Daily Sunshine

চারঘাটে ভোটের মাঠ একরামুলের

Share

মিজানুর রহমান, চারঘাট: ভোটের মাঠে নেমেই তিনি সাধারণ মানুষের নজর কেড়েছেন। মিশে যাচ্ছেন খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষের কাতারে। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত নির্বাচনী পথসভা, উঠান বৈঠক থেকে শুরু করে জনসভা করছেন। সঙ্গে থাকছেন আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ থেকে শুরু করে হাজার হাজার নেতাকর্মী ও সমর্থক। সালাম বিনিময় ছাড়াও বুকে জড়িয়ে নিচ্ছেন খেটে খাওয়া শ্রমিকদের।
নির্বাচনের আগেই এভাবেই তিনি সাধারণ মানুষের মনে শক্ত অবস্থান সৃষ্টি করে ফেলেছেন বলে অভিমত পৌরবাসীর। ভোটের মাঠে নজর কাড়া এ ব্যক্তিটি হলেন চারঘাট পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক ছাত্রনেতা আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী একরামুল হক।
চারঘাট পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ড ঘুরে ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ২০১৫ সালে অনুষ্ঠিত পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে মাঠঘাট সমান তালে চষে বেড়িয়েছিছেন সাবেক ছাত্রনেতা একরামুল হক। ব্যাপক শোডাউন এবং ধারাবাহিক গনসংযোগে অল্প সময়ের ব্যবধানে তিনি পৌরবাসীর মাঝে সাড়া জাগিয়েছিলেন।
কিন্তু সেই নির্বাচনে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন চেয়ে না পেলেও গণসংযোগ থেকে সরে দাড়াননি তিনি। দীর্ঘদিন ধরে পৌরবাসীর সুখে দুখে নিজেকে বিলিয়ে রেখে হয়েছেন জনত্রা জননেতা একরামুল হক। এরই মধ্যে আসে ২০২১ সালের পৌর নির্বাচনের তফসিল।
তফসিল ঘোষণার পর তৃণমুল থেকে জনপ্রিয় নেতা হিসেবে এবং বিএনপির বর্তমান মেয়রের কাছ থেকে পৌরসভাটি উদ্ধার করতে একরামুল হকের জুড়ি নেই এমনই তথ্য যায় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে। তারই প্রেক্ষিতে যাচাই-বাছাই শেষে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ড চূড়ান্ত ভাবে চারঘাট পৌর নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেয় একরামুল হককে।
দলীয় মনোনয়ন পেয়ে চারঘাটে এলে সবধরণের বিভেদ ভুলে আওয়ামী লীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে নৌকার মাঝি হিসেবে একরামুল হককে ফুলে ফুলে বরণ করে শুরু হয় বিজয় মিছিল। যে মিছিলে নেতৃত্বে দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের ফকরুল ইসলাম।
একরামুল হককে বিজয়ী করতে মাঠে নামেন উপজেলা আওয়ামী লীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা। নির্বাচন কমিশনের তফসিল অনুযায়ী ১১ ফেব্রুয়ারি প্রতীক বরাদ্দের পরে পৌর নির্বাচনে গণসংযোগে নামেন ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগ। প্রতিদিন কাকডাকা ভোর থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত পৌর এলাকার বিভিন্ন ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে চলে উঠান বৈঠক থেকে পথসভা এবং প্রচার মিছিল।
মাঠে ঘাটে সবখানেই নেমে খেটে খাওয়া শ্রমিক মেহনতি মানুষকে বুকে জড়িয়ে চাইছেন নৌকার ভোট। এতে করে এখন পৌর এলাকার চায়ের স্টল থেকে শুরু করে হাট বাজারে একটি নামই মানুষের মুখে মুখে ভাসছে তিনি হলেন একরামুল হক।
প্রচার-প্রচারণার সময় একরামুল হকসহ নেতাকর্মীরা ভোটারদের মনে করিয়ে দিচ্ছেন নৌকা হচ্ছে উন্নয়নের প্রতীক। স্বাধীনতার প্রতীকও এ নৌকা। নৌকা মার্কায় ভোট দিলে মানুষ শান্তিতে থাকতে পারে। মানুষের জীবনের নিরাপত্তা দিতে পারে এ নৌকা।
একরামুল হকের পক্ষে নৌকা প্রতীকে ভোট চাইতে গিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক উপজেলা চেয়ারম্যান ফকরুল ইসলাম চারঘাট পৌর এলাকাসহ উপজেলা জুড়ে আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে বলেন, চারঘাটে যে উন্নয়ন হয়েছে তা ইতিহাস সৃষ্টি করেছে। এ উন্নয়নের তালিকা অনেক দীর্ঘ।
এর আগে যারা মন্ত্রী এমপি ছিলেন, তারা জনসাধারণের কোনো উন্নতি করতে পারেনি। বিগত দিনে চারঘাটে তেমন কোনো উন্নয়ন হয়নি। শুধু উপজেলা সদর নয়, গ্রাম এমনকি দুর্গম চরাঞ্চলেও উন্নয়নের পরশ পৌছে গেছে। আর এটা সম্ভব হয়েছে চারঘাট-বাঘার মাটি ও মানুষের নেতা, খেটে খাওয়া শ্রমিকের বন্ধু, আপনাদের সকলেরই প্রাণের স্পন্দন চারঘাট-বাঘার সাংসদ পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের কারণে।
চারঘাটে একসময় বিদ্যুতের জন্য হাহাকার লেগেছিল। আজ শাহরিয়ার আলম এমপি আপনাদের ঘরে ঘরে বিদ্যুতের আলো পৌছে দিয়েছে। বিদ্যুতের জন্য আর মানুষকে পল্লী বিদ্যুত অফিসে দৌড়াতে হয় না। চারঘাট-বাঘার এমপি আওয়ামী লীগের। উপজেলা চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের। পৌরসভার মেয়রও যদি হয় আওয়ামী লীগের তাহলে চারঘাটে উন্নয়নে ইন্নয়নে ভরিয়ে দেয়া হবে উল্লেখ করে ফকরুল ইসলাম আরো বলেন, আপনাদের কাছে অনুরোধ করছি উন্নয়নের কথা চিন্তা এবং উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি কাঁধে কাঁধ মিলে নৌকার গণজোয়ার সৃষ্টি করে নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত করতে হবে।

ফেব্রুয়ারি ১৮
০৮:২২ ২০২১

আরও খবর

বিশেষ সংবাদ

প্রাণ ফিরে পাচ্ছে রাবির টুকিটাকি চত্বর

প্রাণ ফিরে পাচ্ছে রাবির টুকিটাকি চত্বর

স্টাফ রিপোর্টার ,রাবি: টুকিটাকি চত্বর। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের চিরপরিচিত একটি চত্বর। প্রায় ৩৫ বছর আগে বিশ্ববিদ্যালয়টির লাইব্রেরি চত্বরে ‘টুকিটাকি’ নামের ছোট্ট একটি দোকান চালু হয়। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মুখে মুখে টুকিটাকি নামটি ছড়িয়ে পড়ে। দোকানটি ভীষণ জনপ্রিয়তা পায়। ফলে সবার অজান্তেই একসময় লাইব্রেরি চত্বরটির নাম হয়ে যায়

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

৪১তম বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষা ১৯ মার্চ

৪১তম বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষা ১৯ মার্চ

সানশাইন ডেস্ক : ৪১তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা নির্ধারিত সময়ে নেয়ার পক্ষে মত দিয়েছে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন। এই পরীক্ষা ১৯ মার্চ নেয়ার দিন ধার্য করেছে পিএসসি। বুধবার বিকেলে পিএসসিতে এক অনির্ধারিত সভায় যথাসময়ে এই পরীক্ষা নেয়ার মত দেয়া হয়। পরীক্ষা পেছানোর বিষয়ে এ অনির্ধারিত সভায় কোনো আলোচনা হয়নি। ২০১৯ সালের

বিস্তারিত