Daily Sunshine

আজ পবিত্র ঈদ-এ-মিলাদুন্নবী ঝলমলে বর্ণিল আলোয় সেজেছে শিরোইল কলোনী এলাকা

Share

স্টাফ রিপোর্টার : আজ ১২ রবিউল আউয়াল। পবিত্র ঈদ-ই – মিলাদুন্নবী। সারা বিশ্বের ধর্মপ্রান মুসলমানগণ নানা কর্মসূচী ও ইবাদত বন্দেগির মধ্য দিয়ে দিনটি পালন করবেন। দিনটি উদযাপন উপলক্ষে নগরীর শিরোইল কলোনী বড় জামে মসজিদসহ পুরো এলাকা সেজেছে নবরুপ সাজে। লাল নীল ও সবুজের ঝরমলে বর্ণিল আলোয় আলোকিত হয়ে উঠেছে এলাকা। দিনব্যপি চলছে মসজিদের মাইকে হামদ, নাথ ও ইসলামী গজল পরিবেশনা । সন্ধ্যা হলেই মসজিদ ও আশপাশের প্রতিটি রাস্তা , অলিগলি ও বাড়ী যেন টুনি লাইটে আলোকিত করে তুলেছে এলাকাবাসীকে। পবিত্র ঈদ-এ-মিলাদুন্নবী উপলক্ষে এমন সাজ সাজ আয়োজন । যে কেউ দেখলে মনে করবে যেন কোন বিয়ে বাড়ীর অনুষ্ঠান চলছে এলাকা জুড়ে ।
আন্জুমান এ আশরাফিয়া রাজশাহীর উদ্যোগে এ এলাকায় বহু বছর ধরে পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী এভাবেই উদযাপন করে আসছে। এ ছাড়া শিরোইল কলোনী বাইতুল মামুর জামে মসজিদের গাউছিয়া কমিটির পক্ষ থেকেও এমন আয়েজন করা হয়। বড় বনগ্রাম বখশিয়া খানকা শরীফ শতাধিক ট্রাক ও মোটর সাইকেল নিয়ে ধর্মীয় শোভাযাত্রা বের করে এ দিনে। এ সব শোভাযাত্রা নগরবাসীকে মনে করিয়ে দেয় আজ ১২ রবিউল আউয়াল পবিত্র ঈদ-এ মিলাদুন্নবী। শুধু পবিত্র ঈদ ই- মিলাদুন্নবীই নয়, এ কমিটির পক্ষ থেকে ,পবিত্র শবে-বরাত, শবে-মেরাজ, শবে-ক্বদর ও পীরে কামেলের শুভাগমন সহ নানা ধর্মীয় অনুষ্ঠানে এমন আলোকসজ্জার আয়োজন করে থাকেন । পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী উপলক্ষে গত কয়েকদিন ধরেই এ এলাকায় এমন দৃশ্য দেখা যাচ্ছে। প্রতিটি রাস্তা, অলি গলি ও বাড়ীতে আলোকসজ্জাসহ, ইসলামী নিশানা সম্বলিত পতাকা টানানো হয়েছে । এ দিনে ধর্মপ্রান মুসলমানগণ, মিলাদ মাহফিল জিকির আজগার কোরআন পাঠ, নফল নামাজ, রোজা ও ধর্মীয় শোভাযাত্রাসহ নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে দিনটি পালন করে থাকেন। তবে এবার সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী করোনা ভাইরাসের কারণে কোন ধরনের শোভাযাত্রা বের করবেনা কোন সংগঠন।
এদিকে সরেজমিন ওই এলাকায় গিয়ে দেখা গেল, শিরোইল কলোনী এলাকার প্রবেশ মুখে খাদ্য গোডাউনের সামনের রাস্তায় তোরণ ও টুনি লাইট দ্বারা বড় জামে মসজিদ সাজানো হয়েছে। তাছাড়া আশপাশের এলাকাজুড়ে প্রতিটি রাস্তা , অলিগলি ও বাড়ী লাইটিং এর মাধ্যমে বর্ণিল আলোয় আলোকসজ্জা করা হয়েছে। প্রতিটি রাস্তার প্রবেশ মুখে বিশালাকার তোরণ ও ইসলামী পতাকা টানানোসহ মসজিদের ভেতর রঙিন কাগজ দ্বারা সুসজ্জিত করা হয়। এমন সু-সজ্জায় মুখরিত হয়ে উঠেছে আশপাশের পুরো এলাকা। ১২ রবিউল আউয়াল উদযাপনের এমন দৃশ্য অবলকন করতে নগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে শিশু কিশোর ও পরিবার স্বজন দলবেধে ঘুরতে আসছেন এ এলাকায় ।
এ দিকে সিরাজগঞ্জ থেকে স্বপরিবারে আসা ভোলা মিয়া জানান, আমাদের এলাকায় পবিত্র ঈদ-এ-মিলাদুন্নবী পালন করা হয় , তবে এমনভাবে উদযাপন হয় না। এ এলাকার ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান মনে করিয়ে দেয় দিনটি উদযাপন করতে। রাত জেগে নফল নামাজ আদায়, জিকির আজগার, কোরআন পাঠ, রোজাসহ নানা ইবাদাত করা হয় এ দিনে।
এ বিষয়ে শিরোইল কলোনী বড় জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওঃ মুফতি মঈনুল ইসলাম আশরাফী জানান, প্রতি বছর পবিত্র ঈদ –এ – মিলাদুন্নবী উদযাপন করা হয় । তবে ,এবার করোনা ভাইরাসের কারণে শোভাযাত্রা বর্জন করে স্বল্প পরিসরে স্বাস্থ্য বিধি মেনে হযরত শাহমখদুম রুপোশ (রাহঃ)এর মাজার শরীফ জিয়ারত ও বড় জামে মসজিদে বাদ জুম্মা মিলাদ মাহফিল ও তবারক বিতরণ অনুষ্ঠিত হবে ।
সারা বিশ্বের মুসলিম উম্মাহরা পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী যথাযথ মর্যাদায় ভাবগাম্ভির্যের মধ্য দিয়ে দিনটি পালন করবেন। তবে এ বার করোনা ভাইরাসের কারণে স্বাস্থ্য বিধি মেনে স্বল্প পরিসরে মসজিদ ও ঘরে বসে ইবাদত বন্দেগি করার কথা জানিয়ে সরকারের পক্ষ থেকে নির্দেশনা দিয়েছেন।
এ দিকে রাজশাহী মহানগর এলাকার শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে এ দিনে জনসমাবেশ, মিছিল, আতশ বাজি, পটকা ফুটানোসহ অন্যান্য ক্ষতিকারক দ্রব্য বহন ও ব্যবহার নিষিদ্ধ করে আদেশ জারি করেন। তবে স্বাস্থ্য বিধি মেনে ঘরোয়াভাবে ধর্মীয় আচারাদি পালন করা যাবে বলেও জানানো হয় পুলিশের পক্ষ থেকে।

অক্টোবর ৩০
০৬:৪১ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

শীতের আমেজে আহা…ভাপা পিঠা

শীতের আমেজে আহা…ভাপা পিঠা

রোজিনা সুলতানা রোজি : প্রকৃতিতে এখন হালকা শীতের আমেজ। এই নাতিশীতোষ্ণ আবহাওয়ায় ভাপা পিঠার স্বাদ নিচ্ছেন সবাই। আর এই উপলক্ষ্যটা কাজে লাগচ্ছেন অনেক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। লোকসমাগম ঘটে এমন মোড়ে ভাপা পিঠার পসরা সাজিয়ে বসে পড়ছেন অনেকেই। ভাসমান এই সকল দোকানে মৃদু কুয়াশাচ্ছন্ন সন্ধ্যায় ভিড় জমাচ্ছেন অনেক পিঠা প্রেমী। রাজশাহীর বিভিন্ন

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

৭ ব্যাংকের সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত

৭ ব্যাংকের সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত

সানশাইন ডেস্ক: সাত ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার পদের সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষা (২০১৮ সালভিত্তিক) স্থগিত করা হয়েছে। আগামী ৫ ডিসেম্বর রাজধানীর ৬৭টি কেন্দ্রে এ পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। শনিবার (২৮ নভেম্বর) ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির (বিএসসি) সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। যে সাতটি ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষার স্থগিত করা হয়েছে সেগুলো হলো হলো—সোনালী

বিস্তারিত