Daily Sunshine

দুর্গাপুরে যৌন রোগের চিকিৎসা নিতে এসে যুবকের আত্মহত্যা

Share

স্টাফ রিপোর্টার, দুর্গাপুর : রাজশাহীর দুর্গাপুরে চিকিৎসা নিতে এসে কবিরাজের বাড়ীতে স্বপন (২২) নামের এক রোগীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। স্বপনের বাড়ি নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার দাসগ্রামে। সে ওই গ্রামের শফিকুল ইসলামের পুত্র।
বুধবার বিকেলে ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার হাট কানপাড়া এলাকার বাজুখলশী গ্রামে কবিরাজ নাসির আলীর বাড়িতে। ঘটনার পর রাতে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিলো।
কবিরাজ নাসির আলীর ভগ্নিপতি ও দুর্গাপুর ডিগ্রী কলেজের সহকারী অধ্যাপক ফজলুল বারী সোহরাব জানান, গত ৭ নভেম্বর নাসির আলীর বাড়িতে যৌন সমস্যার চিকিৎসা নিতে আসে স্বপন নামের ওই যুবক। বুধবার দুপুরের খাবার খেতে স্বপনকে খোঁজাখুঁজি করছিলো নাসির। বিকেল ৩টার দিকে নাসির আলী তার বাড়ির একটি কক্ষে গিয়ে দেখেন স্বপন গলায় রশি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পরে ঘটনাটি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শমসের আলীকে জানানো হলে তিনি থানায় খবর দেন।
নাসির আলীর প্রতিবেশী স্থানীয় কয়েকজন যুবক নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, স্বপন প্রায় দেড়মাস আগে স্ত্রীসহ চিকিৎসা নিতে এসেছিলো। প্রায় এক মাস আগে কবিরাজ নাসিরের বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে ওই যুবক। এরপর গত ৭ নভেম্বর পুনরায় একা চিকিৎসা নিতে নাসিরের বাড়িতে আসে ওই যুবক।
স্থানীয় লোকজনের ভাষ্যমতে কবিরাজ নাসির ওই যুবকের কাছ থেকে চিকিৎসার নাম করে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। আবারও ওই যুবকের কাছে মোটা অংকের টাকা দাবি করে কবিরাজ নাসির। টাকার যোগান দিতে না পেরে মানসিকভাবে হতাশাগ্রস্ত হয়ে ওই যুবক আত্মহত্যা করে থাকতে পারে। সুষ্ঠু তদন্ত করলেই প্রকৃত তথ্য বেরিয়ে আসবে। এর আগেও নাসিরের বাড়িতে চিকিৎসা নিতে এসে রোগী মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে বলে জানান তারা।
দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খুরশিদা বানু কণা জানান, ঘটনাটির ব্যাপারে প্রাথমিকভাবে মোবাইল ফোনে খবর পেয়েছি। এ ব্যাপারে ওই যুবকের স্বজনরা থানায় লিখিত অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নভেম্বর ১২
০৭:৪৯ ২০২০

আরও খবর