Daily Sunshine

বাগমারার গ্রামে শিশুর মৃত্যু নিয়ে রহস্য

Share

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহীর বাগমারায় এক শিশুর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। ওই শিশুর নাম মারুফ হাসান (৭)। সে উপজেলার শুভডাঙ্গা ইউনিয়নের বিনোদপুর গ্রামের শাহজাহান আলীর ছেলে। মৃত্যু বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার বাবা, দুই চাচা ও সৎ মাকে থানায় নেওয়া হয়েছে।
পুলিশ ও এলাকা সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সকালে শিশু মারুফ হাসানকে বাড়িতে সৎমায়ের কাছে রেখে তার বাবা শাহজাহান আলী কাজের জন্য বাইরে যান। শিশুটি অস্বাভাবিক আচরণ করছে বলে সৎ মা মুক্তা বেগম মুঠোফোনে তার স্বামীকে জানান। স্বামীর পরামর্শে পড়া পানি শিশুর নাকে মুখে ছিটিয়ে দেওয়া হয়। এতে কোনো উন্নতি হয়নি। এক পর্যায়ে শিশু অচেতন হয়ে পড়ে।
এসময় চাচা ও প্রতিবেশিরাও ছুটে এসে শিশুর চেতনা ফেরানোর চেষ্টা করে। তবে শেষ পর্যন্ত সম্ভব হয়নি। সকাল সাড়ে সাতটার দিকে শিশু মারা যায়।
ছেলের মৃত্যুর খবর পেয়ে মা মারুফা বেগমও বাবার বাড়ি থেকে ছুটে আসেন। ছেলেকে মেরে ফেলা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুর লাশের সুরাতহাল প্রতিবেদন প্রস্তত করে। ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।
মারুফের শাহাজাহান আলী ও সৎ মা মুক্তা খাতুন ও কয়েকজন প্রতিবেশি বলেন, সে প্রায়ই অস্বাভাবিক আচরণ করতো। মাঝে মধ্যে অচেতন হয়ে যেত। শিশুকে কোনো নির্যাতন করা হয়নি।
বাগমারা থানার উপপরিদর্শক রিপন কুমার জানান, এই ঘটনা সর্ম্পকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চারজনকে থানায় নেওয়া হয়েছে। এখনো মামলা হয়নি। তবে শিশুর শরীরে আঘাতের চিহ্ন বা হত্যার কোনো আলামত পাওয়া যায়নি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য উদ্ধার করা হয়েছে।

মে ০১
০৩:৩৪ ২০২১

আরও খবর