Daily Sunshine

রাজশাহী অঞ্চলে প্রশান্তির বৃষ্টি

Share

স্টাফ রিপোর্টার: পদ্মাপাড়ের রাজশাহীর আবহাওয়া বলা হয় সব সময়ের জন্যই বৈরী। এখানে শীতের সময় সর্বোচ্চ শীত ও গরমের সময় সর্বোচ্চ গরম।
তবে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে আবহাওয়ার এমন বিরূপ আচরণ আর সইতে পারছে না সবুজ-শ্যামল প্রকৃতি। তাই গ্রীষ্মের উষ্ণতা থেকে পরিত্রাণ পেতে নদীপাড়ে গড়ে ওঠা এই তিলোত্তমা শহরের মানুষের মধ্যে বৃষ্টির জন্য যেন হাহাকার পড়ে যায়।
সূর্য দহনে তামাটে বর্ণ ধারণ করা সবুজ প্রকৃতিও যেন বৃষ্টির জন্য অপেক্ষার প্রহর গুণতে থাকে। অবশেষে বৈশাখের খরতাপে পিপাসার্ত প্রকৃতি যেনো প্রাণ ফিরে পেয়েছে। বহুল আকাঙ্খার বৃষ্টি ঝরছে রাজশাহীতে। বৃষ্টির পরশ পেতেই শুকনো পত্রপল্লবগুলো যেন আবারও সঞ্জীবনী শক্তি ফিরে পেয়েছে। আর রমজানের এ বৃষ্টি যেন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের জন্য আল্লাহর রহমত হয়েই বর্ষিত হচ্ছে।
মঙ্গলবার সকালে চোখ খুলেই প্রত্যাশিত মেঘাচ্ছন্ন আবহাওয়া পায় রাজশাহীবাসী। এরপর সময় যত গড়াতে থাকে আকাশটা ততই কালো মেঘে ভারি হয়ে ওঠে। দুপুর ১২টার পর থেকে শুরু হয় কাঙ্খিত বৃষ্টি। মুষলধারে বৃষ্টি চলে একটানা বিকেল সোয়া ৩টা পর্যন্ত। এরপর থেমে থেমে এখনো গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে রাজশাহীতে৷ তবে আকাশে প্রচুর মেঘ রয়েছে তাই আরও বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।
এদিকে বৈশাখের বৃষ্টিতে খরার কবলে পড়া আম, লিচুসহ ফলের ব্যাপক উপকার হয়েছে। বৃষ্টির কারণে আম দ্রুত বড় হবে এবং ঝরে পড়া বন্ধ হবে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। বৃষ্টির সঙ্গে কোনো দমকা হাওয়া নেই। তাই ফসলের কোনো ক্ষতি হয়নি। এখন উফশী ধান লাগানো হচ্ছে। এ বৃষ্টিতে ধানের উপকার হয়েছে। এছাড়া জমিতে থাকা পাট, তিল ও ভুট্টাসহ অন্যান্য সবজি জাতীয় ফসলের উপকার হলো।
রাজশাহী আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের জ্যেষ্ঠ পর্যবেক্ষক রেজওয়ানুল হক জানান, মঙ্গলবার (১১ মে) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মুষলধারে বৃষ্টি শুরু হয়। একটানা বৃষ্টি চলে বেলা সোয়া ৩টা পর্যন্ত। এ সময় রাজশাহীতে ২০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। এর আগে সোমবার (১০ মে) রাতেও বৃষ্টি হয়েছে। রাত সাড়ে ৯টা থেকে পৌনে ১০টা পর্যন্ত ৩ দশমিক ৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। আর চলতি মৌসুমের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে গত ৫ মে ৬১ দশমিক ৪ মিলিমিটার।
মঙ্গলবার (১১ মে) রাজশাহীতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন ২২ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাতাসের আদ্রতা ছিল সকাল ৬টায় ৮৪ শতাংশ এবং বিকেল ৩টায় ৯৭ শতাংশ।
এদিকে আবহাওয়া অধিদফতর থেকে মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, এই ২৪ ঘণ্টা পরবর্তী তিন দিনেও বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের প্রবণতা অব্যাহত থাকতে পারে। মঙ্গলবার রাজশাহী, রংপুর, ঢাকা, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং চট্টগ্রাম, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝড়ো হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে।
সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

মে ১২
০৫:৫২ ২০২১

আরও খবর