Daily Sunshine

আক্কেলপুরে থামছেই না মাটি খেকোরা

Share

আক্কেলপুর প্রতিনিধি: জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে অবাধে ফসলী উর্বরা জমির উপরের মাটি কেটে অবাধে পুকুর খনন চলছে। এতে পরিবর্তিত হচ্ছে জমির শ্রেণি। জমির মালিকরা সামান্য টাকার বিনিময়ে মাটি ব্যবসায়ীদের খপ্পরে পড়ে এসব ফসলী জমিতে খনন করছেন পুকুর। মাটি খনন বন্ধে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর অভিযোগ দিয়েছেন স্থানীয়রা।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার রায়কালী ইউপির কালাঞ্জ গ্রামে এস্কেভেটর মেশিন স্থাপন করে ৮ থেকে ১০ ফিট গভীর করে একটি পরিত্যক্ত ডোবা সংস্কারের নামে পার্শ্ববর্তী প্রায় ২ বিঘা উর্বরা ফসলী জমিতে পুকুর খনন করছেন ওই গ্রামের জহির উদ্দিনের ছেলে বেলাল হোসেন। তিনি নগদ অর্থের বিনিময়ে বিক্রয় করছেন এসব উর্ববরা ফসলী জমির মাটি।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত ৩০ ডিসেম্বর থেকে অদ্যাবধি ওই এলাকায় চলছে পুকুর খনন। এতে ফসলী জমির শ্রেণি পরিবর্তন হচ্ছে এবং পার্শ্ববর্তী নতুন কার্পেটিং করা গ্রামীণ রাস্তা নষ্ট হচ্ছে। মাটিগুলো বহন করায় রাস্তায় মাটির অংশ পড়ে শীতের রাতে ঘনকুয়াশায় পিচ্ছিল হয়ে ঘটছে দুর্ঘটনা। এসব বিষয় উল্লেখ করে গত ৬ জানুয়ারি উপজেলা নির্বাহী বরাবর একটি অভিযোগ দাখিল করেছেন স্থানীয়রা।
এতে একদিকে যেমন জমির শ্রেণি পরিবর্তন হচ্ছে, অন্যদিকে আশঙ্কাজনক হারে কমছে কৃষি জমি। প্রতিবছর বিশেষ করে এসময়ে এক শ্রেণির অসাধু মাটি ব্যবসায়ীরা সহজ সরল কৃষদের টাকার লোভ দেখিয়ে ফসলি জমির উপরের স্তরের (টপ সোয়েল) উর্বর মাটি কেটে ইট ভাটা, বাড়ি তৈরি জায়গা ভরাটসহ বিভিন্ন কাজে তারা এ মাটি বিক্রি করছে।
স্থানীয় কৃষক ওসমান বলেন, ‘আমার জমির পাশেই গভীরভাবে পুকুর খননের ফলে আমার কৃষি জমি ভাঙ্গনের মুখে পড়েছে। এতে করে আমার উর্ববরা জমির ফসল হুমকীর মধ্যে রয়েছে’।
স্থানীয় গৃহিণী রওশন আরা বলেন, ‘আমার বাড়ি সংলগ্ন জমিতে পুকুর খনন করায় বসত ঘর যে কোন মুহূর্তে ভেঙ্গে পড়বে। আমরা পরিবার নিয়ে অত্যন্ত ঝুঁকিতে বসবাস করছি। তাছাড়া পুকুর পাড়ে বৈদ্যুতিক খুঁটি থাকায় আরও ভয়ঙ্কর বিপদ ঘটতে পারে। এখনি পুকুর খনন বন্ধ করা উচিত’।
এ ব্যাপারে জমির মালিক বেলাল হোসেন পুকুর খননের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, ‘পুরাতন ডোবাটি সংস্কারের জন্য গভীর করছি। এতে করে পুকুর সংলগ্ন বৈদ্যুতিক খুটি হেলে পড়ায় সেখানে মাটি দিয়ে ঠিক করা হয়েছে’।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাবিবুল হাসান বলেন, ‘এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। পুকুর খনন বন্ধে সহকারী কমিশনার ভূমিকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। অতিদ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জানুয়ারি ০৮
০৫:৩৮ ২০২১

আরও খবর