Daily Sunshine

রাজশাহীতে বিনম্র শ্রদ্ধায় শ্রষ্ঠ সন্তানদের স্মরণ

Share

স্টাফ রিপোর্টার: যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর মধ্যে দিয়ে রাজশাহীতে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে। শুক্রবার (২৬ মার্চ) দিনব্যাপী নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিবসটি উদযাপন করা হয়েছে।
সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিনের কর্মসূচির শুরু হয়। এরপর সকালে শহীদ স্মৃতি ফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এদিকে স্বাধীনতা দিবসে দেশের অন্যান্য জায়গার মতো রাজশাহীতেও সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্বশাসিত ও বে-সরকারি ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। মসজিদগুলোতে কোরআন-খানি, দোয়া ও আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।
এদিকে, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগার, শিশুসদন ও শিশু-কেন্দ্র সমুহে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হয়েছে।
রাজশাহী মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্বশাসিত ও বে-সরকারি ভবন ও সড়ক দ্বীপসমূহে বর্ণিল আলোক সজ্জিত করা হয়েছিল। এছাড়া রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলসমূহ পৃথক পৃথক কর্মসূচি পালন করছে।
সকালেই কোর্ট চত্বরে অবস্থিত শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে শহীদ স্মরণে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন বিভাগীয় কমিশনার, ডিআইজি, পুলিশ কমিশনারসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। এরপর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জেলা মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি স্টেডিয়ামে কুচকাওয়াজ প্রদর্শন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এছাড়া শহীদদের স্মরণে রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনার, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের উদ্যোগে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।
নগর আ’লীগ: বর্ণাঢ্য আয়োজন ও উৎসাহ-উদ্দিপনার মধ্যে দিয়ে উদ্যাপন করে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ। কর্মসূচিসমূহের মধ্যে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে কুমারপাড়াস্থ’ দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, নগরী প্রতিটি ওয়ার্ডে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ ও জাগরনের গান প্রচার, সকাল ১০টায় দলীয় কার্যালয়ের স্বাধীনতা চত্বরে বঙ্গবন্ধু সহ জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, বেলা ১২টায় দলীয় কার্যালয়ে মানবভোজ বিতরণ, বিকেলে সাড়ে ৪টায় দলীয় কার্যালয় থেকে আনন্দ শোভাযাত্রা বের হয়। শোভাযাত্রাটি নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিন শেষে দলীয় কার্যালয়ে এসে শেষ হয়। শোভাযাত্রা শেষে সেখানে পথসভা অনুষ্ঠিত হয়।
পথসভায় বক্তব্য দেন, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার। সন্ধ্যা ৭টায় দলীয় কার্যালয়ে বর্ণিল আতশবাজির মধ্যে দিয়ে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদ্যাপন করা হয়।
আওয়ামী লীগ নেতা ডাবলু সরকার বলেন, আজ ২৬শে মার্চ আমরা স্বাধীনতার ৫০ বছর অতিক্রম করছি। আমরা স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করলাম। আজ শৃঙ্খল মুক্ত হওয়ার দিন। ২৬শে মার্চের প্রথম প্রহরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গ্রেপ্তার হওয়ার পূর্বে শৃঙ্খল ভাঙার নির্দেশ দিয়েছিলেন, দিয়েছিলেন স্বাধীনতার ঘোষণা। তার নির্দেশেই বাঙ্গালী সেই দিন পাকিস্তানী শাসকের অন্যায়-অত্যাচার, নির্যাতন, জুলুমের প্রতিবাদে ঝাঁপিয়ে পড়ে মরণপণ যুদ্ধে। দীর্ঘ রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে ত্রিশ লক্ষ শহীদ ও দুই লক্ষ সম্ভ্রমের বিনিময়ে আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছিলাম।
স্বাধীন দেশে মুক্ত আকাশে লাল-সবুজের পতাকা উড্ডীন হয়েছিলো। পৃথিবীর মানচিত্রে জায়গা করে নিয়েছিলো বাংলাদেশ নামক এক স্বাধীন দেশ। দেশ স্বাধীন করতে গিয়ে যে সকল বীর মুক্তিযোদ্ধা তাদের আত্মাহুতি দিয়েছিলেন, তাদের স্মৃতির প্রতি আমি শ্রদ্ধা নিবেদন করি। যে সকল বীর মুক্তিযোদ্ধা আজও আমাদের মাঝে বর্তমান তাদের প্রতি আমার অন্তরের অন্তস্থল থেকে শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।
আজ আমরা এক মাহেন্দ্রক্ষণে আছি। একদিকে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী পাশাপাশি স্বাধীন বাংলাদেশের স্থাপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী। সারা দেশ আজ উৎসাহ উদ্দিনার মধ্যে দিয়ে পালন করছে।
তিনি আরও বলেন, ১৯৭১ সালের ৭মার্চের যে ঐতিহাসিক ভাষণ দিয়েছিলেন তারই প্রেক্ষিতে সংঘটিত হয়েছিলো মহান মুক্তিযুদ্ধ। বঙ্গবন্ধুর দেখা সেই স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ আজ তাঁরই কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা বাস্তবায়ন করে যাচ্ছেন। আমরা যতটুকু না ভেবেছিলাম, জননেত্রী শেখ হাসিনা তার চেয়েও অধিক উন্নয়ন করে দেখিয়েছেন। মহাকাশে স্যাটেলাইট উৎক্ষেপন, স্বপ্নের পদ্মা সেতু সহ দেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রে তিনি উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনার জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। আমি একটি কথা বারবারই বলি, দেশরত্ন শেখ হাসিনা স্বপ্ন দেখেন ও জাতিকে স্বপ্ন দেখান উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির বাংলাদেশের। যা বাস্তবায়ন পথে এগিয়ে যাচ্ছে।
কর্মসূচীসমূহে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, বীর মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী, রেজাউল ইসলাম বাবুল, নাঈমুল হুদা রানা, বদরুজ্জামান খায়ের যুগ্ম সম্পাদক মোস্তাক হোসেন, আসাদুজ্জামান আজাদ, আহ্সানুল হক পিন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. আসলাম সরকার, মীর ইসতিয়াক আহম্মেদ লিমন, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মীর তৌফিক আলী ভাদু, দপ্তর সম্পাদক মাহাবুব-উল-আলম বুলবুল, প্রচার সম্পাদক দিলীপ কুমার ঘোষ, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক জিয়া হাসান আজাদ হিমেল, মহিলা সম্পাদিকা ইয়াসমিন রেজা ফেন্সি, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক ফিরোজ কবির সেন্টু, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক রবিউল আলম রবি, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মকিদুজ্জামান জুরাত, শিল্প ও বানিজ্য সম্পাদক ওমর শরীফ রাজিব, শ্রম সম্পাদক আব্দুস সোহেল, আইন সম্পাদক অ্যাড. মুসাব্বিরুল ইসলাম, সাংস্কৃতিক সম্পাদক কামারউল্লাহ সরকার কামাল, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা সম্পাদক ডাঃ ফ ম আ জাহিদ, উপ-দপ্তর সম্পাদক পংকজ দে, উপ-প্রচার সম্পাদক সিদ্দিক আলম, সদস্য জহির উদ্দিন তেতু, এনামুল হক কলিন্স, শাহাব উদ্দিন, আশরাফ উদ্দিন খান, অ্যাড. শামসুন্নাহার মুক্তি, বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ আব্দুল মান্নান, আতিকুর রহমান কালু, সৈয়দ হাফিজুর রহমান বাবু, আব্দুস সালাম, অ্যাড. শামিমা আক্তার খাতুন, তোজাম্মেল হক বাবলু, মুজিবর রহমান, ইসমাইল হোসেন, আলিমুল হাসান সজল, বাদশা শেখ, খায়রুল বাশার শাহীন, মোখলেশুর রহমান কচি, অ্যাড. রাশেদ-উন-নবী আহসান, মাসুদ আহম্মেদ, কে এম জামান জুয়েল, আশীষ তরু দে সরকার অপর্ণ, থানা আওয়ামী লীগের মধ্যে বোয়ালিয়া (পশ্চিম) থানার সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান রতন, বোয়ালিয়া (পূর্ব) থানার সাধারণ সম্পাদক শ্যামল কুমার ঘোষ, মতিহার থানার সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন, নগর যুবলীগ সভাপতি রমজান আলী, সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন বাচ্চু, নগর কৃষক লীগ সভাপতি রহমতউল্লাহ সেলিম, সাধারণ সম্পাদক সাকির হোসেন বাবু, নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি ও ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মোমিন, সাধারণ সম্পাদক জেডু সরকার, নগর মহিলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সালমা রেজা, সাধারণ সম্পাদক কানিজ ফাতেমা মিতু, নগর যুব মহিলা লীগ সভাপতি অ্যাড. ইসমত আরা, সাধারণ সম্পাদক নিলুফার ইয়াসমিন নিলু, নগর ছাত্রলীগ সভাপতি নূর মোহাম্মদ সিয়াম, সাধারণ সম্পাদক ডাঃ সিরাজুম মুবিন সবুজ, নগর তাঁতী লীগের আহ্বায়ক আনিসুর রহমান আনার, যুগ্ম আহ্বায়ক মোকসেদ উল আলম সুমন, নগর সৈনিক লীগের আহ্বায়ক সুমন চৌধুরী, যুগ্ম আহ্বায়ক আইয়ুব আলী সহ ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীবৃন্দ।
রাসিক: দিবসটি উপলক্ষ্যে শুক্রবার সকাল ৭টায় নগর ভবনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এরপর র‌্যালি, শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ, এক মিনিট নীরবতা পালন, দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।
এদিন সকাল ৭টায় নগর ভবনে শুরুতে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের পক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন কাউন্সিলরবৃন্দ। এরপর কাউন্সিলর, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ এবং কর্মচারী ইউনিয়নের পক্ষ থেকে পৃথকভাবে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পুষ্পার্ঘ্য অর্পণের বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের শহীদ সদস্যবৃন্দ, শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামান সহ জাতীয় চার নেতা ও দেশের জন্য জীবন উৎসর্গকারী শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।
এরপর নগর ভবন থেকে র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি দড়িখরবনা মোড় হয়ে মহিলা কলেজের সামনে দিয়ে মালোপাড়া হয়ে সোনাদীঘির পাশ দিয়ে লোকনাথ স্কুলের সামনে হয়ে রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়। এরপর শহীদ মিনারে রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের পক্ষে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন কাউন্সিলরবৃন্দ। এ সময় কাউন্সিলরবৃন্দ, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ এবং কর্মচারী ইউনিয়নের পক্ষ থেকে পৃথকভাবে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পুষ্পস্তবক অর্পণের পর শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।
কর্মসূচিতে রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ ও ১২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু, প্যানেল মেয়র-২ ও ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রজব আলী, পুষ্পস্তবক অর্পণ উপ-কমিটির আহ্বায়ক ও ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল হক সুমন, ১১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রবিউল ইসলাম তজু, ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মমিন, ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুস সোবহান, ১৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বেলাল আহম্মেদ, ১৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শহিদুল ইসলাম, ২০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রবিউল ইসলাম, ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল হামিদ সরকার, ২৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তরিকুল আলম পল্টু, ২৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ আকতারুজ্জামান, ২৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ারুল আমিন, সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিল আয়েশা খাতুন, মুসলিমা বেগম বেলী, মাজেদা বেগম, উম্মে সালমা, নাদিরা বেগম, লাইলি বেগম, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড.এবিএম শরীফ উদ্দিন, প্রধান প্রকৌশলী শরিফুল ইসলাম, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ মোঃ মামুন, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আবু সালেহ মোঃ নূর-ঈ-সাঈদ, বাজেট কাম হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম খান, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. এফএএম আঞ্জুমান আরা বেগম, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী নুর ইসলাম তুষার সহ বিভিন্ন শাখা প্রধান সহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ, কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আজমির আহম্মেদ মামুন সহ কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
দিবসের কর্মসূচির মধ্যে আরো আছে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে নগর ভবন সহ ওয়ার্ড কার্যালসমূহে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, বাদ জুম্মা সোনাদিঘি জামে মসজিদ সহ ওয়ার্ডের প্রত্যেক মসজিদে মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের আত্মার মাগফেরাত সহ দেশ ও জাতির শান্তি ও অগ্রগতি কামনা করে দোয়া এবং সুবিধাজনক সময়ে অন্যান্য ধর্মীয় উপসনালয়ে বিশেষ প্রার্থনা, বিকেল ৪টায় জেলা মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়ামে বিভাগীয় কমিশনার একাদশ বনাম মেয়র একাদশ প্রীতি ফুটবল ম্যাচ, সন্ধ্যা ৭টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও আতশবাজি, নগর ভবন সহ বিভিন্ন স্থাপনা, সড়কদ্বীপ সমূহ ও মহাসড়কের প্রধান গেটগুলো আলোকায়ন।
রাবি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতীয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে। শুক্রবার (২৬ মার্চ) দিবসের প্রথম প্রহরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে ভিসি অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা ও চৌধুরী জাকারিয়া, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান আল-আরিফ, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আবদুস সালাম, প্রক্টর ও ভারপ্রাপ্ত ছাত্র-উপদেষ্টা অধ্যাপক লুৎফর রহমান, জনসংযোগ দফতরের প্রশাসক ড. মো. আজিজুর রহমান, অনুষদ অধিকর্তা, বিভাগীয় সভাপতি, হলসমূহের প্রাধ্যক্ষগণ উপস্থিত ছিলেন। সেখানে তারা অমর শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতাও পালন করেন।
ভোরে সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে প্রশাসন ভবনসহ বিভিন্ন ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল ৭টায় বিভিন্ন আবাসিক হল, ইনস্টিটিউট, বিভাগ, অন্যান্য পেশাজীবী এবং সামাজিক-সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের পক্ষ থেকে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পরে সকাল সাড়ে ৭টায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে গণকবর স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়।
পরে সকাল ১০টায় শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনা সভা ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল কর্তৃক প্রকাশিত ও হল প্রাধ্যক্ষ ড. রওশন জাহিদ সম্পাদিত ‘চিরঞ্জীব বজ্রকণ্ঠ’ শীর্ষক গ্রন্থের পাঠ উন্মোচন করা হয়।
ভিসি অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহানের সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা ও অধ্যাপক, চৌধুরী জাকারিয়া, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান আল-আরিফ, আইন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক মো. হাসিবুল আলম প্রধান বক্তৃতা করেন। সেখানে উপস্থিত অতিথিরা ‘চিরঞ্জীব বজ্রকণ্ঠ’ শীর্ষক গ্রন্থের পাঠ উন্মোচন করেন।
এদিন বাদ জুম্মা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয় বিশেষ মোনাজাত। বিকেল ৫টায় শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে রাবি শহীদ পরিবার ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন ভিসি অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান। দিবসের অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে ছিলো সন্ধ্যা ৬টা ৪৫মিনিটে কেন্দ্রীয় মন্দিরে প্রার্থনা ও সন্ধ্যা ৭টায় কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। শহীদ স্মৃতি সংগ্রহশালা সকাল ৭টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত দর্শকদের জন্য খোলা ছিল। এছাড়া বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন নিজস্ব কর্মসূচির মাধ্যমে দিবসটি উদ্যাপন করে।
রুয়েট: দিনব্যাপী নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (রুয়েট) মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে। শুক্রবার ভোরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন ও হলসমূহে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়।
পরে সকাল ৯টায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ও মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের স্মরণে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ অর্পণ, লাইব্রেরি প্রাঙ্গণে বৃক্ষরোপন কর্মসূচি ও শারীরিক শিক্ষা বিভাগের খেলার মাঠে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ফেস্টুন উড়ান রুয়েটের ভিসি অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম সেখ।
পরে বেলা ১১টায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস ২০২১ উদযাপন কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. রবিউল আওয়ালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালযের ভিসি অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম সেখ। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. সেলিম হোসেন, ইসিই অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. জহুরুল ইসলাম সরকার, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. ফারুক হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মিয়া জসলুল সাদত, রুয়েট অফিসার্স এসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি রোকনুজ্জামান, রুয়েট ছাত্রলীগের সভাপতি নাঈম রহমান নিবিড়, কর্মচারী সমিতির সভাপতি মহিদুল ইসলাম মোস্তফাসহ বিভাগীয় প্রধান, শাখা প্রধান, হল প্রভোস্টবৃন্দ প্রমুখ।
শিক্ষাবোর্ড: রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় স্বাগত ব্যক্তব্য রাখেন মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস এবং স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী-২০২১ উদ্যাপন কমিটির আহ্বায়ক ও কলেজ পরিদর্শক প্রফেসর হাবিবুর রহমান। ‘বাংলাদেশের রাষ্ট্রাদর্শ নির্মাণে বঙ্গবন্ধু’ বিষয়ে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. আবুল কাশেম এবং এ বিষয়ে আরও বক্তব্য রাখের বঙ্গবন্ধু পরিষদ রাজশাহী মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক কবি আরিফুল হক কুমার।
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের সচিব ড. মোয়াজ্জেম হোসেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক আরিফুল ইসলাম, বিদ্যালয় পরিদর্শক প্রফেসর দেবাশীষ রঞ্জন রায়, উপ-পরিচালক (হিসাব ও নিরীক্ষা) বাদশা হোসেন, অফিসার্স কল্যাণ সমিতির সভাপতি ও উপ-বিদ্যালয় পরিদর্শক মুঞ্জুর রহমান খান ও বাংলাদেশ আন্তঃ শিক্ষাবোর্ড কর্মচারী ফেডারেশনের মহাসচিব ও কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি হুমায়ুন কবীর (লালু)। আরও উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের সকল শ্রেণির কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ। অনুষ্ঠান সঞ্চালকের দায়িত্বে ছিলেন বোর্ডের উপ-বিদ্যালয় পরিদর্শক মুঞ্জুর রহমান খান। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোহা. মোকবুল হোসেন।
সুর্যোদয়ের সাথে সাথে মহান স্বাধীনতা সংগ্রামের বীর শহীদদের প্রতি সম্মান ও শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, সকাল ০৯টায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করে পুষ্পস্তাবক অর্পণ এরপরে মহান স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে কেক কেটে স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি পালন করা হয়। সকাল ১০টায় রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড চত্বরে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের উপর আলোচনা সভা এবং বোর্ডের অভ্যন্তরীণ ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ২০২০ এর বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। বাদ আছর মহান স্বাধীনতা সংগ্রামের বীর শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বোর্ড মসজিদে দোয়া ও মিলাদ মাহ্ফিলের আয়োজন করা হয়।
জেলা পরিষদ: শুক্রবার সকালে নগরীর লক্ষ্মীপুরমোড়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুস্পস্তক অপর্ণ করেন রাজশাহী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার। এসময় উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী জেলা পরিষদের প্রকৌশলী মাসুক-ই-মাহমুদ, উপ-সহকারী প্রকৌশলী সুজাউল হাসান, সার্ভেয়ার আলিফ আলী, সামাউন ইসলাম সহ কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।
এরপর ইঞ্জিয়ারিং এন্ড সার্ভে ইন্সটিটিউটের পক্ষ থেকে পুস্পস্তব অপর্ণ করেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সহ কলেজ অধ্যক্ষ মাহমুদ হোসেন, শিক্ষক-শিক্ষার্থী সহ কর্মচারীবৃন্দ।
শেষে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি রাজশাহী জেলা ইউনিটের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ রেড ক্রিস্টে সোসাইটি রাজশাহী জেলা ইউনিটের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার, সেক্রেটারী শফিকুজ্জামান শফিক সহ ইউনিট অফিসাার বাকী বিল্লাহ ও ইয়ুথ সেচ্ছাসেবক ও সদস্যবৃন্দ। পুস্পস্তবক অপর্ণ শেষে রাজশাহী জেলা পরিষদ কার্যালয়ে সম্মেলন কক্ষে পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাহানা আখতার জাহানের সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এছাড়াও সূর্যোদয়ের সাথে সাথে রাজশাহী কোর্ট চত্বরে মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভে রাজশাহী জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে পুস্পস্তবক অপর্ণ করা হয়।
এনবিআইইউ: বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে নর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে (এনবিআইইউ) মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে শুক্রবার সকালে ইউনিভার্সিটির প্রশাসনিক ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল ১০টায় রাজশাহী নগরীর আলুপট্টিস্থ ইউনিভার্সিটির একাডেমিক ভবনের সামনে থেকে র‌্যালি নিয়ে রাজশাহী কলেজের শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়। সেখানে শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এরপর সকাল ১১টায় ইউনিভার্সিটির কনফারেন্স রুমে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সভায় ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ট্রাস্টিবোর্ডের চেয়ারম্যান বিশিষ্ট কবি, কথাসাহিত্যিক, নারী উদ্যোক্তা অধ্যাপক রাশেদা খালেক। তিনি বলেন-বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম হয়েছিল বলেই আজ আমরা স্বাধীন বাংলাদেশে বসবাস করছি। পরাধীনতার শৃঙ্খল থেকে আমাদের মুক্ত করেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে আমি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও সকল শহীদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী আমরা একসাথে পালন করছি। বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। শিক্ষা, অর্থনীতি, চিকিৎসা সর্বক্ষেত্রে বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে। তিনি স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে বাংলাদেশের আরো সমৃদ্ধি কামনা করেন।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মুহম্মদ আবদুল জলিল, ট্রেজারার প্রফেসর ড. মদন মোহন দে, চীফ-কো অর্ডিনেটর প্রফেসর ড. পি.এম. সফিকুল ইসলাম, ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর আব্দুর রউফ। ছাত্রকল্যাণ উপদেষ্টা হাসান ঈমাম সুইটের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার, প্রক্টর, বিভাগীয় প্রধান/চেয়ারম্যান, কো-অর্ডিনেটর, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।
শাহীন আকতার রেনী: মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস-২০২১ এবং স্বাধীনতার সূবর্ণ মহান স্বাধীনতা দিবসে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছেন ঐক্য ফাউন্ডেশনের সভাপতি, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও বিশিষ্ট সমাজসেবী শাহীন আকতার রেনী। শুক্রবার দুপুরে ঐক্য ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকেই এই শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করেন তিনি। শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রূহের মাগফিরাত কামনা করে এক মিনিট নীরবতা পালন করেন। পুষ্পস্তবক অর্পণকালে ঐক্য ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান অপু মাহফুজ ও পরিচালকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
রাকাব: রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক (রাকাব) এর ১০দিন ব্যাপি গৃহীত কর্মসূচির অংশ হিসাবে ১০ম দিন স্বাধীনতা দিবসে ব্যাংকের পক্ষ থেকে প্রধান কার্যালয় চত্বরে অবস্থিত বঙ্গবন্ধুর ম্যূরালে পুস্পার্ঘ্য অর্পণ করেন রাকাব পরিচালনা পর্ষদের সম্মানিত চেয়ারম্যান ও সরকারের সাবেক সিনিয়র সচিব রইছউল আলম মন্ডল।
এসময় উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ব্যাংকের সম্মানিত ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইসমাইল হোসেন। অনুষ্ঠানে বিভাগীয় মহাব্যবস্থাপক রাজশাহী কামিল বুরহান ফিরদৌস; বিভাগীয় মহব্যবস্থাপক রংপুর বাবর আলী, প্রধান কার্যালয়ের মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন) জয়নাল আবেদীন; মহাব্যবস্থাপক (নিরীক্ষা, হিসাব ও আদায়) মাকসুদা নাসরীন; মহাব্যবস্থাপক (পরিচালন) জয়নুল ইসলাম; সকল বিভাগের বিভাগীয় প্রধান বিভাগীয় নিরীক্ষা কর্মকর্তা, রাজশাহী; জোনাল নিরীক্ষা কর্মকর্তা, রাজশাহী; প্রকল্প পরিচালক, এসইসিপি, রাজশাহী; ব্যবস্থাপক, এলপিও, রাজশাহী; রাকাব কর্মচারী সংসদ (সিবিএ); বঙ্গবন্ধু পরিষদ, অফিসার্স এসোসিয়েশন এবং অফিসার্স ফোরামের নেতৃবৃন্দসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে বঙ্গবন্ধু অঙ্গণে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য প্রদান করেন রাকাব পরিচালনা পর্ষদের সম্মানিত চেয়ারম্যান রইছউল আলম মন্ডল। এছাড়াও বিকালে দিনটির স্মরণে জাতির পিতার ঐতিহাসিক নেতৃত্ব এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে দেশের উন্নয়ন বিষয়ে আলোচনা অনুষ্ঠান; শিশু কিশোরদের চিত্রাঙ্কণ, রচনা, ছড়া ও কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগীতার পুরস্কার বিতরণ; বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শ নিয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও গম্ভীরা গানসহ নানাবিধ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
আরইউজে: মহান স্বাধীনতা সুবর্ণজয়ন্তীর প্রথম প্রহরে রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের (আরইউজে) উদ্যোগে শহীদ মিনারে মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়। বৃহস্পতিবার রাত ১২টা ১ মিনিটে রাজশাহী ভূবনমোহন পার্ক শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়।
এসময় উপস্থিত ছিলেন আরইউজের সভাপতি রফিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক তানজিমুল হক, নির্বাহী সদস্য শরিফুল ইসলাম তোতা, বিএফইউজের নির্বাহী সদস্য জাবিদ অপু, আরইউজের সাবেক সভাপতি কাজী শাহেদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মামুন-অর-রশিদ, সদস্য আজিজুল ইসলাম, জিয়াউল গনি সেলিম, সাইফুর রহমান রকি, আজাহার উদ্দিন, সালাহ উদ্দিন, মাইনুল হাসান জনি, মেহেদী হাসান, আব্দুস সাত্তার ডলার, মামুন প্রমুখ।
পবা উপজেলা: রাজশাহীর পবায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস এবং স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপিত হয়েছে। শহীদ মিনারে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে উপজেলা প্রশাসন, পরিষদ, উপজেলা আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে এক মিনিট নীরবতা পালন করে সকল শহীদদের আত্মার শান্তি কামনায় দোয়া করা হয়।
এসব অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিমুল আকতার। প্রধান অতিথি ছিলেন পবা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইয়াছিল আলী। বিশেষ অতিথি ছিলেন পবা সহকারি কমিশনার ভূমি শেখ মো. এহেসান উদ্দীন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. রাবেয়া বসরী, উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী সঞ্জয় মোহন সরকার, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান আরজিয়া বেগম ও ওয়াজেদ আলী খান, নওহাটা পৌর মেয়র হাফিজুর রহমান হাফিজ, পবা থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মো. গোলাম মোস্তফা, এয়ারপোর্ট থানা অফিসার্স ইনচার্জ নূর-ঈ-আলম সিদ্দিক।
পবা দলিল লেখক সমিতি: এ দিবসে পবা উপজেলা দলিল লেখক সমিতির উদ্যোগে শহীদ মিনারে পুষ্পঅর্পণ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। পবা উপজেলা দলিল লেখক সমিতির সভাপতি এসএম আয়নাল হকের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন পবা সাব-রেজিস্ট্রার রওশন আরা। সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান তারেকের পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন সমিতির উপস্থিত ছিলেন সমিতির সহসভাপতি আবুল কালাম আজাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান সবুজ। উপস্থিত ছিলেন আইন বিষয়ক সম্পাদক মেহেদী হ্াসান, দপ্তর সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, সদস্য আনারুল ইসলাম আবু, শরিফুল ইসলাম, আলফাজ হোসেন, এজার আলীসহ সমিতির সকল সাধারণ সদস্যবৃন্দ।
লেখিকা সংঘ: বাংলাদেশ লেখিকা সংঘ, রাজশাহী শাখার উদ্যোগে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদ্যাপন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে শুক্রবার বিকেল ৫টায় এক অনলাইন আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি কবি ও কথাশিল্পী নারী উদ্যোক্তা অধ্যাপক রাশেদা খালেক। বাংলাদেশ লেখিকা সংঘ, রাজশাহী শাখা করোনাকালীন এ দূর্যোগময় পরিস্থিতিতে ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানের সভার আয়োজন করে।
সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ড. নূরে এলিস আকতার জাহান এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আলোচনা, স্বরোচিত কবিতা পাঠ ও কবিতা আবৃত্তি করেন কবি রেবেকা আসাদ, ড. শিরীন আখতার নীনা, ফেরদৌস নেক পারভীন, রোজালিনা সামআ, শিরীন শরীফ, ড. রুমী শাইলা শারমিন, প্রফেসর ড. পদ্মাবতী কুন্ডু, মমতাজ মহল বুলবুলি, নাসিমা জোয়াদ্দার, ফাহমিদা ফেরদৌসী, ড. কামরুন্নাহার, ড. নাসরীন লুবনা প্রমুখ।
সিসিবিভিও: দিবসটি উপলক্ষ্যে ৩৫টি রক্ষাগোলা গ্রাম সমাজ সংগঠনসমূহের জনগণসহ রাজাবাড়ীহাট উচ্চ বিদ্যালয় ও রাজাবাড়ী এলাকার অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও উন্নয়ন সংস্থার নারী-পুরুষ ও ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জনগণ র‌্যালিতে অংশগ্রহণ, শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ ও আলোচনা সভায় অংশগ্রহণ করেন।
সিসিবিভিওর রাজাবাড়ী শাখা অফিসে মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতীয় দিবস-২০২১ এর আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন নিমকুঁড়ি রক্ষাগোলা গ্রাম সমাজ সংগঠনের মোড়ল নিরঞ্জন কুজুর। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন “রক্ষাগোলা গ্রাম ভিত্তিক স্থিতিশীল খাদ্য নিরাপত্তা কর্মসূচীর” হিসাব রক্ষক এ এইচ এম তারিক এবং প্রশিক্ষণ সমন্বয়কারী নিরাবুল ইসলাম, পরিবীক্ষণ ও তথ্য প্রযুক্তি কর্মকর্তা শাহাবুদ্দিন সিহাব, নারীনউন্নয়ন কর্মকর্তা চন্দনা সরকার, সমাজ সংগঠন সুদক্ষণ টপ্প্য, মানিক এক্কা, কাথারিনা হাসদা, প্রেমচাঁদ এক্কা ও সিসিবিভিওর শিক্ষা উন্নয়ন কর্মকর্তা ইমরুল সাদাত।
মান্দা: মান্দায় দুইদিন ব্যাপি বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। পরিষদ মাঠে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ইউএনও আব্দুল হালিমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় টেলিকনফারেন্সে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন মুহা. ইমাজ উদ্দিন প্রামানিক এমপি। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুবা সিদ্দিকা রুমা, উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ইমরানুল হক। পরিষদ মাঠে মেলার আয়োজন করা হয়েছে। দমেলায় বিভিন্ন দপ্তরের ২৮টি স্টল অংশ নিয়েছে।
বাঘা: বাঘায় দিন ব্যাপি কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার ও বাঘা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বিভিন্ন কর্মসুচি পালিত হয়। বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা চেয়ারম্যান লায়েব উদ্দিন লাভলু। এ সময় ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার পাপিয়া সুলতানা ও বাঘা থানা ওসি তদন্ত আব্দুল বারি। শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পন ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। কর্মসূচিতে ছিলেন উপজেলা আ’লীগের সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল, যুগ্ম-সম্পাদক অধ্যক্ষ নছিম উদ্দিন।
রুয়েট: দিবসটি মর্যাদার সাথে পালন করা হয়েছে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে। ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. রফিকুল ইসলাম সেখ কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি ছিলেন। তিনি রুয়েট ক্যাম্পাসে বৃক্ষরোপন করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের অংশগ্রহণে হাড়ি ভাঙ্গা, গোলবার টার্গেট ও বল নিক্ষেপ খেলাধুলা প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন ভাইস-চ্যান্সেলর।
নওগাঁ: নওগাঁয় শহরের মুক্তির মোড়ে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভে পু®পস্তবক অর্পন করেন জেলা প্রশাসক হারুন অর রশিদ। পরে পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আব্দুল মান্নান মিয়া, জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট, পৌরসভা, নওগাঁ মেডিকেল কলেজ, সিভিল সার্জন, বিএমএ, স্বাচিপ, নওগাঁ সরকারী কলেজ, সড়ক ও জনপথ, এলজিইডি, গণপূর্ত বিভাগ, জেলা চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালকরা, জেলা প্রেসক্লাব, জেলা কারাগার, ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল পুষ্পস্তবক অর্পন করে।
নিয়ামতপুর: নিয়ামতপুরে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভে সংসদ সদস্য উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা আওয়ামী লীগ, বিএনপি, উপজেলা প্রেস ক্লাবসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন পুস্পস্তবক অর্পন করে। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ, সভাপতির বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার জয়া মারীয়া পেরেরা।
আদমদীঘি: সান্তাহারে স্বাধীনতা মঞ্চে পৌর বিএনপি পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। পরে পৌর যুবদল কার্যলয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পৌর বিএনপির আহবায়ক মজিবর রহমানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন যুগ্ম-আহবায়ক শেখ রফিকুল ইসলাম, সাবেক সভাপতি কামরুল হাসান, আহবায়ক সদস্য পৌর মেয়র তোফাজ্জল হোসেনে ভুট্টু, কাউন্সিলর মমতাজ আলী, নিজাম দেওয়ান, যুবদলের আহবায়ক কাউন্সিলর ওয়াহেদুল ইসলাম, মাহফুজুর রহমান লিটন।
এনবিআইইউ: বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে নর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি দিবস উদযাপন করেছে। র‌্যালি নিয়ে রাজশাহী কলেজের শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়। ইউনিভার্সিটির কনফারেন্স রুমে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সভায় ভার্চুয়ালে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ট্রাস্টিবোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক রাশেদা খালেক। উপাচার্য প্রফেসর ড. আবদুল খালেকের সভাপতি বক্তব্যে অংশ নেন উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মুহম্মদ আবদুল জলিল, ট্রেজারার প্রফেসর ড. মদন মোহন দে, চীফ-কো অর্ডিনেটর প্রফেসর ড. পি.এম. সফিকুল ইসলাম, ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর আব্দুর রউফ।
পোরশা: পোরশায় সরাইগাছি মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্মম্ভে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ শাহ্ মঞ্জুর মোরশেদ চৌধুরী ও ইউএনও নাজমুল হামিদ রেজা। এসময় ভাইস চেয়ারম্যান কাজিবুল ইসলাম, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাহফুজ আলম, থানা অফিসার ইনচার্জ শফিউল আজম খাঁনসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
গোমস্তাপুর: গোমস্তাপুরে দিবসটি উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন, রাজনৈতিক দল, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন কর্মসূচি পালন করে। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য জিয়াউর রহমান ও গোলাম মোস্তফা বিশ্বাস। উপজেলা চেয়ারম্যান হুমায়ুন রেজা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিজানুর রহমান, রহনপুর পৌর মেয়র মতিউর রহমান খান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহরিয়ার নজির, গোমস্তাপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাহিদুর রহমান। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন।
বাউয়েট: বাগাতিপাড়ার বাউয়েট ক্যাম্পাসে নানা আয়োজনে দিবস উদযাপন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোস্তফা কামাল এবং কোষাধ্যক্ষ কর্নেল (অব.) মোহাম্মাদ হামিদুল হক দিবসের কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। আলোচনা সভা ও স্বাধীনতার উপর নির্মিত প্রামাণ্য ভিডিও চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়।
লেখিকা সংঘ: লেখিকা সংঘ রাজশাহী শাখার স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করা হয়েছে। অনলাইন আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি কবি অধ্যাপক রাশেদা খালেক। নূরে এলিস আকতার জাহানের সঞ্চালনায় স্বরোচিত কবিতা আবৃত্তি করেন কবি রেবেকা আসাদ, শিরীন আখতার নীনা, ফেরদৌস নেক পারভীন, রোজালিনা সামআ, শিরীন শরীফ, রুমী শাইলা শারমিন।
জয়পুরহাট: জয়পুরহাটে দিবসটি উপলক্ষে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন জেলা প্রশাসক শরীফুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মাসুম আহাম্মেদ ভুঞা, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান রকেট, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান সোলায়মান আলী, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিল্টন চন্দ্র রায়, জেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, প্রেস ক্লাবসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায়।
মোহনপুর: মোহনপুরে শহিদদের স্মরণে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। উপজেলা পরিষদ চত্বরে স্মৃতিসৌধে উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম, ইউএনও সানওয়ার হোসেন, কৃষি কর্মকর্তা রহিমা খাতুন, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার আব্দুল মান্নান, সিনিয়র মৎস্য অফিসার আবুল কালাম আজাদ, যুব কর্মকর্তা রোকনুজ্জামান তালুকদার, ওসি তৌহিদুল ইসলাম, তদন্ত ওসি তৌহিদুর রহমান, প্রেসক্লাবের পক্ষে পুষ্পস্তবক অর্পন করা হয়।

মার্চ ২৮
০৬:২২ ২০২১

আরও খবর

Subcribe Youtube Channel

বিশেষ সংবাদ

চিকিৎসক-পুলিশের পাল্টা বিবৃতি, হাইকোর্টের ক্ষোভ

সানশাইনডক্সে: চলমান লকডাউনে রাস্তার ‘মুভমেন্ট পাস’ নিয়ে চিকিৎসক, ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশের বাগবিতণ্ডার ঘটনায় দুই পেশাজীবী সংগঠনের পাল্টাপাল্টি বিবৃতিতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন হাইকোর্ট। আদালত বলেছেন, ওই ঘটনায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পাল্টাপাল্টি বিবৃতি দেয়া সমীচীন হয়নি। তাদের এমন আচরণ অনাকাঙ্ক্ষিত। সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাছে এমন আচরণ কাম্য নয়। মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) হাইকোর্টের বিচারপতি এম.

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

টিকা কার্ড নিয়ে যাতায়াত করা যাবে

টিকা কার্ড নিয়ে যাতায়াত করা যাবে

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির অবনতির কারণে ১৪ এপ্রিল সকাল ৬টা থেকে ২১ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। তবে এ সময়ে টিকা কার্ড নিয়ে টিকা গ্রহণের জন্য যাতায়াত করা যাবে বলে জানানো হয়েছে। সোমবার (১২ এপ্রিল) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, অতি জরুরি প্রয়োজন

বিস্তারিত