Daily Sunshine

করোনায় রামেক হাসপাতালের চিকিৎসকসহ ২ জনের মৃত্যু

Share

স্টাফ রিপোর্টার : করোনায় রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের (রামেক) সহযোগী অধ্যাপক ডা. এমএ হান্নান মারা গেছেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে রামেক হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ) তিনি মারা যান।
ডা. এম এ হান্নান রামেকের সার্জারি বিভাগে সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। করোনা শনাক্ত হওয়ার আগের দিনও রাজশাহীতে রোগী দেখেছেন তিনি।
রামেক হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস চিকিৎসকের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, শ্বাসকষ্ট নিয়ে গত ২৩ মার্চ রামেক হাসপাতালে ভর্তি হন ডা. এম এ হান্নান। এরপর ২৪ মার্চ নমুনা পরীক্ষায় তার করোনা পজিটিভ আসে। খুব দ্রুত তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে। পরে তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়।
২৬ মার্চ থেকে পুরোপুরি লাইফ সাপোর্টে ছিলেন তিনি। সেখানেই শনিবার রাত ১১টা ২০ মিনিটে তিনি মারা যান। স্বাস্থ্যবিধি মেনে রবিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তার মরদেহ দাফন করা হয়।
রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. নওশাদ আলী বলেন, যেদিন তিনি অসুস্থ হন ওইদিনও সারাদিন রোগী দেখেছেন। তখন তার কোনো সমস্যা ছিল না। হঠাৎ অসুস্থ হয়ে তার শারীরিক অবস্থা একেবারেই খারাপ পর্যায়ে চলে যায়। পরীক্ষা করে তার ফুসফুসে মারাত্মক সংক্রমণ ধরা পড়ে। এর পরদিন নমুনা পরীক্ষা করে তার করোনা পজিটিভ আসে। উন্নত চিকিৎসার জন্য এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে তাকে ঢাকায় নেওয়ার চেষ্টা চলছিল। কিন্তু শারীরিক অবস্থা জটিল থাকায় নেওয়া যায়নি।
এদিকে রাজশাহী জেলা সিভিল সার্জনের দফতরের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, এ পর্যন্ত রাজশাহী নগরীতে ৪ হাজার ৮৮০ জনের করোনা ধরা পড়েছে। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৪৩৩ জন। শুধু নগরীতেই ৩৪ জন প্রাণ হারিয়েছেন। জেলার ৯ উপজেলায় এ পর্যন্ত এক হাজার ৫০১ জনের করোনা ধরা পড়েছে। এর মধ্যে করোনা জয় করেছেন ১ হাজার ৪৬৬ জন। মহামারিতে জেলায় মারা গেছেন ২২ জন।

মার্চ ২৯
০৬:১৪ ২০২১

আরও খবর

Subcribe Youtube Channel

বিশেষ সংবাদ

কী বন্ধ, কী খোলা জেনে নিন

কী বন্ধ, কী খোলা জেনে নিন

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে ১৪ এপ্রিল থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত দেশের সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকছে, বন্ধ থাকছে যানবাহনও। বিধি-নিষেধ থাকছে সার্বিক কার্যাবলী ও চলাচলেও। সোমবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। বন্ধ থাকছে: সকল সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি অফিস/আর্থিক প্রতিষ্ঠান। সকল প্রকার পরিবহন (সড়ক, নৌ, রেল, অভ্যন্তরীণ

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

টিকা কার্ড নিয়ে যাতায়াত করা যাবে

টিকা কার্ড নিয়ে যাতায়াত করা যাবে

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির অবনতির কারণে ১৪ এপ্রিল সকাল ৬টা থেকে ২১ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। তবে এ সময়ে টিকা কার্ড নিয়ে টিকা গ্রহণের জন্য যাতায়াত করা যাবে বলে জানানো হয়েছে। সোমবার (১২ এপ্রিল) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, অতি জরুরি প্রয়োজন

বিস্তারিত