Daily Sunshine

রাজশাহীতে বিনম্র শ্রদ্ধায় অমর একুশে পালন

Share

স্টাফ রিপোর্টার : ভাষা শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানানোর মধ্য দিয়ে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে। একুশের প্রথম প্রহর থেকে শহীদ মিনারগুলো শ্রদ্ধা ও ভালোবাসার ফুলে ফুলে ভরে উঠে। শহীদদের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করতে গিয়ে সর্বক্ষেত্রে বাংলা ভাষা প্রচলনের দাবি জানানো হয়েছে। এটি যেন সকলের প্রাণের দাবিতে পরিণত হয়েছে।
একুশের প্রথম প্রহরে ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ভাষা শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন, রাজশাহীর মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। ১২টা ০১ মিনিটে রাজশাহীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন সিটি মেয়র।
রাজশাহী কোর্ট শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার মো. হুমায়ুন কবীর, রাজশাহী জেলা প্রশাসক মো. আব্দুল জলিল, রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. আবু কালাম সিদ্দিক ও রাজশাহী পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন।
এছাড়া একুশের প্রথম প্রহরে রাজশাহীর বিভিন্ন শহীদ মিনারে সর্বশ্রেণির মানুষের ঢল নামে। ভোর পেরিয়ে সকাল হতেই নানান রঙ আর সুগন্ধী ফুলে ভরে ওঠে শহীদ বেদি। অমর একুশে স্মরণে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠন স্বাস্থ্যবিধি মেনেই প্রভাত ফেরি বের করে। তবে লোক সংখ্যা ছিল কম।
অমর একুশের কর্মসূচির মধ্যে রাত ১২টা ১মিনিটে শহিদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ, সূর্যদয়ের সঙ্গে সঙ্গে সকল সরকারি-বেসরকারি এবং আধা সরকারি স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়েছিল।
এদিকে, যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাব গাম্ভীর্যের সঙ্গে ২১ ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন উপলক্ষে এবার ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছিল জেলা প্রশাসন। সকাল থেকে মহানগরীর সড়ক দ্বীপসমূহ ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ স্থানসমূহে বাংলা বর্ণমালা সম্বলিত ফেস্টুন দ্বারা সজ্জিত করা হয়েছিল।
ভাষা শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে মসজিদে বাদ যোহর এবং অন্যান্য উপাসনালয়ে সুবিধামত সময়ে বিশেষ প্রার্থনা করা হয়। বিকেল ৩টায় শিল্পকলা একাডেমিতে ‘জাতীয় জীবনে একুশের চেতনা’ শীর্ষক আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়েছে। সন্ধ্যায় মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ভ্রাম্যমাণ চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হয়েছিল।
দিবসটি উপলক্ষে শহরজুড়ে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়েছিল। নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা হয়ে রয়েছে রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনার, ভুবন মোহন শহীদ মিনার ও কোর্ট শহীদ মিনার এলাকা।
রাসিক : ২১ ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে রাজশাহীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের নেতৃত্বে কাউন্সিলররা পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপর কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ এবং রাসিকের কর্মচারী ইউনিয়নের পক্ষ থেকে পৃথকভাবে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।
দিবসের কর্মসূচির মধ্যে আরো ছিল, সূর্যোদয়ের সাথে সাথে নগরভবনসহ ওয়ার্ড কার্যালয় ও সিটি করপোরেশন কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত স্থাপনাসমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতভাবে উত্তোলন করা হয়। মহানগরীর সড়ক দ্বীপসমূহ এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ স্থানসমূহে বাংলা বর্ণমালা সম্বলিত ফেস্টুন দ্বারা সজ্জিতকরণ, বাদ যোহর সোনাদীঘিস্থ রাজশাহী সিটি করপোরেশন জামে মসজিদ ও নগর ভবন ওয়াক্তিয়া মসজিদে জাতির শান্তি অগ্রগতি ও ভাষা শহীদদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাতের আয়োজন করা হয়। এছাড়া বিকেলে নগর ভবনে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
নগর আ’লীগ : রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে রাত সাড়ে ১১টায় কুমারপাড়াস্থ দলীয় কার্যালয় থেকে র‌্যালী নিয়ে একুশের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের নির্ধারিত স্থানে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে সেখানে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল, বীর মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী, বদরুজ্জামান খায়ের, যুগ্মসম্পাদক মোস্তাক হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. আসলাম সরকার, মীর ইসতিয়াক আহম্মেদ লিমন, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মীর তৌফিক আলী ভাদু, আইন সম্পাদক অ্যাড. মুসাব্বিরুল ইসলাম, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক ফিরোজ কবির সেন্টু, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক রবিউল আলম রবি, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মকিদুজ্জামান জুরাত, সাংস্কৃতিক সম্পাদক কামারউল্লাহ সরকার কামাল, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা সম্পাদক ডাঃ ফ ম আ জাহিদ, উপ-দপ্তর সম্পাদক পংকজ দে, উপ-প্রচার সম্পাদক সিদ্দিক আলম, সদস্য মুশফিকুর রহমান হাসনাত, আশরাফ উদ্দিন খান, সৈয়দ মন্তাজ আহমেদ, মজিবুর রহমান, আলিমুল হাসান সজল, মোখলেশুর রহমান কচি, মাসুদ আহম্মেদ, আশীষ তরু দে সরকার অর্পণ প্রমুখ।
সকাল ৯টায় নগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে কুমারপাড়াস্থ দলীয় কার্যালয় থেকে প্রভাত ফেরী বের হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী মহানগরের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, রেজাউল ইসলাম বাবুল, নাঈমুল হুদা রানা, বদরুজ্জামান খায়ের, দপ্তর সম্পাদক মাহাবুব-উল-আলম বুলবুল, মহিলা সম্পাদিকা ইয়াসমিন রেজা ফেন্সি, আইন সম্পাদক অ্যাড. মুসাব্বিরুল ইসলাম, শিল্প ও বানিজ্য সম্পাদক ওমর শরীফ রাজিব, শ্রম সম্পাদক আব্দুস সোহেল, সাংগঠনিক সম্পাদক মীর ইসতিয়াক আহম্মেদ লিমন, সদস্য অ্যাড. শামসুন্নাহার মুক্তি, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান, আতিকুর রহমান কালু, সৈয়দ হাফিজুর রহমান বাবু, আব্দুস সালাম, আলিমুল হাসান সজল, খায়রুল বাশার শাহীন, মোখলেশুর রহমান কচি, কে.এম জুয়েল জামান, আশীষ তরু দে সরকার অর্পণ, রাজপাড়া থানা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শেখ আনসারুল হক খিচ্চু, বোয়ালিয়া (পূর্ব) থানা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শ্যামল কুমার ঘোষ, বোয়ালিয়া (পশ্চিম) থানা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান রতন, মতিহার থানা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন প্রমুখ।
ন্যাপ রাজশাহী জেলা ও মহানগর : একুশের প্রথম প্রহরে রাজশাহী কেন্দ্রিয় শহীদ মিনারে ন্যাপ রাজশাহী জেলা ও মহানগরের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন কমিটির সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান খান আলম, সাইদুল ইসলাম, বাসেত প্রামাণিক, রানা, লিটন, তুষার, মামুন, নয়ন ও পলান সরকার প্রমুখ।
জেলা প্রশাসক : জেলা প্রশাসনের আয়োজনে রাজশাহীতে যথাযথ মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের সাথে শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০২১ পালন করা হয়েছে। প্রথম প্রহরে জেলা প্রশাসক, রাজশাহীর কার্যালয় চত্বরে অবস্থিত শহিদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে দিবসের সূচনা করা হয়। সুর্যোদয়ের সাথে সাথে সকল সরকারি, আধাসরকারি, বেসরকারি, স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানের ভবন ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতভাবে উত্তোলন করা হয়। মহানগরীর সড়ক দ্বীপসমূহ ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ স্থানসমূহে বাংলা বর্ণমালা সম্বলিত ফেস্টুন দ্বারা সজ্জ্বিত করা হয়েছে। বেলা ১১টায় শিশু একাডেমিতে শিশুদের চিত্রাঙ্কন, রচনা, আবৃত্তি ও দেশাত্মবোধক সংগীত প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। ভাষা শহিদদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে মসজিদে বাদ যোহর এবং অন্যান্য উপাসনালয়ে সুবিধামত সময়ে বিশেষ প্রার্থনা করা হয়। বিকাল ৩টায় শিল্পকলা একাডেমিতে শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০২১ উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়। সন্ধ্যায় মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ভ্রাম্যমান চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হয়।
জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিভাগীয় কমিশনার ড. মো. হুমায়ুন কবীর প্রধান অতিথি এবং রাজশাহী রেঞ্জে উপ-মহাপুলিশ পরিদর্শক মো. আব্দুল বাতেন, আরএমপি পুলিশ কমিশনার মো. আবু কালাম সিদ্দিক, পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন, বীর ভাষাসৈনিক মোশারফ হোসেন আকুঞ্জি বিশেষ হিসেবে বক্তৃতা করেন।
নিউ ডিগ্রী গভ. কলেজের ভাইস প্রিন্সিপ্যাল ওয়ালিউর রহমান মূখ্য আলোচক এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুর রহমান রাজা বক্তৃতা করেন। আলোচনা সভায় বক্তাগণ শহিদ দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে বিস্তারিত আলোচনা করেন। পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।
রাবি ও রুয়েট : যথাযোগ্য মর্যাদায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে। রোববার দিনব্যাপী নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিসবটি পালন করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।
এদিন রাত ১২টা ১ মিনিটে উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান ও উপ-উপাচার্যদ্বয় অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা, অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়াসহ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপাচার্য ভবন থেকে র‌্যালি করে এসে বিশ্ববিদ্যালয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করেন।
দিবসটি উপলক্ষে এদিন সূর্যোদয়ের সাথে সাথে প্রশাসন ভবনসহ অন্যান্য ভবনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতভাবে উত্তোলন করা হয়। সকাল ৭টা থেকে বিভিন্ন আবাসিক হল, বিভাগ ও ইনস্টিটিউট, রাবি শিক্ষক সমিতি ও রাবি মহিলা ক্লাবসহ বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান, রাবি স্কুল ও শেখ রাসেল মডেল স্কুল প্রভাতফেরীসহ শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। এরপর শহীদ স্মৃতি সংগ্রহশালাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।
দিবসের কর্মসূচিতে আরও ছিল, সকাল সাড়ে ৮টায় রাবি অফিসার সমিতি, সকাল সাড়ে ১০টায় সহায়ক কর্মচারী সমিতি, সাধারণ কর্মচারী ইউনিয়ন ও পরিবহন টেকনিক্যাল কর্মচারী সমিতির নিজ নিজ কার্যালয়ে আলোচনা সভা, একই সময়ে কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ায় বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, রাবি ইউনিট কমান্ডের আলোচনা সভা, বাদ জোহর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে দোয়া মাহফিল এবং সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় মন্দিরে বিশেষ প্রার্থনা।
এদিকে দিবসটি উপলক্ষে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট) একুশের প্রথম প্রহরে ১৯৫২ এর মহান ভাষা শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে রুয়েট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন রুয়েট।
এসময় রুয়েট উপাচার্য অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম সেখ ও ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. সেলিম হোসেনসহ প্রশাসনের অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। পরে শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে শহীদদের সম্মানে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয় এবং সম্মিলিতভাবে জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া হয়। এরপরই শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারী সমিতির নেতৃবৃন্দ এবং রুয়েট ছাত্রলীগ, বিভিন্ন হলের প্রভোস্ট, ইটিই বিভাগ, রুয়েটস্থ রাজশাহী শহর ছাত্র পরিষদসহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়।
এদিন ভোরে প্রশাসনিক ভবনসহ সকল ভবনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতভাবে উত্তোলন করা হয়। বাদ যোহর রুয়েট কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।
ওয়ার্কার্স পার্টি : শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে একুশের প্রথম প্রহরে প্রস্তাবিত রাজশাহী কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির নেতৃবৃন্দ।
মহানগরীর প্রাণকেন্দ্র সোনাদিঘি সংলগ্ন পুরাতন সার্ভে ইনস্টিটিউট প্রাঙ্গনে অস্থায়ী এই শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন তারা। প্রথমে পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশার পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।
এই পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ করেন পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য দেবাশিষ প্রামানিক দেবু, সাদরুল ইসলাম ও এন্তাজুল হক বাবু। এরপর মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। মহানগরের সাধারণ সম্পাদক দেবাশিষ প্রামানিক দেবুর নেতৃত্বে এই শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।
এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন নগর সম্পাদকমণ্ডলির সদস্য সাদরুল ইসলাম, এন্তাজুল হক বাবু, আবদুল মতিন, নাজমুল করিম অপু, নগর সদস্য সীতানাথ বণিক, অসিত পাল, আবদুল খালেক বকুল, শাহীনূর বেগম, সাঈদ চৌধুরী প্রমুখ।
পরে মহানগর যুবমৈত্রীর পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। মহানগর সাধারণ সম্পাদক আবদুল খালেক বকুল ও সহ-সভাপতি শামীম ইমতিয়াজের নেতৃত্বে এই শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করা হয়। মহানগর ছাত্রমৈত্রীর পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন সভাপতি ওহিদুর রহমান অহি ও সাংগঠনিক সম্পাদক বিজয় সরকারসহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা। নারী মুক্তি সংসদের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন নারীনেত্রী শাহীনূর বেগম, রুনা আক্তারসহ অন্যরা।
রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড : সকাল সাড়ে ৮টায় নিউ গভঃ ডিগ্রী কলেজ, রাজশাহী’র শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং পবিত্র কোরআন তেলওয়াত ও শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন এবং ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। সূর্য্যদেয়ের সাথে সাথে রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড ভবনে জাতীয় পতাকা ও কালো পতাকা উত্তোলন (অর্ধনমিত) করেন চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোহা: মোকবুল হোসেন।
জেলা পরিষদ : রাজশাহী জেলা পরিষদ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে। রোববার সকাল ৭টার নগরীর কোর্ট শহীদ মিনারে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন রাজশাহী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার।
শ্রদ্ধাঞ্জলী অপর্ণকালে কোর্ট শহীদ মিনারে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী জেলা পরিষদের সহকারী প্রকৌশলী মাসুদ-ই-মোহাম্মদ, জেলা পরিষদের সংরক্ষিত সদস্য-৫ জয়জয়ন্তি সরকার মালতি, ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড সার্ভে ইন্সটিটিউটের অধ্যক্ষ মাহমুদ হোসেন, জেলা পরিষদের উপ সহকারী প্রকৌশলী সুজাউল ইসলাম, সার্ভেয়ার আলিফ আলী সহ অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।
এরপরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মোহা. মোকবুল হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের সচিব ড. মোয়াজ্জেম হোসেন, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক আরিফুল ইসলাম, কলেজ পরিদর্শক প্রফেসর হাবিবুর রহমান, বিদ্যালয় পরিদর্শক প্রফেসর দেবাশীষ রঞ্জন রায়, উপ-পরিচালক (হিসাব ও নিরীক্ষা) বাদশা হোসেন, তথ্য ও গণসংযোগ কর্মকর্তা সুলতানা শামীমা আক্তার এবং কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মোহা. হুমায়ুন কবীর (লালু) ও সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলী।
নর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশাল ইউনিভার্সিটি : নর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশাল ইউনিভার্সিটিতে (এনবিআইইউ) যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়েছে। দিবসের শুরুতে রবিবার সকাল ৯টায় ইউনিভার্সিটির প্রশাসনিক ভবনে জাতীয় পতাকা ও কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়। এরপর সেখানে এক সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সভায় ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. আবদুল খালেক এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান নারী উদ্যোক্তা ও কথাসাহিত্যিক অধ্যাপক রাশেদা খালেক।
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মুহম্মদ আবদুল জলিল, ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর আব্দুর রউফ। ছাত্রকল্যাণ উপদেষ্টা হাসান ইমাম সুইট এর সঞ্চালনায় এসময় উপস্থিত ছিলেন ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার রিয়াজ মোহাম্মদ, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক, প্রক্টর সহ বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, কোঅর্ডিনেটর, শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ। পরে সকাল ১০টায় প্রভাতফেরী র‌্যালি সহ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শহীদ মিনারে মহান শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে পুষ্পমাল্য অর্পণ এবং শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।
বরেন্দ্র বিশ^বিদ্যালয় : সকাল সাড়ে ৯টায় বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজলা ভবন থেকে বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. মো. মহিউদ্দীনের নেতৃত্বে প্রভাতফেরি বের করে। যা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালনের মধ্যে দিয়ে শেষ হয়। কর্মসূচীর দ্বিতীয়পর্ব শুরু হয় শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তার অংশ গ্রহণে একুশভিত্তিক অনলাইন আলোচনা ও মনোজ্ঞ সঙ্গীত দিয়ে। বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর ড. তারিক সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনলাইন আলোচনায় প্রধান অতিথি হিসেবে যুক্ত ছিলেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপদেষ্টা প্রফেসর ড. এম. সাইদুর রহমান খান। বিশেষ অতিথি হিসেবে যুক্ত ছিলেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এম ওসমান গনি তালুকদার, ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর শহীদুর রহমান। যুক্ত ছিলেন রেজিস্ট্রার ড. মো. মহিউদ্দীন, কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. শহিদ উজ জামান, দিবস উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক ও ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আকরাম হোসেনসহ বিভিন্ন বিভাগের কো-অর্ডিনেটর, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, কর্মচারীবৃন্দ।
আরইউজে : শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে একুশের প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়ন (আরইউজে)। ২১ ফেব্রুয়ারি (রোববার) রাত ১২টা ১মিনিটে ঐতিহাসিক ভুবনমোহন পার্কে শ্রদ্ধা জানানো হয়।
আরইউজের সভাপতি রফিকুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক তানজিমুল হকের নেতৃত্বে শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় আরইউজের সিনিয়র সদস্য রাজশাহী প্রেসক্লাব সভাপতি সাইদুর রহমান, আরইউজের কার্যনির্বাহী সদস্য আনিসুজ্জামান, আরইউজের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মামুন-অর-রশিদ, সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান রকি, আরইউজের সদস্য জিয়াউল গণি সেলিম, সুব্রত দাস, ফটোসাংবাদিক আজাহার উদ্দিন, সালাহ উদ্দিন, সেলিম জাহাঙ্গীরসহ আরইউজের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
সিসিভিও : সিসিবিভিও-রাজশাহী পরিচালিত ও ব্রেড ফর দ্যা ওয়ার্ল্ড জার্মানী-এর সহায়তায় “রক্ষাগোলা গ্রাম ভিত্তিক স্থিতিশীল খাদ্য নিরাপত্তা কর্মসূচী”-এর আওতায় রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ী উপজেলার ৩৫টি রক্ষাগোলা গ্রাম সমাজ সংগঠনসমূহের উদ্যোগে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্তাজাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০২১ উদযাপিত হয়। দিবসটি উপলক্ষ্যে সকাল সাড়ে ৮টায় প্রভাত ফেরী, শ্রদ্ধাঞ্জলী অর্পণ ও সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেন রক্ষাগোলা গ্রাম সমাজ সংগঠনসমূহের ১৭৫ নেতাকর্মী, রাজাবাড়ীহাট উচ্চ বিদ্যালয় ও রাজাবাড়ী এলাকার অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও উন্নয়ন সংস্থার প্রায় হাজারের অধিক শিক্ষার্থী, শিক্ষক, মুক্তিযোদ্ধা, নারী-পুরুষ ও ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জনগণ।
রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি রাজশাহী জেলা ইউনিট : বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি রাজশাহী জেলা ইউনিটের পক্ষ থেকে রাজশাহী নগরীর কোর্ট শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অপর্ণ করে রাজশাহী জেলা ইউনিট চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার ও জেলা ইউনিট সেক্রেটারী শফিকুল ইসলাম শফিক। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা ইউনিটের কার্য্যনির্বাহী কমিটি সদস্য ও ইঞ্জিয়ারিং এন্ড সার্ভে ইন্সটিটিউটের অধ্যক্ষ মাহমুদ ও সামাউন ইসলাম, জেলা পরিষদের সংরক্ষিত সদস্য-৫ জয়জয়ন্তি সরকার মালতি সহ বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট রাজশাহী জেলা ইউনিটের সদস্যবৃন্দ।
পবা উপজেলা: পবায় শহীদ দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন পবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিমুল আকতার, সহকারি কমিশনার ভূমি শেখ এহেসান উদ্দীন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রাবেয়া বশরী, পবা উপজেলা সাব রেজিষ্ট্রার রওশান আরা বেগম, উপজেলা পরিষদ ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আরজিয়া বেগম, ভাইস চেয়ারম্যান ওয়াজেদ আলী খান, নওহাটা পৌর নবনির্বাচিত মেয়র হাফিজুর রহমান, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা সঈদ আলী রেজা, কাশিয়াডাঙ্গা ওসি এসএম মাসুদ পারভেজ, পবা ওসি শেখ গোলাম মোস্তফা।
বাংলাদেশ ব্রাহ্মণ পুরোহিত ঐক্য পরিষদ: একুশের বিভিন্ন কর্মসুচিতে উপস্থিত ছিলেন পরিষদের সভাপতি পণ্ডিত আশুতোষ ব্যানার্জী, সাধারণ সম্পাদক পুরোহিত তাপস চক্রবর্ত্তী, সিনিয়র সহকারী শিক্ষক, রিভার ভিউ কালেক্টরেট স্কুল, রাজশাহী, সাংগঠনিক সম্পাদক পুরোহিত পার্থ মূখার্জী, সহ: শিক্ষক নিহার রঞ্জন কুমার রায় , গৌতম কুমার চক্রবর্ত্তী, দুলর্ভ চক্রবর্ত্তী, সুমন চক্রবর্ত্তীসহ স্বনামধন্য পুরোহিতবৃন্দ।
রিভার ভিউ কালেক্টরেট স্কুল: ভাষা শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনে উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানের প্রধন শিক্ষক মনোয়ারা পারভীন, সিনিয়র সহকারী শিক্ষক তাপস চক্রবর্ত্তী, নাসিম বেগম, শরিফুল ইসলাম, মাহফুজ রেজা, মো: আলী আশরাফ, রনি, আদি সুলতান, সালাউদ্দিন প্রমুখ। পরে প্রধান শিক্ষকের সভাপতিত্বে সকল শিক্ষকগণকে নিয়ে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
জেলা আওয়ামী লীগ : নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে জাতীয় শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করেছে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ। রোববার সকাল ১০টায় জেলা আ’লীগ সভাপতি ও সাবেক এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মেরাজ উদ্দিন মোল্লাহ এবং সাধারন সম্পাদক ও সাবেক এমপি মো. আব্দুল ওয়াদুদ দারার নেতৃত্বে জাতীয় ও দলীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ এবং কালো পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে কর্মসূচি শুরু হয়।
এরপর সংগঠনের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মী-সমর্থক সহযোগে রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনারে বীর শহিদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করা হয়।
মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা ও মহানগর কমান্ড : দিবসটি উপলক্ষে রোববার বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ রাজশাহী জেলা ও মহানগর কমান্ড যৌথভাবে পতাকা উত্তোলন, জাতীয় ও দলীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ, কালো ব্যাজ ধারন, র‌্যালি, ৪ নেতার প্রতিকৃতিতে মাল্যদান, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এসময় জেলা সাবেক ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার শাহাদুল হক, ডেপুটি কমান্ডার কে.এম.এম. ইয়াছিন মোল্লা, সহকারী কমান্ডার আ. সাত্তার, মহানগর ইউনিটের সাবেক কমান্ডার ডা. আ. মান্নান, ডেপুটি কমান্ডারদ্বয় মোহাম্মদ আলী কামাল ও রবিউল ইসলাম, সহকারী কমান্ডার নাজিম উদ্দীন, মিজানুর রহমান, আব্দুল মোমিন কাজল, আবুল বাশার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা লীগ : দিবসটি উপলক্ষে রোববার বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা লীগ রাজশাহী জেলা ও মহানগর শাখা যৌথভাবে কালো পতাকা উত্তোলন, জাতীয় ও দলীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ, কালো ব্যাজ ধারন, র‌্যালি, ৪ নেতার প্রতিকৃতিতে মাল্যদান, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এসময় জেলা কমিটির সভাপতি যুদ্ধকালীন কমান্ডার এ্যাড: আব্দুস সামাদ, মহানগর সেক্রেটারী আহম্মদ আলীর নেতৃত্বে বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
মুক্তিসংগ্রাম পরিষদ মুক্তিযুদ্ধ ‘৭১ : দিবসটি উপলক্ষে আওয়ামী লীগ, শিক্ষক সমিতি, বণিক সমিতি ও স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা সংসদ রোববার যৌথভাবে কালো পতাকা উত্তোলন, জাতীয় ও দলীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ, কালো ব্যাজ ধারন, র‌্যালি, ৪ নেতার প্রতিকৃতিতে মাল্যদান, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।
এসময় কানপাড়া আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি অধ্যক্ষ আনিছুর রহমান, সেক্রেটারী তছের মাষ্টার, অফিস সেক্রেটারী ডা: ইয়াদ আলী, নওহাটা পৌর কমান্ডার শফিকুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা মতিউর রহমান, বণিক সমিতির মুনছুর রহমান, শিক্ষক সমিতির অধ্যাপক মামুনুর রশিদ ও মাসুদ রানা, আওয়ামী লীগ নেতা মৌলভী আমজাদ হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
রাজশাহী কলেজ : রোববার রাত ১২ টা ১ মিনিটে শহিদ মিনারে ভাষা-শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়। এরপর ভোর থেকে কালো ব্যাজ ধারণ, কালো পতাকা উত্তোলন, জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ, প্রভাত ফেরি, পুষ্পস্তবক অর্পণ, রক্তের গ্রুপ নির্ণয়, আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ, দোয়া মাহফিল, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
সকাল ৮ টায় কলেজের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে একুশের প্রভাত ফেরি বের করা হয়। অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর মোহা. আব্দুল খালেক-এর নেতৃতে প্রভাত ফেরি শেষে শহীদ মিনার ও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এরপর রক্তের গ্রুপ নির্ণয়, আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ, দোয়া মাহফিল, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিবসের কর্মসূচি শেষ হয়।
এসময় সদ্য বিদায়ী অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমানসহ বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।
নিউ গভঃ ডিগ্রী কলেজ : সোমবার রাত ১২ টা ১ মিনিটে শহীদদের স্মরণে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়। এরপর দিনব্যাপী আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।
ইতিহাস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. শাহাদত হোসেন সরকারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মোসা. আবেদা সুলতানা। এছাড়াও উপাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মো. অলীউল আলম, মুজিব শতবর্ষ উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক ড. বিপ্লব কুমার মজুমদার, শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক মো. তানভিরুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
সরকারি মহিলা কলেজ : রাজশাহী সরকারি মহিলা কলেজে রোববার সকাল ৯ টায় কলেজের শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে কর্মসূচি শুরু হয়। এরপর আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল, প্রামান্য চিত্র প্রদর্শন, পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. জুবাইদা আয়েশা সিদ্দীকার সভাপতিত্বে শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক মো. তোফাজ্জল হোসেন মোল্লা, ইতিহাস বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর রায়হানা আখতার জাহানসহ বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।
শাহ মখদুম মেডিকেল কলেজ : দিবসটি উপলক্ষে রোববার সকাল ৯ টায় শাহ মখদুম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, শাহ মখদুম নার্সিং কলেজ ও শাহ মখদুম নার্সিং ইনস্টিটিউটের যৌথ অংশগ্রহণে র‌্যালি ও শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পরবর্তীতে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের মাধ্যমে দিনের কর্মসূচি শেষ হয়।
এসময় প্রধান অতিথি কলেজের পরিচালক মো. কবির হোসেন, বিশেষ অতিথি সহকারী পরিচালক ডা: মো. মোজাম্মেল হকসহ বিভিন্ন পর্যায়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।
কামারুজ্জামান ডিগ্রি কলেজ : দিবসটি উপলক্ষে রোববার সকাল ৯টায় কলেজের অস্থায়ী শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এরপর সকাল ১০টায় অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. আব্দুল খালেক সরকারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক মো. আমিনুল ইসলাম, মো. আব্দুল খালেক শান্ত, মোহাম্মদ আতিকুজ্জামান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
মেট্রোপলিটন কলেজ : সোমবার সকাল ৮টায় শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়। এরপর অধ্যক্ষ মো. সাইফুর রহমানের সভাপতিত্বে সকাল ১০টায় ভার্চুয়ালি কবিতা আবৃত্তি করা হয়। প্রভাষক বিধান চন্দ্র সরকারের সঞ্চালনায় মৌসুমী, শাহিনা আক্তার নিলু ও আতিকা ইয়াসমীন কবিতা আবৃত্তি করেন।
কলেজিয়েট স্কুল : সোমবার সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখার মাধ্যমে দিবসের কার্যক্রম শুরু হয়। এরপর সকাল সাড়ে ৮টায় শিক্ষক-শিক্ষিকা, কর্মচারী ও স্কাউটদল সমন্বয়ে প্রধান শিক্ষক ড. মোসা. নূরজাহান বেগমের নেতৃত্বে প্রভাত ফেরির মাধ্যমে বিদ্যালয়ের শহিদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এছাড়াও চিত্রাঙ্কন, রচনা প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ ও দোয়া মোনাজাতের আয়োজন করা হয়।

ফেব্রুয়ারি ২৩
০৬:৩৬ ২০২১

আরও খবর

Subcribe Youtube Channel

বিশেষ সংবাদ

হেফাজত নেতা মামুনুল হক গ্রেফতার

হেফাজত নেতা মামুনুল হক গ্রেফতার

  সানশাইন ডেস্ক: হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেফতার করেছে। রোববার (১৮ এপ্রিল) তাকে গ্রেফতার করা হয়। ডিবির যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম জানান, হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া মাদ্রাসা থেকে দুপুর ১টার দিকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

টিকা কার্ড নিয়ে যাতায়াত করা যাবে

টিকা কার্ড নিয়ে যাতায়াত করা যাবে

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির অবনতির কারণে ১৪ এপ্রিল সকাল ৬টা থেকে ২১ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। তবে এ সময়ে টিকা কার্ড নিয়ে টিকা গ্রহণের জন্য যাতায়াত করা যাবে বলে জানানো হয়েছে। সোমবার (১২ এপ্রিল) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, অতি জরুরি প্রয়োজন

বিস্তারিত