ও সেক্রেটারি সেজে স্বাক্ষর করে জালিয়াতির মাধ্যমে টাকা উত্তোলন করে আত্মসাত করেছে।
বিষয়টি জানাজানি হলে মসজিদের মূল কমিটির সেক্রেটারিসহ কয়েক জন সদস্য তাদের কাছে বরাদ্দের অর্থের বিষয় জানতে চাইলে উত্তোলনকৃত টাকা মসজিদে দিতে অস্বীকৃতি জানায়।
গত ১১ মে ভুয়া কমিটির মধ্যেমে মসজিদে বরাদ্দের টাকা উত্তোলন করে আত্মসাতের অভিযোগ এনে মসজিদের মূল কমিটির সেক্রেটারি আরমান আলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করে। অভিযোগে অভিযুক্তদের আইনের আওতায় এনে বিচার দাবি ও আত্মসাতের অর্থ উদ্ধারে ব্যবস্থা গ্রহনের অনুরোধ করা হয়।
বিষয়টি জানতে চাইলে মুঠোফোনে অভিযুক্তদের মধ্যে মোস্তাফিজুর রহমান সুমন বলেন, মসজিদের কোন কমিটি না থাকায় বরাদ্দকৃত অর্থ তিনি উত্তোলন করেছে। অর্থ ফেরৎ দেওয়ার বিষয় বললে তা না দেওয়ার কথা বলে ফোন কেটে দেয়।
বিষয়টি নিয়ে পাঁকা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন বেঙ্গা বলেন, সুমন ইতোপূর্বে বিহাড়কোল বাজারে স্বর্ণের দোকানি চুরি-ডাকাতির অভিযোগে অভিযুক্ত। তিনি দাবী করেন তাকে আইনের আওতায় এনে মসজিদের টাকা উদ্ধার করা উচিত।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রিয়াংকা দেবী পাল বলেন, ঈদের ছুটির আগে শেষ কর্মদিবসে অভিযোগ পত্রটি পেয়েছি, বিষয়টি তদন্তের জন্য প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

মে ১৭
০৪:১০ ২০২১

আরও খবর