Daily Sunshine

চাঁদা দিয়ে মুক্ত হলেন চাঁদাবাজ সাংবাদিকরা

Share

গোদাগাড়ী প্রতিনিধি: চাঁদাবাজ সাংবাদিক অন্য একজনকে ম্যাজিস্ট্রেট সাজিয়ে প্রাইভেট কার নিয়ে নাহার ফুডস্ এ্যন্ড বেকারিতে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে গণধোলাইয়ের শিকার ও উল্টো ৬০ হাজার টাকা দিয়ে মুক্তি পায় ওই বেকারি মালিকের নিকট হতে। ঘটনাটি ঘটেছে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার বাসুদেবপুর ইউনিয়নের কামারপাড়া গ্রামে।
কথিত ম্যাজিস্ট্রেট হলো-চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার দারিয়াপুর গ্রামের নাসির উদ্দীন। আর কথিত সাংবাদিকরা হল-অনলাইন নিউজ পোর্টাল জনতার কথার সম্পাদক আলমগীর, দৈনিক মুক্তির রাজশাহী জেলা প্রতিনিধি সাফিয়ান স্বাধীন ও আলমগীরের সহযোগী শুভ।
বেকারী মালিক আব্দুল মতিন বিপু জানান, সোমবার দুপুরের দিকে প্রাইভেটকার যোগে একজনকে র‌্যাবের ম্যাজিস্ট্রেট সাজিয়ে অনলাইন জনতার কথা পোর্টালের সম্পাদক আলমগীর কামারপাড়াস্থ তার নাহার ফুডস এন্ড বেকারী কারখানায় বিনানুমতিতে ঢুকে পড়ে এবং ম্যাজিস্ট্রেটের ভয় দেখিয়ে তার লোকের নিকট ১০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে।
বেকারী মালিক আব্দুল মতিন বিপু বলেন, আমি জানতে পেরে তাদের আটকে রাখার নির্দেশ দিয়ে কয়েক মিনিটের মধ্যে কারখানায় হাজির হই।
এরই মধ্যে স্থানীয়রা কথিত সাংবাদিকদের ঘিরে ফেলে এবং বেঁধে নির্যাতন শুরু করে। একপর্যায়ে কথিত ম্যাজিস্ট্রেট নাসিরের বড় ভাই সেখানে গিয়ে হাজির হয়। তারপর স্থানীয় মেম্বার লিটনসহ স্থানীয় কয়েকজন নেতা সাংবাদিকদের ৩০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে তাদের ছেড়ে দেয়।
এদিকে সাংবাদিক আলমগীরের এক অডিও বার্তায় বলেন, তাদের নিকট হতে ৬১ হাজার টাকা নিয়েছে বেকারী মালিক দিপু ও স্থানীয় কয়েকজন নেতা।
চাঁদাবাজ সাংবাদিককে গণধোলাই দিয়ে আপনি নিজে চাঁদাবাজি করলেন এবিষয়ে বেকারী মালিক বিপুর নিকট মুঠোফোনে জানতে চাইলে কথা বলবেন বলে জানান।
বেকারী মালিক বিপু জানান, গোদাগাড়ী থানা পুলিশ আসলে পুলিশকে স্থানীয় নেতারা মীমাংসা হয়ে গেছে জানালে পুলিশ ফেরৎ চলে যায়।
গোদাগাড়ী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খলিলুর রহমান পাটোয়ারি বিষয়টি জানেননা বলে জানান। সাংবাদিকদের নিকট হতে মোটা অংকের টাকা নিয়ে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে এবিষয়ে জানতে চাইলে ওসি বলেন, টাকা নিয়ে ছেড়ে থাকলে তা অন্যায় করেছে। সাংবাদিকরা অভিযোগ দিলে সেবিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মে ০৫
০৩:১১ ২০২১

আরও খবর