Daily Sunshine

ইউসুফ আলী কলেজ অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

Share

গোমস্তাপুর প্রতিনিধি: চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর ইউসুফ আলী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট নানা অনিয়ম-দুর্নীতির লিখিত অভিযোগ করেছেন এক দাতা সদস্য। দাতা সদস্য ইয়াসিন আলীর করা লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে কলেজে যোগদানের পর থেকেই তিনি একের পর এক নিজেকে বিভিন্ন অনিয়ম-দুর্নীতিতে জড়িয়েছেন। সরকারী নিষেধজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও কলেজের মূল্যবান গাছ কর্তন, শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়, গোপনে কমমূল্যে আমবাগান বিক্রি, অর্নাস বিল্ডিং তৈরি ও দাতার জমি দখল করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণের নামে বিপুল পরিমান অর্থ আত্মাসাৎ করেছেন। যদিও সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত ওই অধ্যক্ষ।
জানা যায়, চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলার রহনপুর ইউসুফ আলী কলেজ সরকারিকরণ হয় ২০১৮ সালে। কিন্তু ২০১৬ সালের সরকারি নিষেধাজ্ঞা অনুযায়ী দৈনন্দিন খরচ ব্যতীত কলেজের উন্নয়নে কোন ধরনের প্রকল্প গ্রহণ ও ব্যয় নির্বাহ করতে পারবেন না অধ্যক্ষ। কিন্তু ২০১৫ সালে কলেজে যোগদানের পর থেকেই একের পর এক অনিয়ম-দুর্নীতিতে নিজেকে জড়িয়েছেন অধ্যক্ষ মনিরুল ইসলাম।
অনুসন্ধানেও মিলেছে সত্যতা। এলাকাবাসীর অভিযোগ, ক্ষমতার অপব্যবহার ও সরকারি বিধি লঙ্ঘণ করে হোস্টেল সংস্কার, কলেজ ক্যাম্পাসের প্রায় ৫০ টি গাছ কর্তন, পুকুর ও জমি লিজ দেওয়া এবং ফল বাগান বিক্রি করেছেন টেন্ডার ছাড়ায়। দিয়েছেন সরকারি ভ্যাট ও ট্যাক্স ফাঁকিও।
শুধু তাই নয়, অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ দাতাদের অতিরিক্ত ৯৯ শতাংশ জমি দখল করে নির্মাণ করেছেন সীমানা প্রাচীর। অনিয়ম-দুর্নীতি করেছেন অনার্স বিল্ডিং তৈরিতেও। দাতার প্রতিনিধি ও সাবেক জিবি (গর্ভনিং বডি) সদস্যদের অভিযোগ এসব অনিয়ম-দুর্নীতির বিষয়ে বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেও, মেলেনি কোন প্রতিকার। থামানো যায়নি অধ্যক্ষের অনিয়ম-দূর্নীতি। শিক্ষকদের এমপিওভুক্তকরণ ও শিক্ষক-কর্মচারিদের কল্যাণ তহবিল থেকেও লাখ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে।
এখানেই শেষ নয়; অধ্যক্ষের দুর্নীতির সবচেয়ে বড় শিকার কলেজের শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের অভিযোগ, ভর্তি ও পরীক্ষার ফরম পূরন, ইয়ারচেঞ্জসহ কলেজের উন্নয়নের নামে দীর্ঘদিন ধরেই অতিরিক্ত অর্থ আদায় করছেন অধ্যক্ষ। আর এসব অনিয়ম-দুর্নীতির বিষয়ে শিক্ষার্থীরা মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন এবং প্রশাসনকে স্মারকলিপি দিলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকেও নেওয়া হয়নি কোন ব্যবস্থা।
অভিযোগকারী দাতা সদস্য ইয়াসিন আলী জানান, গত বছরের ২ ডিসেম্বর অভিযোগ দাখিল করলেও ইউএনও প্রায় ২ মাস পর গত ১ ফেব্রুয়ারি তাকে তদন্ত কাজে শুনানীর জন্য তার কার্যালয়ে উপস্থিত হওয়ার জন্য নির্দেশ দেন। কিন্তু অসুস্থতার কারণে সে দিন শুনানীতে অংশ নিতে পারেননি। সবশেষ এ বিষয়ে গত ৮ মার্চ স্থগিত হওয়া শুনানী সম্পন্ন হয়।
তিনি অভিযোগ করেন ইউএনওকে অভিযোগ দেয়ার ২ মাস তিনি এ বিষয়ে রহস্যজনক নিরবতা পালন করেন। তিনি আরও অভিযোগ করেন ইউএনও শুনানীতে অধ্যক্ষের পক্ষ নেয়ার চেষ্টা করেছেন এবং তাকে বিভিন্ন ভাবে অভিযোগ থেকে নিবৃত্ত করার অপপ্রয়াস চালাচ্ছেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিজানুর রহমান জানান, অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে করা দাতা সদস্যের অভিযোগগুলো তদন্ত পর্যায়ে রয়েছে।
এদিকে কলেজের শিক্ষার স্বাভাবিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে অধ্যক্ষের অনিয়ম-দুর্নীতির সঠিক তদন্তের দাবি জানিয়েছে সংশ্লিষ্টরা।

মার্চ ১৪
০৫:১৪ ২০২১

আরও খবর

Subcribe Youtube Channel

বিশেষ সংবাদ

ঈদের আগে ৫০ লাখ পরিবার পাচ্ছে আর্থিক সহায়তা

সানশাইন ডক্সে; করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ওয়েভে ক্ষতিগ্রস্ত ৫০ লাখ গরিব পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার চিন্তা করছে সরকার। প্রত‌্যকে পরিবারকে ২৫০০ টাকা করে দেওয়া হবে। ঈদের আগে মোবাইলের মাধ্যমে সুবিধাভোগী পরিবারের হাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঈদ উপহার হিসেবে এ অর্থ পৌঁছে দেওয়া হবে বলে অর্থ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে। সূত্র জানায়, সম্প্রতি

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

টিকা কার্ড নিয়ে যাতায়াত করা যাবে

টিকা কার্ড নিয়ে যাতায়াত করা যাবে

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির অবনতির কারণে ১৪ এপ্রিল সকাল ৬টা থেকে ২১ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। তবে এ সময়ে টিকা কার্ড নিয়ে টিকা গ্রহণের জন্য যাতায়াত করা যাবে বলে জানানো হয়েছে। সোমবার (১২ এপ্রিল) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, অতি জরুরি প্রয়োজন

বিস্তারিত