Daily Sunshine

নিয়ামতপুরে গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ

Share

নিয়ামতপুর প্রতিনিধি: নওগাঁর নিয়ামতপুরের ভাবিচা ইউনিয়নের ভালাতৈড় (ফাটকিপাড়া) গ্রামের এক গৃহবধূকে (২০) একা পেয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালিয়ে ব্যার্থ হয়েছে কামরুজ্জামান নামের এক লম্পট। লম্পট কামরুজ্জামান একই গ্রামের মৃত মোস্তফার ছেলে। শুক্রবার বেলা অনুমান ১২টায় ভালাতৈড় (ফাটকিপাড়া) গ্রামে ওই গৃহবধূর বাড়ীর পাশ্বে অবস্থিত মর্টার ঘরে (এসটিডাব্লিউ) এ ঘটনা ঘটে। সে সময়ে একা ছিলেন গৃহবধূ। এ ঘটনায় ওই ভিকটিম বাদি হয়ে নিয়ামতপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নিয়ামতপুর উপজেলার ভাবিচা ইউনিয়নের ভালাতৈড় (ফাটকিপাড়া) গ্রামের ওই গৃহবধূর বাড়ির পাশেই একটি মর্টার (এসটিডাব্লিউ) ঘর রয়েছে কামরুজ্জামানের। ওই গৃহবধু হাঁস দেখতে মর্টার (এসটিডাব্লিউ) ঘরের পাশ দিয়ে যাওয়ার পথে কামরুজ্জামান জোরপূর্বক মর্টার (এসটিডাব্লিউ) ঘরে নিয়ে যায়। জুম্মার দিন সে সময় আশেপাশে কেউ ছিল না। কামরুজ্জামান তার মর্টার (এসটিডাব্লিউ) ঘরের দরজা বন্ধ করে জোরপূর্বক ঐ গৃহবধুকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। গৃহবধু ভয়ে আতঙ্কে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরে জ্ঞান ফিরে দেখে মর্টার ঘরের দরজা বন্ধ। গৃহবধুর আত্মচিৎকারে তার জা তাসলিমা উদ্ধারের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে প্রতিবেশীদের ডেকে দেয়াল ভেঙ্গে ঐ গৃহবধুকে বের করে আনে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে গত ২৯ অক্টোবর কামরুজ্জামানের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
সরেজমিনে ওই গ্রামে গেলে গৃহবধূ কাঁদতে কাঁদতে বলেন, তার একজন দিনমজুর। কাজের জন্য আমার স্বামী সারাদিন বাড়ীর বাইরে থাকে। সেদিন আমি হাঁস খুঁজার জন্য কামরুজ্জামানের মর্টার ঘরের পাশ দিয়ে যাওয়া পথে সে জোরপূর্বক আমাকে মর্টার ঘরের ভেতর নিয়ে মুখে গামছা চেপে ধর্ষণের চেষ্টা করে। আমি ভয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলি। জ্ঞান ফিরে দেখি মর্টার ঘর তালা বদ্ধ। আমার চিৎকারে আমার জা ও প্রতিবেশীরা আমাকে উদ্ধার করে। আমি জ্ঞান হারিয়ে ফেললে কামরুজ্জামান ভয়ে আমাকে ঐ অবস্থায় রেখে ঘরে তালা মেরে পালিয়ে যায়। আমরা গরীব অসহায় স্থানীয়ভাবে মিমাংসার জন্য নেতাদের পিছে পিছে ঘুরেও কোন বিচার না পেয়ে দীর্ঘ ৪৮ দিন পর থানা লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।
অভিযোগ দিয়েও ১৪দিন পার হয়ে গেলেও পুলিশ কোন পদক্ষেপ গ্রহন করে নাই। আসামীকেও গ্রেফতার করা হচেছ না। উল্টো আসামী আমাকে ও আমার স্বামীকে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে অভিযোগ তুলে নেওয়ার জন্য।
নিয়ামতপুর থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) হুমায়ন কবির বলেন, অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথে একজন এস.আইকে ঘটনাস্থলে পরিদর্শনে পাঠিয়ে ছিলাম। ভিকটিম অভিযোগ দায়ের করলেও মামলা করতে নারাজ।
অভিযুক্ত কামরুজ্জামানের সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করলেও তাকে না পাওয়ায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। এ ঘটনায় গ্রামের লোকজন ক্ষুব্দ। গ্রামবাসী দ্রুত কামরুজ্জামানকে গ্রেফতার করে শান্তিমুলক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

নভেম্বর ১৫
০৬:২১ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

শীতের আমেজে আহা…ভাপা পিঠা

শীতের আমেজে আহা…ভাপা পিঠা

রোজিনা সুলতানা রোজি : প্রকৃতিতে এখন হালকা শীতের আমেজ। এই নাতিশীতোষ্ণ আবহাওয়ায় ভাপা পিঠার স্বাদ নিচ্ছেন সবাই। আর এই উপলক্ষ্যটা কাজে লাগচ্ছেন অনেক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। লোকসমাগম ঘটে এমন মোড়ে ভাপা পিঠার পসরা সাজিয়ে বসে পড়ছেন অনেকেই। ভাসমান এই সকল দোকানে মৃদু কুয়াশাচ্ছন্ন সন্ধ্যায় ভিড় জমাচ্ছেন অনেক পিঠা প্রেমী। রাজশাহীর বিভিন্ন

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

৭ ব্যাংকের সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত

৭ ব্যাংকের সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত

সানশাইন ডেস্ক: সাত ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার পদের সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষা (২০১৮ সালভিত্তিক) স্থগিত করা হয়েছে। আগামী ৫ ডিসেম্বর রাজধানীর ৬৭টি কেন্দ্রে এ পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। শনিবার (২৮ নভেম্বর) ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির (বিএসসি) সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। যে সাতটি ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষার স্থগিত করা হয়েছে সেগুলো হলো হলো—সোনালী

বিস্তারিত