Daily Sunshine

সরকারি বস্তায় ব্যবসায়ীর ৫০০ মণ গম জব্দ

Share

গোদাগাড়ী প্রতিনিধি: খাদ্যগুদামে ঢোকানোর আগে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায় এক ব্যবসায়ীর ৪০০ বস্তা গম জব্দ করেছে পুলিশ। শনিবার রাত ৯টার দিকে গোদাগাড়ীর কাঁকনহাট পৌরসভার রসুলপুর দিঘিপাড়া মহল্লায় ওই ব্যবসায়ীর বাড়ির সামনে থেকে চারটি ট্রলিভর্তি এসব গম জব্দ করা হয়।
এ নিয়ে থানায় মামলা করেছে পুলিশ। মামলায় ব্যবসায়ী আতাউর রহমান ওরফে আতাসহ অজ্ঞাত আরও কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে। গোদাগাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খলিলুর রহমান পাটোয়ারি এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, প্রতিটি বস্তায় ৫০ কেজি গম ছিল। গমের মোট ওজন ৫০০ মণ। খাদ্যবিভাগের বস্তায় ভরেই গমগুলো ট্রলিতে তোলা ছিল।
ওসি বলেন, আতাউর রহমান আতা ব্যবসায়ী। তার বাড়ির সামনে ট্রলিতে খাদ্যগুদামের বস্তায় পাওয়া গেছে বলে গমগুলো জব্দ করা হয়েছে। এ গম খাদ্যগুদাম থেকে বের করা হয়েছে নাকি ঢোকানো হতো তা আমরা জানি না। তবে আমরা কালোবাজারির অভিযোগে একটা মামলা করেছি। আসামি আতাউর পলাতক। তাকে গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদ করলেই বিষয়টি বোঝা যাবে।
সংশ্লিষ্ট একটি সূত্রে জানা গেছে, এখন প্রতিকেজি ২৮ টাকা দরে কৃষকের কাছ থেকে গম কিনছে খাদ্যবিভাগ। কিন্তু বাজারেই এবার গমের দাম ২৬ টাকা কেজি। মণপ্রতি দুই টাকা বেশি পেতে কৃষকের খাদ্যগুদামে গম দিতে আগ্রহ কম। এ সুযোগ নিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। তারা কম দামে আমদানী করা নিম্নমানের গম গুদামে দিচ্ছেন। এতে তাদের লাভ হচ্ছে। খাদ্যবিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগসাজসেই ব্যবসায়ীরা এ সুযোগ পেয়েছেন।
গোদাগাড়ীতে উদ্ধার গমগুলোও এ ধরনের হতে পারে। সরকারি খাদ্যগুদামে ঢোকানোর আগে পুলিশ অভিযান চালিয়ে এগুলো জব্দ করেছে।
এ বিষয়ে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক জামাল উদ্দীন বলেন, গম উদ্ধার করা হয়েছে বলে শুনেছি। আর বিস্তারিত জানি না। তবে এসব গম কাঁকনহাটের খাদ্যগুদাম থেকে বের হয়নি।

মে ১০
০২:৩২ ২০২১

আরও খবর