Daily Sunshine

আব্বুকে খবরটা দিতে পারলে ভালো লাগতো

Share

স্পোর্টস ডেস্ক: প্রথমবারের মতো জাতীয় দলের প্রাথমিক স্কোয়াডে ডাক পেয়েছেন পেসার শহিদুল ইসলাম। ঘরোয়া ক্রিকেটে নজরকাড়া পারফরম্যান্স করে জায়গা করে নিয়েছেন শ্রীলঙ্কা সিরিজের ২১ সদস্যের দলে। দলে জায়গা পাওয়ার দিনে শহিদুল সবচেয়ে বেশি মিস করছেন বাবা হাবিবুর রহমানকে। যাকে হারিয়েছেন গত ডিসেম্বরে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের শেষ দিকে।
শুক্রবার দল ঘোষণার পর রাইজিংবিডির সঙ্গে কথা হয় শহিদুলের। মুঠোফোনে দেওয়া শহিদুলের প্রতিক্রিয়ায় খুশির আমেজের চেয়েও বেশি ঝরেছে হতাশা। যে কোনো ক্রিকেটারের জন্যই জাতীয় দলে ডাক পাওয়ার দিনটা বিশেষ; স্মরণীয়। শহিদুলের কাছেও তাই। তবে লুকাতে পারেননি হতাশা। ‘আজকের এমন একটা বিশেষ দিনে, যদিও প্রাথমিক দল তাও এমন একটা বিশেষ দিনে আব্বুরে খবরটা দিতে পারলে ভালো লাগতো। এখন তো কিছু করার নেই আব্বুর জন্য দোয়া করবেন আল্লাহ যেন ভালো রাখেন।’
গত ডিসেম্বরে শহিদুলের বাবা পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে করে চলে যান। তখন শহিদুল খেলছিলেন বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে। ফাইনালে ওঠায় বাবার স্বপ্নপূরণে জানাজা শেষেই যোগ দেন দলের সঙ্গে। বাবার মৃত্যু শোক চেপে দল জেমকন খুলনাকে র ট্রফি জয়ে রেখেছেন অনন্য ভূমিকা।
বাবার কথা স্মরণ করে শহিদুল আরও বলেন, ‘এখন আমি সবচেয়ে মিস করছি বাবাকে। আমি খেলতে গেলে সব সময় আব্বু আম্মুর দোয়া নিয়ে বের হতাম। সর্বশেষ জাতীয় লিগেও এই প্রথম আব্বুর দোয়া নেওয়া ছাড়া বাসা থেকে বের হইছি।’ প্রথমবারের মতো জাতীয় দলে ডাক পাওয়া শহিদুল করোনার কারণে স্থগিত হওয়া জাতীয় লিগে বোলিংয়ের সঙ্গে ব্যাট হাতেও দারুণ করেছেন। রংপুরের বিপক্ষে প্রথম রাউন্ডে করেছেন দুর্দান্ত সেঞ্চুরি। ঢাকা মেট্রোর হয়ে খেলা এই পেসার দুই রাউন্ডে নিয়েছেন ৬ উইকেট।
শহিদুল মনে করেন প্রাথমিক দলে জায়াগা পাওয়ায় বেশি খুশি হওয়ার কিছু নেই। তিনি বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ ভালো লাগতেছে। কিন্তু প্রাথমিক দল বেশি খুশি হওয়ার কিছু নেই। সামনের দিকে নজর দিতে হবে মূল স্কোয়াডে জায়গা করতে হবে।’
শেষ বিপিএলে ১৩ ম্যাচে ১৯ উইকেট নিয়ে হয়েছেন পঞ্চম সেরা উইকেটশিকারি। খেলেছেন এর আগের বিপিএলও। নেটে বোলিং করতে গিয়ে তাকে পছন্দ হয়ে যায় টম মুডির। সেই আসরেও মাশরাফির সঙ্গে তাল মিলিয়ে ভালো বোলিং করেছেন নারায়ণগঞ্জের পেসার। নিয়মিত জাতীয় ক্রিকেট লিগ ও বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগেও দ্যুতি ছড়াচ্ছেন। বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারির তালিকায় আছেন পাঁচ নম্বরে। ৮ ম্যাচে নিয়েছেন ১৫ উইকেট।
মূল স্কোয়াডে যদি সুযোগ পান? এমন প্রশ্নে শহিদুলের উত্তর জায়গা ধরে রাখার চেষ্টা করবেন। ‘সুযোগ যদি আল্লাহ করে, সুযোগ পাওয়ার জন্য যে কাজটা করতে হবে ওই জায়গাটা ধরে রাখার চেষ্টার করবো ইনশাল্লাহ। এ বিষয়ে আসলে এখন তেমন কিছু বলার নাই। সময় সুযোগ হলে হবে।‘

এপ্রিল ১০
০৬:৩১ ২০২১

আরও খবর