Daily Sunshine

‘অধ্যাপক তারিক সাইফুল শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের জন্য আদর্শ’

Share

রাবি প্রতিনিধি : বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপদেষ্টা ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য এম সাইদুর রহমান খান বলেছেন, ‘অধ্যাপক তারিক সাইফুল একজন অমায়িক মানুষ ছিলেন। তিনি কখনও দেরিতে ক্লাসে যেতেন না। আবার নির্ধারিত সময়ের পূর্বে ক্লাস থেকে বেরিয়েও যেতেন না। তিনি রাজশাহী বিশবিদ্যালয়ের পাশাপাশি বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের জন্য একজন আদর্শ। অধ্যাপক ড. তারিক সাইফুল ইসলামকে হারিয়ে বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের যে ক্ষতি হয়েছে তা অপূরণীয়।’
বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. তারিক সাইফুল ইসলাম স্মরণে আয়োজিত শোকসভায় তিনি এসব কথা বলেন। বুধবার (১০ মার্চ) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজলাভবন প্রাঙ্গনে এই শোকসভার আয়োজন করা হয়।
সভায় অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নাসরিন ইসলামের সঞ্চালনায় সমাপনি বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মোখলেসুর রহমান বলেন, ‘অধ্যাপক তারিক সাইফুল আমার অত্যন্ত কাছের মানুষ ছিলেন। বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণার মান উন্নত করার ক্ষেত্রে তিনি আন্তরিকভাবে সক্রিয় ভূমিকা রেখেছেন, যা বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে। এসময় তিনি ড. তারিক সাইফুলের আত্মার মাগফিরাত কামনার পাশাপাশি শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।
শোকসভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্বাহী পরিচালক শামীম আহসান পারভেজ, রেজিস্ট্রার ড. মো. মহিউদ্দীন, অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আতাউল গনি ওসমানি, প্রভাষক নাজনিন সুলতানা, আইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক রাবিতা রেজওয়ানসহ বিভিন্ন বিভাগের প্রধান, কো-অর্ডিনেটর, শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।
এর আগে ড. তারিক সাইফুল অসুস্থতাজনিত কারণে গত ২ মার্চ রাত সাড়ে ১১ টায় নিজ বাসভবনে মৃত্যবরণ করেন। কর্মজীবনে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক, বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছাড়াও ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য ও কোষাধ্যক্ষ ছিলেন।

মার্চ ১১
০৬:২৮ ২০২১

আরও খবর

Subcribe Youtube Channel

বিশেষ সংবাদ

কী বন্ধ, কী খোলা জেনে নিন

কী বন্ধ, কী খোলা জেনে নিন

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে ১৪ এপ্রিল থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত দেশের সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকছে, বন্ধ থাকছে যানবাহনও। বিধি-নিষেধ থাকছে সার্বিক কার্যাবলী ও চলাচলেও। সোমবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। বন্ধ থাকছে: সকল সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি অফিস/আর্থিক প্রতিষ্ঠান। সকল প্রকার পরিবহন (সড়ক, নৌ, রেল, অভ্যন্তরীণ

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

টিকা কার্ড নিয়ে যাতায়াত করা যাবে

টিকা কার্ড নিয়ে যাতায়াত করা যাবে

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির অবনতির কারণে ১৪ এপ্রিল সকাল ৬টা থেকে ২১ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। তবে এ সময়ে টিকা কার্ড নিয়ে টিকা গ্রহণের জন্য যাতায়াত করা যাবে বলে জানানো হয়েছে। সোমবার (১২ এপ্রিল) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, অতি জরুরি প্রয়োজন

বিস্তারিত