Daily Sunshine

বাঘায় ঘর পাচ্ছেন আরও ২০ পরিবার

Share

স্টাফ রিপোর্টার, বাঘা: রাজশাহীর বাঘায় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও স্থানীয় সাংসদ শাহরিয়ার আলমের একান্ত প্রচেষ্টায় আশ্রয়ন প্রকল্প-২ এর মাধ্যমে আরো ২০টি গৃহহীন পরিবার পাচ্ছে পাকা ঘর। এর আগে প্রথম ফেজে ১৫ টি গৃহহীন পরিবারকে ঘর করে দেয়া হয়। আর এসব ঘরের তদারকি করছেন খোদ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।
সংশ্লিষ্ঠ সূত্রে জানা গেছে, বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগ ‘বাংলাদেশে একজন মানুষও গৃহহীন থাকবেন’ না এমন শ্লোগানকে সামনে রেখে দেশব্যাপী-ভূমিহীন, গৃহহীন ও ছিন্নমূল মানুষদের জন্য চলছে আশ্রায়ণ-২ প্রকল্পের মাধ্যমে পাকা ঘর নির্মাণ প্রকল্প। এ প্রকল্পের মুল উদ্দেশ্য অসহায় দরিদ্র জনগোষ্ঠীর পুনর্বাসন, ঋণ প্রদান ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহে সক্ষম করে তোলা।
এদিক থেকে স্থানীয় সাংসদ ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এ প্রকল্পের মাধ্যমে তার নির্বাচনী এলাকা চারঘাট-বাঘায় ইতোমধ্যে অসংখ্য গৃহহীনদের জন্য পাকা ঘরের ব্যবস্থা করেছেন। গত কয়েক মাস পূর্বে তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে মনিগ্রাম ইউনিয়নে একই স্থানে ১৫ টি গৃহহীনের জন্য পাকা ঘর, বিদ্যুৎ পানি এবং সেনিটেশানের ব্যবস্থা করেন। এরপর চলতি মাসে আরো ২০ টি পরিবার পাচ্ছে এই পাকা ঘর। যার উদ্বোধন করেছেন বাঘা উপজেলা নির্বাহী অফিসার পাপিয়া সুলতানা।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার পাপিয়া সুলতানা বলেন, আশ্রায়ন-২ প্রকল্পের মাধ্যমে প্রতিজনের জন্য ১ লক্ষ ৯০ হাজার টাকা ব্যয়ে দ্বিতীয় দফায় উপজোলায় ২০টি পরিবারকে ২ শতাংশ সরকারি জমিসহ পাকা ঘর নির্মাণকাজ শুরু হয়েছে।
তিনি বলেন, যদিও এটি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ বরাদ্দ। তবু স্থানীয় সাংসদের পক্ষ থেকে তার নির্বাচনী এলাকায় এ প্রকল্প বাস্তবায়নে অনেক অবদান রয়েছে।
সূত্রে জানা গেছে, ইতোমধ্যে উপজেলার মনিগ্রাম ইউনিয়নে ৮ টি, বাউসায় ৮ টি এবং বুধবার গড়গড়ী ইউনিয়নে ৪ জনের জন্য গৃহনির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার পাপিয়া সুলতানা।
এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) কামাল হোসেন, স্থানীয় গড়গড়ি ইউপি চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম রবি ও বাঘা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নুরুজ্জামান ও স্থানীয় ইউপি সদস্য রাসেদসহ এলাকার সুধী জন।

মে ০৬
০৩:২১ ২০২১

আরও খবর