Daily Sunshine

সেফহোমে থাকা মানসিক ভারসাম্যহীন নারীর মৃত্যু

Share

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী নগরীর উপকণ্ঠ পবা উপজেলার বায়ায় অবস্থিত সেফ হোমে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (৪ মে) দিবাগত রাতে তিনি মারা গেছেন। আনুমানিক ৫৫ বছর বয়সী ওই নারী ২০১২ সাল থেকে সেফহোমে ছিলেন। মানসিক ভারসাম্যহীন ওই নারীর পরিচয় নিশ্চিত করতে পারেনি সেফহোম কর্তৃপক্ষ।
পরিচয় না পাওয়ায় সেফহোম কর্তৃপক্ষ ওই নারীর নাম রেখেছিল জুলেখা। সেফহোমের তত্ত্বাবধায়ক লাইজু রাজ্জাক তাঁর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ২০১২ সালে সিরাজগঞ্জ থেকে এই নারীকে উদ্ধার করে সেফহোমে পাঠানো হয়। তিনি অসুস্থ ছিলেন।
তিনি আরও জানান, জুলেখার মানসিক সমস্যা ছিল। পাবনা মানসিক হাসপাতালে একাধিকবার চিকিৎসা করানো হয়েছে। এছাড়া তাঁর পিত্তথলিতে পাথর ছিল। পিত্তনালিতে ছিল টিউমার। কিছুদিন ধরে জণ্ডিসেও ভুগছিলেন। মাস তিনেক আগে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করানো হয়।
মঙ্গলবার তিনি আবারো অসুস্থ হয়ে পড়েন। এরপর তাকে রামেক হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে তার মৃত্যু হয়েছে। তাঁর মৃত্যুসনদে লেখা হয়েছে, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি মারা গেছেন। মরদেহ রামেক হাসপাতালের হিমঘরে আছে। মরদেহের ময়নাতদন্ত হবে। পরিচয় না পাওয়া গেলে আঞ্জুমানে মফিদুলের মাধ্যমে দাফন করা হবে বলেও জানান তত্বাবধায়ক লাইজু রাজ্জাক।
সেফহোমে থাকা মানসিক

মে ০৬
০৩:২৩ ২০২১

আরও খবর