Daily Sunshine

নবান্নে মাতোয়ারা কৃষক

Share

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহীর বরেন্দ্র অঞ্চলের স্বর্ণালী মাঠে মাঠে অগ্রাহয়ণের প্রথম দিন সোমবার একযোগে শুরু হয়েছে এ অঞ্চলে ধান কাটার উৎসব। হিম হিম হেমন্ত দিনে বর্ণিল আয়োজনে নবান্ন শুরু হলো রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার চৈতন্যপুরে।
হেমন্তের সোনাঝরা রোদ্দজ্জ্বল দিনে রাজশাহী অঞ্চলে হালকা কুয়াশা ভেদে করে শুরু হলো এবারের অগ্রাহায়নের প্রথম দিন। দিনটি এলো কৃষকের আনন্দধারা হয়ে। মাঠের সোনালী পাকা ধানের ঢেউ যেন উঠে এলো কৃষকের উঠানে। কৃষকের এ আনন্দধারার উপলক্ষ-বাড়ির উঠোনে নতুন ধানের মৌ মৌ গন্ধ। এখন কালটা হেমন্ত। অগ্রহায়ন তার দ্বিতীয় মাস। কৃষকের মনে তাই নতুন ধানের স্বপ্ন।
ব্যতিক্রম হয়নি রাজশাহী অঞ্চলে। জেলার গোদাগাড়ী, চারঘাট, তানোরসহ বিভিন্ন উপজেলায় অগ্রহায়নের শুরুর দিন থেকে শুরু হয়েছে নবান্ন উৎসব। একযোগে ধান কাটার মধুক্ষণ। রাজশাহীর বিভিন্ন উপজেলায় নবান্ন উৎসব শুরু হয়েছে একযোগে রবিবার থেকেই।
তবে এদিন বিকেলে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার চৈতন্যপুরে প্রতিবারের মত এবারো আয়োজন করা হয় বর্ণিল উৎসবের। স্থানীয় কৃষক মনিরুজ্জামান এ আয়োজনের উদ্যেক্তা। সাওতাল রমনী ও পুরুষদের ধান কাটার প্রতিযোগীতার মধ্য দিয়ে এ উৎসবের আনুষ্ঠিকতা শুরু হয়। বিকেলে রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর হবিবুর রহমান নবান্নে ধান কাটা উৎসবের উদ্বোধন ঘোষণা করেন। এ সময় তিনি নিজেও কাস্তে হাতে মাঠে নামেন ধান কাটতে।
স্থানীয় সুধিজনদের নিয়ে সেখানে আয়োজন করা হয় নানা নৃত্য, সঙ্গীতসহ নানা অনুষ্ঠানের। সেখানে বাংলার নবান্ন উৎসবের আয়োজন নিয়ে এক অন্তরঙ্গ আলোচনা শুরু হয়।
এতে প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদ বিদ্যা বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. এম মঞ্জুর হোসেন। এছাড়াও অতিথি ছিলেন রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর হবিবুর রহমান, রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক ছামশুল হক।
এর আগে গোদাগাড়ীর চৈতন্যপুরের মাঠে বাংলার কৃষক বেশে ধান কাটার কাস্তে, মাথায় মাথইল, ঘাড়ে লাল গামছা বেঁধে ধানের জমিতে ধান কাটা ও মাড়াই করা হয়। এই সময় এক আনন্দ ঘন মুহুর্ত সৃষ্টি হলে হাসি আর মজার আমেজ উঠে আসে। এই ভাবেই দিনটি পালন হলো গোদাগাড়ীতে। শুধু গোদাগাড়ীতে নয়, জেলার অন্য উপজেলাতেও নবান্ন উৎসব শুরু হয়েছে নানা আনুষ্ঠানিকতায়।
হেমন্তের শুরুতেই এবার রাজশাহী অঞ্চলের বিভিন্ন এলাকায় আগাম ধান কাটা শুরু হলেও সোমবার অগ্রহায়নের শুরুর দিনটা অন্য আমেজে মাঠে মাঠে কাস্তে নিয়ে নামেন কৃষক। আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় এবার শেষমেষ ভালোভাবেই সোনার ফসল ঘরে তুলবেন তারা বলে মনে করছেন।
রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্র জানায়, বরেন্দ্রর চার জেলায় (রাজশাহী, নাটোর, নওগাঁ ও চাপাইনবাবগঞ্জ) পুরোদমে আমন কাটা-মাড়াই ও ঘরে তোলার কাজ শুরু হয়েছে। সবখানে শুধু ধান কাটার দৃশ্য।
রাজশাহী কৃষি বিভাগ জানায়, রাজশাহী জেলায় এবার আমন ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৭৬ হাজার ৫০০ হেক্টর জমি। লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে চাষাবাদ হয় ৭৭ হাজার ৫৭০ হেক্টর জমিতে। তবে দফায় দফায় বন্যায় জেলায় ৪৭০ হেক্টর জমির ধান ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এরই মধ্যে ক্ষেত থেকে কৃষকের উঠোনে উঠতে শুরু করেছে সোনালী আমন ধান। ঘরে ঘরে শুরু হয়েছে পিঠা-পায়েস তৈরীর ধুম। কৃষি বিভাগ বলছে এবার গড় ধানের উৎপাদন অনেক ভালো হয়েছে।

নভেম্বর ১৭
০৬:৩৫ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

শীতের আমেজে আহা…ভাপা পিঠা

শীতের আমেজে আহা…ভাপা পিঠা

রোজিনা সুলতানা রোজি : প্রকৃতিতে এখন হালকা শীতের আমেজ। এই নাতিশীতোষ্ণ আবহাওয়ায় ভাপা পিঠার স্বাদ নিচ্ছেন সবাই। আর এই উপলক্ষ্যটা কাজে লাগচ্ছেন অনেক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। লোকসমাগম ঘটে এমন মোড়ে ভাপা পিঠার পসরা সাজিয়ে বসে পড়ছেন অনেকেই। ভাসমান এই সকল দোকানে মৃদু কুয়াশাচ্ছন্ন সন্ধ্যায় ভিড় জমাচ্ছেন অনেক পিঠা প্রেমী। রাজশাহীর বিভিন্ন

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থগিত নিয়োগ পরীক্ষার সূচি প্রকাশ

রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থগিত নিয়োগ পরীক্ষার সূচি প্রকাশ

সানশাইন ডেস্ক : রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের গত ৩ এপ্রিলের স্থগিতকৃত নিয়োগ পরীক্ষার নতুন সময়সূচি প্রকাশ করা হয়েছে। আগামী ৪ ডিসেম্বর শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত সেকশন অফিসার ও পাবলিক রিলেশন অফিসার পদের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। একই দিন দুপুর ১২টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত ব্যক্তিগত কর্মকর্তা পদের লিখিত

বিস্তারিত