Daily Sunshine

গোদাগাড়ীতে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার তরুণী, গ্রেফতার তিন

Share

গোদাগাড়ী প্রতিনিধি: রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার দিবাগত রাতে গোদাগাড়ী উপজেলার দেওপাড়া ইউনিয়নের ধামিলা লাড্ডুর মোড়ে মুন্টির বাগানে এ গ্যাংরেফের ঘটনা ঘটে।
আটক তিনজন হলো রাজশাহীর পবা উপজেলার দামকুড়া থানার বিনদারামপুর গ্রামের মোকসেদ আলীর ছেলে শুকুর (৪০), গোদাগাড়ী উপজেলার ধামিলা গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে রনি (৩০) এবং মৃত আবু জাকিরের ছেলে বাবু (৪৫)। তাদের বিরুদ্ধে রাজশাহী শহর থেকে ফুসলিয়ে পূর্বপরিচিত স্বামী পরিত্যক্তা ওই নারীকে (২২) গোদাগাড়ীতে এনে আমবাগানে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ওই তরুণীর মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতেই তিনজনকে আটক করে থানা পুলিশ।
রবিবার সকালে এ ঘটনায় গোদাগাড়ী থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল। রাজশাহী মহানগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনসুর আলী আরিফ জানান, গণধর্ষণের শিকার ওই তরুণী রাজশাহীর তানোর উপজেলার বাসিন্দা। তবে তিনি রাজশাহী মহানগরীর শাহামখদুম এলাকায় ভাড়া থাকেন। সে কারণে কাশিয়াডাঙ্গা থানায় এসে অভিযোগ করেন। এরপর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে একজনকে আটক করা হয়।
পরে দামকুড়া থানা ও গোদাগাড়ী মডেল থানাসহ তিন থানা মিলে যৌথ অভিযান করে দুইজনকে আটক করা হয়। পরে তিনজনকেই গোদাগাড়ী থানায় হস্তান্তর করা হয়। গোদাগাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খাইরুল ইসলাম বলেন, সংঘবদ্ধ এ ধর্ষণের ঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ওই তরুণী মামলার প্রস্তুতি চলছে। মামলা হলে তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে।

নভেম্বর ০২
০৬:১৭ ২০২০

আরও খবর