Daily Sunshine

চিরনিদ্রায় সায়িত হলেন মেরাজ মোল্লা

Share

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও রাজশাহী-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মেরাজ উদ্দিন মোল্লার জানাযার নামাজ শেষে দাফন সম্পন্ন হয়েছে। সোমবার বাদ জোহর নওহাটা সরকারি ডিগ্রী কলেজ মাঠে জানাযার নামাজ শেষে নওহাটার কাজিপাড়া পারিবারিক গোরস্থানে দাফন সম্পন্ন করা হয়।
এরআগে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বীর মুক্তিযোদ্ধা মেরাজ উদ্দিন মোল্লাকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। এরপর বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানো হয়। এছাড়াও এমপি ফজলে হোসেন বাদশার পক্ষ থেকেও তাঁকে ফুলের শ্রদ্ধা জানানো হয়।
জানাযা নামাজে অংশ নেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। জানাযা নামাজের পূর্বে স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য দেন মেয়র।
রাসিক মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন তাঁর বক্তব্যে বলেন, মরহুম মেরাজ উদ্দিন মোল্লা সদালাপী ও মিষ্টি হাসি মানুষ ছিলেন। তাকে কখনো রাগতে দেখিনি। কারো সঙ্গে কখনো মনোমালিন্য হলে হেসে সেটি সহজেই ঠিক করে নিতেন। তাঁর এই অদ্ভুত একটা গুণ ছিল। তিনি তৃণমূল মানুষদের সাথে অত্যন্ত সহজেই মিশতে পারতেন। তাঁর চলে যাওয়ার শূণ্যতা আমাদের কষ্ট দিচ্ছে, আরো কষ্ট দেবে। তাঁর মৃত্যুতে অপূণীয় ক্ষতি হলো।
জানাযা নামাজের পূর্বে স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য দেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি, সাবেক এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াদুদ দারা, সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন, ডা. শামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল, ডা. তবিবুর রহমান শেখ। জানাযায় অংশ নেন সাবেক এমপি জিয়াউদ্দিন জিয়া, রাজশাহী জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল, জেলা পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন, জেলা ত্রাণ ও পুর্নবাসন কর্মকর্তা আমিনুল হক, মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, নগর ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক দেবাশিষ প্রামানিক দেবু, জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক এসএম আশরাফুল হক তোতা, নওহাটা পৌর মেয়র হাফিজুর রহমান, কেশরহাট পৌর মেয়র শহিদুজ্জামান শহীদ।
আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগ সহসভাপতি এ্যা. জাকিরুল ইসলাম সান্টু, যুগ্ম সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মানজাল, পবা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা ইয়াসিন আলী, পবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিমুল আকতার, ভাইস চেয়ারম্যান ওয়াজেদ আলী খান, পবা থানা ওসি শেখ মো. গোলাম মোস্তাফা, জেলা যুবলীগ সভাপতি আবু সালেহ, সাধারণ সম্পাদক আলী আজম সেন্টু, পবা উপজেলা যুবলীগ সভাপতি এমদাদুল হক, সাধারণ সম্পাদক তফিকুল ইসলাম প্রমুখ।
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রবিবার রাত ৯টার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। তিনি স্বাধীনতা পরবর্তীকালে রাজশাহী জেলা পবা উপজেলার নওহাটা ইউনিয়ন পরিষদ একাধিকবার চেয়ারম্যান, দুইবার পবা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও ২০০৮ সালে রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ছিলেন। এছাড়াও তিনি রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি পদে দায়িত্বরত ছিলেন।
এদিকে বীর মুক্তিযোদ্ধা মেরাজ উদ্দিন মোল্লার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। রোববার রাতে এক শোক বার্তায় এই শোক প্রকাশ করেন মেয়র। শোক বার্তায় রাসিক মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং তাঁর শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। একই সাথে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগে তাঁর অবদান শ্রদ্ধার সাথে করেন রাসিক মেয়র।
মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করে শোক জানিয়েছেন, রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন। পবা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও পবা আওয়ামী লীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ইয়াসিন আলী, সাধারণ সম্পাদক মাজদার রহমান সরকার, নওহাটা পৌর মেয়র হাফিজুর রহমান, নওহাটা পৌর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইউনুস আলী, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মাননান, হরিপুর ইউপির চেয়ারম্যান বজলে রেজবি আল হাসান মুঞ্জিল, হুজুরীপাড়া ইউপির চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা, হড়গ্রাম ইউপির চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, দর্শনপাড়া ইউপির চেয়ারম্যান কামরুল হাসান রাজ প্রমুখ।

মে ১১
০৫:০৭ ২০২১

আরও খবর