Daily Sunshine

রামেক হাসপাতালে করোনা উপসর্গে ৩ জনের মৃত্যু

Share

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে করোনা উপসর্গে নিয়ে আরও তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার রাতের বিভিন্ন সময়ে রামেক হাসপাতালের ২৫ নম্বর ওয়ার্ডে দুইজন ও ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের একজনের মৃত্যু হয় বলে নিশ্চিত করেছেন রামেক হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস।
তিনি জানান, সোমবার রাতে যে দিনজন মারা গেছে তাদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাফন করতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। মারা যাওয়ার পর তাদের নমুনা সংগ্রহ করে ল্যাবে পাঠানো হয় বলে তিনি জানান। ডা. সাইফুল ফেরদৌস বলেন, হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে ৯৪ জন ভর্তি আছেন। এদের মধ্যে করোনা শনাক্ত রোগী সেবা নিচ্ছে ৫২ জন ও উপসর্গ নিয়ে ভর্তি আছেন ৪৬ জন।
এদিকে রাজশাহী বিভাগে করোনাভাইরাসে আরও দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার তাদের মৃত্যু হয়। এর মধ্যে বিভাগের নাটোরে একজন এবং বগুড়ায় একজনের মৃত্যু হয়। মঙ্গলবার রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের কার্যালয়ের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
প্রতিবেদনে বলা হয়, বিভাগের আট জেলায় এ পর্যন্ত ৪২৮ জনের মৃত্যু হলো করোনায়। এর মধ্যে সর্বোচ্চ ২৬৯ জনের মৃত্যু হয়েছে বগুড়ায়। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৬০ জন মারা গেছেন রাজশাহীতে।
এছাড়া চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১৪ জন, নওগাঁয় ২৯ জন, নাটোরে ১৫ জন, জয়পুরহাটে ১১ জন, সিরাজগঞ্জে ১৮ জন এবং পাবনায় ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার বিভাগে নতুন ১৯৩ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এ দিন সুস্থ হয়েছেন ৫১ জন।
বিভাগে এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২৮ হাজার ৮৮৩ জন। এদের মধ্যে ২৫ হাজার ৩০৬ জন সুস্থ হয়েছেন। বিভাগে এ পর্যন্ত হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তিন হাজার ২৮৭ জন কোভিড-১৯ রোগী।
এদিকে, রাজশাহী বিভাগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন করে বিভাগে ১৯৩ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। মৃতদের মধ্যে একজন বগুড়া ও আরেকজন নাটোরের বাসিন্দা। মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) দুপুরে রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য দফতরের পরিচালক ডা. হাবিবুল আহসান তালুকদার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
স্বাস্থ্য দফতরের হিসেবে, গত ২৪ ঘণ্টায় যে ১৯৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে তাদের ১০৫ জনই রাজশাহী জেলার বাসিন্দা। এছাড়াও বগুড়ায় ৪৫ জন, পাবনায় ২২ জন, সিরাজগঞ্জে ৯ জন, নাটোরে সাতজন, নওগাঁয় তিনজন এবং জয়পুরহাটে একজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এদিন শুধুমাত্র চাঁপাইনবাবগঞ্জে কারও করোনা শনাক্ত হয়নি।
গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২৭ জন। এদের ২২ জনই বগুড়ার বাসিন্দা। এদিন সুস্থ হয়েছেন ৫১ জন। এদের ২৩ জনই রাজশাহী জেলার বাসিন্দা।
গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগজুড়ে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে ১৩৩ জনকে। একই দিন হোম কোয়ারেন্টাইন থেকে বেরিয়েছেন ৮৪ জন। প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে গেছেন দুইজন। একই দিন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন শেষ করেছেন চারজন। ৩১ জন আইসোলেশনে চিকিৎসা নিয়ে বের হলেও নতুন করে আইসোলেশনে গেছেন আরও ২৮ জন।
মানুষের অসচেতনতায় প্রতিদিনই বিভাগজুড়ে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে বলে জানিয়েছেন বিভাগীয় স্বাস্থ্য দফতরের পরিচালক ডা. হাবিবুল আহসান তালুকদার। সংক্রমণ ঠেকাতে জনসমাগম এড়িয়ে চলার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার তাগিদ দিয়েছেন তিনি।
বিভাগের আট জেলায় এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে ২৮ হাজার ৮৮৩ জনের। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ২৫ হাজার ৩০৬ জন। করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন বিভাগের ৪২৮ জন। এ পর্যন্ত রাজশাহী বিভাগে সর্বোচ্চ ১০ হাজার ৯৮৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে বগুড়ায়। এই জেলায় করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন ২৬৯ জন। সুস্থ হয়েছেন ৯ হাজার ৯৫৬ জন।
বিভাগে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭ হাজার ২৩৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে রাজশাহীতে। রাজশাহী জেলায় সুস্থ হয়েছেন ৬ হাজার ১৬৫ জন। তবে প্রাণ হারিয়েছেন ৬০ জন।

এপ্রিল ১৪
০৩:১২ ২০২১

আরও খবর