Daily Sunshine

নির্বাচনী প্রচারনা জমে উঠেছে ভবানীগঞ্জে

Share

মাহফুজুর রহমান প্রিন্স, বাগমার: আগামী ১৬ জানুয়ারি পৌর নির্বাচনের দিন নির্ধারনের পর পরই জমে উঠেছে রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার ভবানীগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচনী প্রচারোণা। বড় দুই দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির একক প্রার্থী ছাড়াও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ গ্রহন করছেন আরো দুজন। তবে এ নির্বাচনে সুষ্ঠ ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় নিয়ে আশংকা প্রকাশ করেছেন বিএনপিসহ অপর দুই স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী। এর আগে নির্বাচনী গণসংযোগ ও পোষ্টার সাঁটানো নিয়ে আওয়ামী লীগের কতিপয় কর্মীদের হামলার শিকার হয় বিএনপি প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাকের তিন কর্মী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী এমামুনুর রশিদ মামুনের এক কর্মী। এ দুই হামলার ঘটনার পর উপজেলা নির্বাচন অফিস ও বাগমারা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই দুই মেয়র প্রার্থী।
উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, দলীয় একক মনোনয়ন পেয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বর্তমান মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আব্দুল মালেক মন্ডল (নৌকা), বিএনপির সাবেক মেয়র ও পৌর বিএনপির সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক (ধানের শীষ), স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ গ্রহন করেছেন, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, তৎকালীন সময়ের উত্তরবঙ্গের এমএলএ শাহ মোহাম্মদ জাফরুল্লাহর ভাতিজা, ভবানীগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মামুনুর রশীদ মামুন (জগ) ও আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী কামাল হোসেন (নারিকেল গাছ) প্রতিক নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সমানে সমানে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন নির্বাচনে অংশ গ্রহনকারী মেয়র প্রার্থী ও তাদের সমর্থকেরা। দু-একটি বিছিন্ন ঘটনা ঘটলেও ছাড় দিতে নারাজ একে অপরকে।
প্রচার প্রচারোণায় এগিয়ে রয়েছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী আব্দুল মালেক মন্ডল। তিনি দলবল নিয়ে রাতের ঘুম হারাম করে পৌরসভার আনাচে কানাচে ভোটাদের বাড়ি বাড়ি ভোট প্রার্থনা করছেন। তিনি সুষ্ঠ নির্বাচনের আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। পৌরসভার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের কারনে দলমত নির্বিশেষে সকলেই তাকে পৌরসভার উন্নয়নের ধারা বজায় রাখতে আবারো ভোট দিয়ে মেয়র বির্নাচিত করবেন বলে তিনি আশা করেন।
বিএনপির একক প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক হলেও দলীয় কোন্দলের কারনে দলের স্থানীয় পর্যায়ের নেতার্মীরা নির্বাচনী প্রচারোণায় তেমন লক্ষ্য করা হয়নি। দলের কোন্দল মিটানোর জন্য কেন্দ্রের নির্দেশে জেলা পর্যায়ের শীষ এক নেতা প্রায় বাগমারাতেই পড়ে আছেন।
দলের কোন্দল মিটলে বিএনপির প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক নির্বাচনে এগিয়ে যাতে পারবেন বলে মাঠ পর্যায়ের বিএনপির একাধিক সমর্থক জানিয়েছেন। তাবে আব্দুর রাজ্জাক দাবী করেছেন, তার নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর সময় বিভিন্ন স্থানে তার দলীয় নেতাকর্মীদের উপর হামলা চালানো হচ্ছে।
এছাড়াও অফিস ভাংচুর, পোস্টার ছেঁড়াসহ নানা ধরনের অভিযোগ তুলছেন তিনি। সুষ্ঠ ভোট হলে তিনি আওয়ামী লীগ, স্বতন্ত্র সবাইকে পরাজিত করে মেয়র নির্বাচিত হবেন। সুষ্ঠ ভোট নিয়ে তিনি শংকার মধ্যে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন।
প্রচারণায় পিছিয়ে নেই স্বতন্ত্র প্রার্থী মামুনুর রশীদ মামুন। তিনিও দলবল নিয়ে পৌর এলাকার সকল বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন। তিনি দাবী করে বলেন, দল আমাকে মনোয়ন দেননি। তৎকালীন সময়ে পাকিস্তান সরকারের এমএলএ থেকে পাক বাহিনীর বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধের সংগঠিত করে দেশের স্বাধীনতা অর্জনকারীর একমাত্র উত্তরসুরি যোগ্য ভাতিজা হিসেবে স্বতন্ত্র প্রার্থী থেকে নির্বাচন অংশ গ্রহন করেই আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে আমার গ্রহন যোগ্যতার প্রমান করব। তিনিও সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে সংকিত রয়েছেন। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে তিনি বড় দুই দলের মনোনীত প্রার্থীদের পরাজিত করে বিজীয় হবেন বলে তিনি জানিয়েছেন।
অপরদিকে ব্যতিক্রমী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী কামাল হোসেন। তিনিও সুষ্ঠ ভোটের শংকা প্রকাশ করেছেন। অন্য প্রার্থীরা রাতের ঘুম হারাম করে নির্বাচনী প্রচারণা চালানেও কামাল হোসেন দিনের বেলায় কৃষকদের মাঠে, ঘাটে, মসজিদসহ বিভিন্ন স্থানে দেখা ভোট প্রার্থনার মাধ্যমে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে।
তিনি নির্বাচিত হলে ভবানীগঞ্জ পৌরসভায় ব্যাপক উন্নয়ন করবেন বলে ভোটারদের জানিয়ে দিচ্ছেন। কামাল হোসেন তরুণ বলে অনেকেই তার দিকে ঝুঁকি নিচ্ছেন। তিনি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নৈশ প্রহরীর চাকরী ছেড়ে দিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহন করেছেন। সুষ্ঠু ভোট হলে জনগণের ভোটেই কামাল হোসেন মেয়র নির্বাচিত হবেন বলে জানিয়েছেন। আসন্ন নির্বাচনে ভবানীগঞ্জ পৌরসভায় ১৪ হাজার ৪০৫ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন বলে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার দপ্তর সূত্রে জানা গেছে।
এ দিকে নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে নির্বাচনী উত্তেজনা ততই বাড়ছে। তবে এসব ঘটনাকে বিচ্ছিন্ন ঘটনা দাবী করে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফা বলেছেন, আমরা সুষ্ঠ ও সুন্দর পরিবেশে নির্বাচন করার জন্য বদ্ধপরিকর। আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রনের জন্য ইতিমধ্যেই তিনজন ম্যাজিস্ট্রেটকে নিয়োগ করা হয়েছে। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য প্রয়োজনে আমরা আরো কিছু করতে প্রস্তুত আছি।
বাগমারা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাক আহম্মেদ জানান, সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য পৌরসভার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া পৌর এলাকার সর্বত্রই পুশিলি টহল জোরদার করা হয়েছে।

জানুয়ারি ০৬
০৭:০১ ২০২১

আরও খবর

বিশেষ সংবাদ

কবর খুঁড়তেই দেখা গেল আরবি হরফের ছাপ!

কবর খুঁড়তেই দেখা গেল আরবি হরফের ছাপ!

অবিশ্বাস্য হলেও সত্য, এক মৃত ব্যক্তির কবর খোরার সময় আরবি অক্ষর লেখা বের হয়েছে কবরে দুই পাশের মাটিতে। কবরের দুই পাঁজরের পাশে বিসমিল্লাহ, সুরা ইয়াছিন অক্ষরের কিছু অংশ এবং পূর্ব পাশে রয়েছে মীম হা মীম দাল (মোহাম্মদ) নাম। বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৮টায় এই অলৌকিক ঘটনাটি ঘটেছে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

৪১ও ৪২তম বিসিএস পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা

৪১ও ৪২তম বিসিএস পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা

সানশাইন ডেস্ক : ৪১তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি এবং ৪২তম বিশেষ বিসিএসের এমসিকিউ পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করেছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। আগামী ১৯ মার্চ সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত ৪১তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট, রংপুর ও ময়মনসিংহ কেন্দ্রে একযোগে হবে। তার আগে আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি বিকাল ৩টা

বিস্তারিত