Daily Sunshine

ভাড়া বাড়িয়েই ক্ষান্ত প্রশাসন কোথাও নেই স্বাস্থ্যবিধির বালাই

Share

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহীর সর্বত্র সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি পালনে অনিহা লক্ষ্য করা গেছে। করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে দূরপাল্লার যানবাহনে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব পালনের নামে ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে। তবে সুযোগ পেলেই বাসে অতিরিক্ত যাত্রী তোলার অভিযোগ রয়েছে। আর বাস টার্মিনাল ও টিকেট কাউন্টারগুলোতে সামাজিক দূরত্ব পালনের বালাই নেই। বাজার-হাট ও বিনোদন কেন্দ্রগুলোতেও একই চিত্র। হাসপাতালে বাড়ছে করোনা আক্রান্ত রোগীর চাপ। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের দাবি, স্বাস্থ্যবিধি পালনে এখনই কঠোর না হওয়া গেলে করোনার সংক্রমণ আরো বৃদ্ধি পাবে। তখন বাধ্য হয়েই লকডাউনের মতো সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হবে সরকার।
স্বাস্থ্য বিভাগের দেয়া তথ্য মতে, রাজশাহীতে করোনা রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে স্থানীয় প্রশাসনকে এখন পর্যন্ত জনসমাগম প্রতিরোধে বা স্বাস্থ্যবিধি পালন করাতে কঠোর হতে দেখা যায়নি। তবে পুলিশের পক্ষ থেকে মাইকিং করে মাস্ক পড়তে বলা হচ্ছে।
করোনা সংক্রমণ রোধে বুধবার থেকে বাস ও ট্রেনে নির্ধারিত আসনের অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচলের নির্দেশ জারি করা হয়েছে। একই সাথে এসব যানবাহনের ভাড়া দ্বিগুণ করা হয়েছে। তবে যাত্রীসহ সাধারণ নাগরিকদের দাবি, অধিকাংশ যানবাহনে সেই নির্দেশনা পালন করা হচ্ছে না। একই সাথে টিকেট কাউন্টার ও টার্মিনালগুলোতে স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই। এমনকি এসব স্থানে প্রশাসনের উপস্থিতি চোখে পড়েনি। এক কথায় নেই নজরদারি।
সরেজমিনে রাজশাহী নগরীর সিরইল বাস টার্মিনাল সহ তালাইমারি, ভদ্রা এবং রেলগেট বাস স্টপেজগুলোতে দেখা গেছে, বাসের কাউন্টারগুলোতে টিকেট কাটতে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়। এসব টিকেট কাউন্টারগুলোতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতের বালাই নেই। বাস ছাড়ার প্রথম কাউন্টারে নির্ধারিত আসনের অর্ধেক যাত্রী নিয়ে বাস চালু করা হলেও পরবর্তী স্টপেজে চাহিদা থাকলে যাত্রী তুলে নেয়া হচ্ছে।
এদিকে রাজশাহী ট্রেন স্টেশনের করোনা সংক্রমণ রোধের নামে একটি গেট দিয়ে যাত্রীদের প্রবেশ ও বাহির করা হচ্ছে। যাত্রীদের দাবি এতে করে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি আরো বৃদ্ধি পাবে। কারণ এক গেট দিয়ে বের হতে বা প্রবেশ করতে সবাই লাইন দিচ্ছেন।
সিরাজগঞ্জ থেকে বাস যোগে রবিবার রাজশাহীতে এসেছিলেন আমিনুল। বুধবার ভদ্রা স্টপেজে তার সাথে কথা হলে জানান, দেড়শ টাকায় রাজশাহীতে এসেছিলেন। বৃহস্পতিবার তিনি আবার সিরাজগঞ্জে ফিরে যাচ্ছেন। এজন্য দেড়শ টাকার টিকেট তাকে কাউন্টারের সামনে ভিড়ে দাড়িয়ে কিনতে হয়েছে ৩০০ টাকায়। আমিনুলের দাবি, যে অজুহাতে তার কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে তা ফলপ্রসূ হবে না। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, বাস টার্মিনাল এবং কাউন্টারে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা হচ্ছে না, একইসাথে এসব জায়গায় স্বাস্থ্যবিধির কোন বালাই নেই। তাছাড়া বাসের ভেতরে অনেক ক্ষেত্রে পাশাপাশি যাত্রী বসানো হচ্ছে। এমন অবস্থায় আমিনুল মনে করেন, বাস মালিকদের স্বার্থেই যাত্রী ভাড়া বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।
এদিকে বাসে ও ট্রেনে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতের ব্যবস্থা নেয়া হলেও, অটো, ইমা সহ হাট-বাজার ও বিনোদনকেন্দ্রগুলোতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতের কোন বালাই চোখে পড়েনি। সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত ও স্বাস্থ্যবিধি পালন হচ্ছে কিনা তা পর্যবেক্ষণে মাঠের প্রশাসনের দেখা মেলেনি।
রাজশাহী জেলায় মার্চের শুরুতে মাত্র ৫ থেকে ৮ জন রোগী শনাক্ত হচ্ছিল। মার্চের শেষে এসে সেই সংখ্যা ৪০ এ ছড়িয়েছে। সবশেষ বৃহস্পতিবার রাজশাহী মেডিকেল কলেজের করোনা পরীক্ষা ল্যাবে ৩৭৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। যাদের মধ্যে ৬৯ জনের নামুনায় করোনা ধরা পড়েছে। এদিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা পরীক্ষা ল্যাবটি দীর্ঘদিন থেকেই বন্ধ পড়ে রয়েছে। রাজশাহী জেলার জন্য ১ লাখ ৮০ হাজার কনোর প্রতিষেধক ভ্যাকসিনের ডোজ শেষ পর্যায়ে এসে পৌছেছে। আগমী ৮ এপ্রিল থেকে দ্বিতীয় ডোজ দেয়া শুরু করা হবে বলে জানিয়েছেন রাজশাহী সিভিল সার্জন। তবে এখন পর্যন্ত দ্বিতীয় ডোজ রাজশাহীতে এসে পৌছেনি।
রামেক হাসপাতালের উপপরিচালক ও হাসপাতালটির মুখপাত্র ডা. সাইফুল ফেরদৌস জানান, করোনা রোগীদের চাপ বাড়ছে হাসপাতালে। এসব রোগীদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে রামেক হাসপাতালে পৃথক দুইটি নতুন ওয়ার্ড চালু করা হয়েছে। অক্সিজেন বোর্ডগুলো সংস্কার করা হয়েছে। জনবল সংকটের কারণে হাসপাতালের করোনা পরীক্ষা ল্যাব বন্ধ ছিল। তবে দুইজন জনবল পাওয়া গেছে। প্রয়োজনে ল্যাব আবারো চালু করা হবে।
ডা. সাইফুল ফেরদৌস আরো জানান, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ প্রতিরোধে সবাইকে মাস্ক পড়াসহ স্বাস্থবিধি পালন নিশ্চিত করতে হবে। ভিড় এড়িয়ে চলতে হবে। প্রয়োজনে এক এলাকা থেকে অন্য এলাকায় মানুষ আসা বন্ধ করা যেতে পারে। স্বাস্থ্যবিধি পালনে শিথিলতা লক্ষ করা যাচ্ছে। প্রয়োজনে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি পালনে বাধ্য করতে হবে।

এপ্রিল ০২
০৫:২৭ ২০২১

আরও খবর

Subcribe Youtube Channel

বিশেষ সংবাদ

২০৩০ সালে রমজান মাস হবে দুইটি

২০৩০ সালে রমজান মাস হবে দুইটি

আর মাত্র একদিন পরই শুরু হবে আত্মশুদ্ধি ও সিয়াম-সাধনার মাস রমজান। বছরের এই একটি মাসে আমরা আমলের মাধ্যমে সওয়াবকে ৭০ গুণ বাড়িয়ে নিতে পারি। ইংরেজি বর্ষপঞ্জি অনুযায়ী বছরে একবারই আসে রমজান মাস। কিন্তু কেমন হবে যদি বছরে দুইটি রমজান মাস হয়? হ্যাঁ- আগামীতে এমনই একটি বছর আসবে যেটিতে রমজান মাস

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

টিকা কার্ড নিয়ে যাতায়াত করা যাবে

টিকা কার্ড নিয়ে যাতায়াত করা যাবে

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির অবনতির কারণে ১৪ এপ্রিল সকাল ৬টা থেকে ২১ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। তবে এ সময়ে টিকা কার্ড নিয়ে টিকা গ্রহণের জন্য যাতায়াত করা যাবে বলে জানানো হয়েছে। সোমবার (১২ এপ্রিল) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, অতি জরুরি প্রয়োজন

বিস্তারিত