Daily Sunshine

তুলশীগঙ্গা খননে ব্রিজে ফাটল

Share

স্টাফ রিপোর্ট, জয়পুরহাট: জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে তুলশীগঙ্গা নদী খননের সময় ব্রিজের তলদেশের অতিরিক্ত মাটি তোলায় ব্রিজটির পিলার ভেঙ্গে পড়ে। এতে পুরো ব্রিজে ফাটল দেখা দিলে তা ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়ায় জেলার পাঁচবিবি-গাইবান্ধা সড়কে সকল ধরনের পরিবহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। দ্রুত ব্রিজটি নির্মাণের দাবী করেছেন জনদুর্ভোগের শিকার হওয়া হাজার হাজার মানুষ।
শুকনো মৌসুমে পানি ধরে রাখতে ও বর্ষা মৌসুমে অতিরিক্ত পানি দ্রুত নিষ্কাশনের জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্ত্বাবধানে খনন কাজ চলছে তুলশীগঙ্গা নদীতে। খনন চলাকালে জয়পুরহাটের পাঁচবিবি- গাইবান্ধা সড়কের ফিচকার ঘাট ব্রিজের তলদেশ থেকে অতিরিক্ত মাটি তোলায় ভেঙ্গে যায় ব্রিজটির পিলার।
ফলে ব্রিজটিতে ফাটল দেখা দিলে তা চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ায় জেলার সাথে বিচ্ছিন্ন হয়ে পরে গাইবান্ধা, রংপুর, বগুড়া, ঢাকার পরিবহন যোগাযোগ ব্যবস্থা।
এ অবস্থায় বিকল্প যোগাযোগ ব্যবস্থা করা হলেও তা দুর্বল হওয়ায় সামান্য ভোগান্তিও কমেনি জনসাধারণের। পানি উন্নয়ন বোর্ডের গাফিলতি, দায়িত্বহীনতা ও উদাসিনতাকে দায়ি করে এ অবস্থা পরিত্রাণ চান ভুক্তভোগীরা।
ফিচকারঘাট বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক আজাদ বলেন, (পানি উন্নয়ন বোর্ড) তুলশী গঙ্গা নদী খনন করে, তখন আমরা বলেছিলাম, নদীর পাড়ে মাদ্রাসা ও মসজিদ আছে, ব্রিজের তলদেশের মাটি খনন না করা হয়। এলাকাবাসী সকলেই অনুরোধও করেছিলাম, কিন্তু তারা আমাদের কথায় পাত্তাই দেয়নি।
এলাকার শিক্ষক আহসান হাবিব, ব্যবসায়ী মোকলেসার রহমান, ট্রাক ড্রাইভার মঞ্জুরুল ইসলাম, বাস চালক শাহিন আলম ও ভ্যান চালক লিটনসহ যানবাহন চালকরা আরও বলেন, এ পথ দিয়ে যাতায়াত করা তাদের পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না। ফলে ২০-২৫ কিলোমিটার পথ ঘুরে জয়পুরহাট জেলা শহর হয়ে তারা তাদের যানবাহন নিয়ে চলাচল করছেন, এতে খরচ ও সময় বেশি ব্যয় হচ্ছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের অবহেলার কারণে এমন জনদূর্ভোগের অভিযোগ উঠলেও শুধু দায়িত্ব এড়াতে ভিন্ন কথা বললেন জয়পুরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী জাদেুল ইসলাম জানান, প্রকল্পের স্বার্থে নদীর ব্রিজের আগে একটা রিং বার দিয়েছিলাম, কিন্তু প্রবল পানির স্রোতে সেই রিং বার ভেঙ্গে ব্রিজের পিলারে আঘাত করে, পুরাতন ব্রীজের পিলারগুলি ইটের গাঁথুনি, তাই পানির স্রোতে পিলারগুলি ভেঙ্গে যায়, এতে করে ব্রিজের উপর দিয়ে চলাচল বন্ধ করে দিয়েছি, ব্রিজের পাশ দিয়ে ডাইভারশন করে দিয়েছি, আগামী বর্ষার আগে একটি কাঠের ব্রিজ নির্মাণ করে দিব। এমন দুর্ভোগের জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষই দায়ী বলে ইঙ্গিত করে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের ও পরিস্থিতি বিবেচনায় যথা শীঘ্র সম্ভব দুর্ভোগ লাঘবে আশ্বাস দিলেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ জয়পুরহাট এলজিইডি কর্তৃপক্ষ।
এ বিষয়ে কথা বললে জয়পুরহাট এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী আলাউদ্দিন জানান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধীনে তুলশীগঙ্গা নদী খননের কাজ হচ্ছিল, এতে করে জয়পুরহাটের পাঁচবিবি-গাইবান্ধার কামদিয়া সড়কের ফিচকা ঘাট ব্রিজটির পিলার ভেঙ্গে গিয়ে তা চলাচলের অযোগ্য হয়ে পরেছে, যে কোন মুহুর্তে ভেঙ্গে পরতে পারে, এ ব্যাপারে যত দ্রুত সম্ভব ব্রিজটি নির্মাণের পদক্ষেপ নেওয়া হবে। গাফিলতির জন্য সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। ব্রিজটি অকেজো হওয়ার কারনে স্থানীয় ব্যবসা-বানিজ্য স্থবির হওয়ার পাশাপশি এখানকার কৃষিপণ্য বাজারজাত করতে না পারায় যারপর নাই সমস্যায় রয়েছেন এ অঞ্চলের হাজার হাজার বাসিন্দা। অবস্থার উত্তরণে দ্রুত ব্রিজ নির্মাণের দাবী তুলেছেন এলাকার জনসাধারণ।

এপ্রিল ০১
০৬:২৩ ২০২১

আরও খবর

Subcribe Youtube Channel

বিশেষ সংবাদ

সান্তাহারে বাল্যবিয়ের কথা জানালেও পদক্ষেপ নেয়নি প্রশাসন “প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে জনসাধারণের প্রশ্ন“

সান্তাহারে বাল্যবিয়ের কথা জানালেও পদক্ষেপ নেয়নি প্রশাসন “প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে জনসাধারণের প্রশ্ন“

১৮ বছরের আগে বিয়ে নয়, একুশের আগে সন্তান নয়, বাল্যবিয়ে সামাজিক ব্যাধি, সবাই মিলে বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ করি’ এই শ্লোগানে সরকার নানা রকম কর্মসূচি পালন করে আসছে। বাল্যবিয়ের বিরুদ্ধে সরকারিভাবে কঠোর নির্দেশ থাকলেও প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্টদের অবহেলা ও উদাসীনতার কারণে বগুড়ার আদমদীঘিতে একটি বাল্য বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। বাল্যবিয়ে হচ্ছে এমন সংবাদ জানানোর

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

৫২ হাজার শুন্যপদের তালিকা প্রকাশ করলো এনটিআরসিএ

৫২ হাজার শুন্যপদের তালিকা প্রকাশ করলো এনটিআরসিএ

বেসরকারি স্কুল,কলেজ,মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এন্ট্রি লেভেলে ৫৪ হাজার ৩০৭ টি পদে শিক্ষক নিয়োগে তৃতীয় গনবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগের দ্বায়িত্বে থাকা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এনটিআরসিএ।মঙ্গলবার ৩০ মার্চ এ গনবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।আগামী ৪ এপ্রিল সকাল ১০ টা থেকে ৩০ এপ্রিল রাত ১২ টা পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন করা যাবে। তবে

বিস্তারিত