Daily Sunshine

অস্থির ভোজ্যতেলের বাজার

Share

নুরুজ্জামান, বাঘা: দেশে আবারো অস্থির হয়ে উঠেছে ভোজ্যতেলের বাজার। বিশ্ববাজারে তেলের দাম সাভাবিক থাকলেও দেশে ক্রমাগত বাড়ছে। এর প্রভাব পড়েছে রাজশাহীসহ পার্শ্ববর্তী উপজেলা গুলোতে।
বিশেষ করে জেলার সীমান্তবর্তী বাঘা উপজেলার ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অংকের টাকা। মাত্র দেড়মাসের ব্যবধানেই খুচরা বাজারে লিটার প্রতি সুয়াবিনের দাম বেড়েছে ৪০ টাকা এবং সরিষার তেলের দাম বেড়েছে ৪৩ টাকা। আগত রমজান এবং করোনা সংকটকে কেন্দ্র করে অল্প সময়ের মধ্যে তেলের দাম আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন ব্যবসায়ী মহল।
রাজশাহীর বাঘা উপজেলার ব্যবসায়ী তারেক, মসিউর রহমান ও বকুল হোসেন বলেন, বিশ্ববাজারে ভোজ্যতেলের দাম আগের চেয়ে কিছুটা বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে দেশেও দাম বেড়েছে। এখন পাইকারি পর্যায়ে বেশি দামে আমাদের তেল কিনতে হচ্ছে। এজন্য আমরাও দাম বাড়িয়ে দিয়েছি।
তবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় একটি সূত্র জানান, দেশে ভোজ্যপণ্যের বাজার ঘিরে এখনো সিন্ডিকেট চক্র সক্রিয়। তারা নিত্যপণ্যের বাজার অস্থির করে সরকারকে বিপাকে ফেলে সাধারণ জনগণের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।
সূত্রটি আরো বলেন, এর আগে পেঁয়াজের দাম বাড়িয়ে একটি সিন্ডিকেট প্রায় হাজার-হাজার কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এবার ভোজ্যতেলের বাজার অস্থিতিশীল করার চেষ্টা বাস্তবায়ন করতে আরেকটি মহল নানা কারণ খুঁজছেন। বিশেষ করে করোনা সংকট মোকাবেলায় সরকার ঘোষিত লকডাউনকেও তারা ইস্যু হিসাবে বেছে নিতে পারেন বলে মনে করেন অনেকে।
এদিকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মনিটরিং সেলের হিসাব পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, আন্তর্জাতিক বাজারে ভোজ্যতেলের মূল্য কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে জাতীয় কমিটি ভোজ্যতেলের প্রতি লিটার সয়াবিন (খোলা) মিলগেট মূল্য ১০৭ টাকা, পরিবেশক মূল্য ১১০ টাকা এবং খুচরা মূল্য ১১৫ টাকা নির্ধারণ করেছে। কিন্তু বর্তমানে বাজারে এক লিটার খোলা সয়াবিন বিক্রি হচ্ছে ১২৫ থেকে ১২৭ টাকায়। এদিক থেকে ইনট্রেক বোতলের দাম নিচ্ছেন ১৩৫ টাকা।
বাঘার পাইকারি ব্যবসায়ী হাবিবুল ইসলাম দাম বাড়ার কথা স্বীকার করে বলেন, বর্তমানে পাবনার ঈশ্বরদীতে ধানের গুড়া রিফাইন করে সয়াবিন তৈরি হচ্ছে। কিন্তু এখানে সময়মতো চাহিদা অনুযায়ী তেল পাওয়া যায় না। একই অবস্থা দেশের অন্যান্য মিল গুলোতেও। এতে করে বাজারে তেলের ঘাটতি সৃষ্টি হচ্ছে। এতোদিন যে দামে ভোজ্যতেল বিক্রি হয়েছে তাতে খুব বেশি লাভ হয় নি। এখন ভালো দাম পাওয়া যাচ্ছে তেল ঘাটতির কারণে।
তেলের দাম বাড়া প্রসঙ্গে দেশের অন্যতম ভোজ্যতেল ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান ফ্রেস কম্পানীর ডিলার বাঘার ডলি ভ্যারাটি স্টোরের পরিচালক আব্দুল্লা মাহামুদ বাচ্চু ও টিকে গ্রুপের পুষ্টি সয়াবিন ডিলার ঈশ্বরদীর শামিম এন্টার প্রাইজের পরিচালক শামিম বলেন, বিশ্ববাজারে পূর্বের চেয়ে ভোজ্যতেলের দাম কিছুটা বাড়ায় এর প্রভাব পড়েছে খোলা বাজারে। এতোদিন যে দামে তেল বিক্রি হয়েছে তাতে ব্যবসায়ীদের মুনাফা তো দূরের কথা, লোকসান হয়েছে। এখন দাম কিছুটা বাড়ায় ব্যবসায়ীরা কিছুটা হলেও তাদের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারছেন।
অন্যদিকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা জানান, এদেশের অধিকাংশ নিত্যপণ্যের বাজারই গুটিকয়েক শীর্ষ আমদানিকারকের হাতে জিম্মি হয়ে পড়েছে। কোনোভাবেই সরকার এই অশুভ সিন্ডিকেট ভাঙতে পারছে না। বরং ক্রমাগত তারা বাজারে প্রভাব বিস্তারের পাশা-পাশি বিভিন্ন সময় প্রশাসনের অনেক সিদ্ধান্ত গ্রহণেও হস্তক্ষেপ করছে। প্রাশাসন তাদের কাছে এক রকম অসহায়। এ কারণেই প্রতিনিয়ত নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম যখন-তখন অহেতুক বেড়ে যাচ্ছে।
তাঁর মতে, বর্তমান পরিস্থিতিতে এদেশে ভোজ্যতেলের দাম বাড়ার কোনো কারণই নেই। কারণ বিশ্বের বিভিন্ন দেশেই এবার সয়াবিনের বাম্পার ফলন হয়েছে। একই সঙ্গে বিশ্ববাজারেও স্থিতিশীল রয়েছে ভোজ্যতেলের দাম। তিনি এ বিষয়ে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করাসহ প্রয়োজনে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

এপ্রিল ০৭
০৬:২৫ ২০২১

আরও খবর

Subcribe Youtube Channel

বিশেষ সংবাদ

চিকিৎসক-পুলিশের পাল্টা বিবৃতি, হাইকোর্টের ক্ষোভ

সানশাইনডক্সে: চলমান লকডাউনে রাস্তার ‘মুভমেন্ট পাস’ নিয়ে চিকিৎসক, ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশের বাগবিতণ্ডার ঘটনায় দুই পেশাজীবী সংগঠনের পাল্টাপাল্টি বিবৃতিতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন হাইকোর্ট। আদালত বলেছেন, ওই ঘটনায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পাল্টাপাল্টি বিবৃতি দেয়া সমীচীন হয়নি। তাদের এমন আচরণ অনাকাঙ্ক্ষিত। সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাছে এমন আচরণ কাম্য নয়। মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) হাইকোর্টের বিচারপতি এম.

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

টিকা কার্ড নিয়ে যাতায়াত করা যাবে

টিকা কার্ড নিয়ে যাতায়াত করা যাবে

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির অবনতির কারণে ১৪ এপ্রিল সকাল ৬টা থেকে ২১ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। তবে এ সময়ে টিকা কার্ড নিয়ে টিকা গ্রহণের জন্য যাতায়াত করা যাবে বলে জানানো হয়েছে। সোমবার (১২ এপ্রিল) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, অতি জরুরি প্রয়োজন

বিস্তারিত