Daily Sunshine

পদ্মার পাড়ে বাদাম বেচেই চলে তাদের সংসার

Share
Spread the love

আসাদুজ্জামান নূর : ভোটার আইডি কার্ডে বয়স ৬৫ লেখা থাকলেও অনেক আগেই ৭০ পেরিয়েছেন ইউনুস আলী। রাজশাহীর পদ্মাপাড়ে গেলেই তার দেখা মেলে। ওডভার মুনস্কগার্ড পার্কে ঢুকতেই হাতের ডানে মাটিতে বসে থাকেন। একটি বাশের ঝাঁকাতে বাদাম রেখে বিক্রি করেন।
পদ্মাপাড়ে ঘুরতে আসা হাজারো মানুষের পানে জিজ্ঞাসু দৃষ্টিতে চেয়ে থাকেন ইউনুস আলী। তার চোখ যেন বলতে চায়, ‘নেবে নাকি একটু বাদাম?’। তার অব্যক্ত আহ্বানে বা প্রয়োজনেই কেউ কেউ কেনেন বাদাম। সেই বাদাম বিক্রির টাকাতেই চলে বৃদ্ধ ইউনুস আলী ও স্ত্রী মাজেদা বেগমের (৬০) সংসার।
ইউনুস আলীর বাড়ি নাটোরের লালপুর উপজেলার গৌরীপুর ইউনিয়নের লক্ষিপুর গ্রামে। তিন বছর হলো সেখান থেকে চলে এসেছেন। স্ত্রী মাজেদাকে নিয়ে থাকছেন রাজশাহীর বড়কুঠি এলাকায়।
একসময় বেশ সুখেই ছিলেন ইউনুস আলী। জমিজমা, হালের গরু ও গুড়ের ব্যবসা ছিল তার। এগুলোর সবই খুঁইয়েছেন ব্যবসার লোকসানে। এরপর নানাভাবে টেনেছেন জীবনের চাকা। ২ ছেলে ও ২ মেয়েকে মানুষ করেছেন। বিয়ে করে তারা এখন সংসার করছেন। তারা ভালোই আছেন। কিন্তু কেউই বাবা-মাকে দেখেন না। তাই নিজের মত করে বাঁচতে জন্মভূমি গ্রাম ছেড়েছেন ইউনুস আলী।
বার্ধক্যে শরীরের শক্তি হারিয়ে গেছে। ঘুরে ঘুরে বাদাম বিক্রির সামর্থ্য নেই। তাই বড়কুটি সংলগ্ন পদ্মা গার্ডেনের ভেতরে বসে থেকেই বাদাম বিক্রি করেন ইউনুস আলী। তিনি জানান, প্রতিদিন সকাল থেকে সন্ধা পর্যন্ত বসে থেকে বাদাম বিক্রি করেন। এতে আয় হয় ৩০০ থেকে ৪০০ টাকা। দিব্যি চলে যায় তাদের সংসার।
তিনি বলেন, ‘২ বছর হইলো এই ব্যবসা করতেছি। আমার জমি হারাইয়া গেছে ব্যবসা করতে গিয়া। বাধ্য হইয়া সংসারের হাল ধরতে হইচে এই কাজ করে। সেই থেকে এই ব্যবসাতেই আচি। এখানে আসার পর আয়-রোজগার মোটামুটি হইচ্চে, তাই আর ছেড়ে যাইনি। এখন আমার চাহিদা কম, তাই সুকেই আচি।’
ইউনুস আলী জানান, প্রতি ১০০ গ্রাম বাদাম ২০ টাকায় বিক্রি করেন। করোনার কারণে বাদাম মানুষের আগের মতো বাদাম খায় না। বিক্রি হয় না বললেই চলে। তিনি বলেন, ‘করোনা ভাইরাসের সময় ভাতের পেছনে দৌড়াইতেছে মানুষ, বাদামের দিকে কেউ ফিরেও তাকায় না। তাই অনেক কষ্টে আচি। কারণ আমরা বাদাম বিক্রি কইরা ভাত খাই। আমাদের মতো অনেক হকারও কষ্টে আচে, তাগোও এমন অবস্থা!’
তিনি বলেন, ‘বিক্রি নাই। এখন দিনে দু-তিন’শ টাকার বাদাম বিক্রি করতেই অনেক কষ্ট হয়। আর করানোর আগে ১ হাজার থেকে ১৫’শ টাকার মত বিক্রি করতাম।’
তিনি জানান, সরকারি অনুদান বা বয়স্কভাতার কোনোটাই পাননা তিনি। বয়স্কভাতার কার্ড দেয়ার নামে তার কাছে তিন হাজার টাকা নিয়েছেন চেয়ারম্যান-মেম্বার। তারপরও কিছু করে দেননি। বয়স কমের দোহাই দিয়ে বঞ্চিত করেছেন বলে অভিযোগ করেন ইউনুস আলী।
ইউনুস আলী জানান, নিয়মিত বাদাম বিক্রি হলে এবং কোন ধরণের ঋণ না থাকলে এভাবেই দিন কাটানো সম্ভব। আর কাজকে ছোট না ভেবে আপন করে নিলে ভালো উপার্জনও করা যায়।

ফেব্রুয়ারি ০১
০৫:৪৭ ২০২১

আরও খবর

বিশেষ সংবাদ

প্রাণ ফিরে পাচ্ছে রাবির টুকিটাকি চত্বর

প্রাণ ফিরে পাচ্ছে রাবির টুকিটাকি চত্বর
Spread the love

Spread the loveস্টাফ রিপোর্টার ,রাবি: টুকিটাকি চত্বর। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের চিরপরিচিত একটি চত্বর। প্রায় ৩৫ বছর আগে বিশ্ববিদ্যালয়টির লাইব্রেরি চত্বরে ‘টুকিটাকি’ নামের ছোট্ট একটি দোকান চালু হয়। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মুখে মুখে টুকিটাকি নামটি ছড়িয়ে পড়ে। দোকানটি ভীষণ জনপ্রিয়তা পায়। ফলে সবার অজান্তেই একসময় লাইব্রেরি চত্বরটির নাম

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

৪১তম বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষা ১৯ মার্চ

৪১তম বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষা ১৯ মার্চ
Spread the love

Spread the loveসানশাইন ডেস্ক : ৪১তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা নির্ধারিত সময়ে নেয়ার পক্ষে মত দিয়েছে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন। এই পরীক্ষা ১৯ মার্চ নেয়ার দিন ধার্য করেছে পিএসসি। বুধবার বিকেলে পিএসসিতে এক অনির্ধারিত সভায় যথাসময়ে এই পরীক্ষা নেয়ার মত দেয়া হয়। পরীক্ষা পেছানোর বিষয়ে এ অনির্ধারিত সভায় কোনো আলোচনা হয়নি।

বিস্তারিত