Daily Sunshine

প্রশিক্ষণের ফলে বাড়ছে সন্তানদের সাথে ইতিবাচক আচরণের চর্চা

Share

স্টাফ রিপোর্টার : মুক্তা রানী, হরিজন পল্লীর বাসিন্দা। দুই সন্তানের জননী। বড় মেয়ের বয়স ৭ বছর এবং ছোট মেয়ের বয়স ৩ বছর। প্রচলিত নিয়মেয় আর দশ জনের মতোই তিনিও সন্তান লালন পালন করতেন। কিন্তু সন্তানকে না মারধর করে, না বকুনি করেও যে মানুষ করা যায় সে বিষয়ে তিনি এসিডিতে প্রথম ‘দৈনন্দিন শিশু লালন পালনে ইতিবাচক নিয়মানুবর্তিতা’ প্রশিক্ষণ পান ২০১৭ সালে।
প্রশিক্ষণ পাওয়ার পরে তার মধ্যে কিছু পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়। সন্তান বিরক্ত করলে তিনি সহজেই রেগে যেতেন, কিন্তু প্রশিক্ষণে লব্ধ কিছু কৌশলের মাধ্যমে এখন তিনি তার রাগ সহজেই নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেন।
তিনি জানান, সন্তানদের সাথে এখন আর খারাপ ব্যবহার করেন না। তিনি বিশ্বাস করেন, সস্তানদের মারধর কিংবা হুমকি ধামকি দিলে অভিভাবক ও সন্তানদের মাঝে সম্পর্ক নষ্ট হয়। প্রশিক্ষণ পাওয়ার আগে তিনি এই বিষয়গুলো জানতেন না। সন্তানদের উষ্ণতা, কাঠামো ও দীর্ঘমেয়াদী লক্ষ্য কিভাবে নির্ধারণ করতে হয় সেবিষয়ে তিনি প্রশিক্ষণে শিখেছেন এবং সন্তানদের জন্য দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা তৈরি করেছেন। মুক্তা রানীর বড় মেয়ের সাথে কথা বলে জানতে পারি প্রশিক্ষণের পর তার মা সন্তান লালন পালনে আগের চেয়ে আরো বেশী যত্নবান হয়েছেন। মুক্তা রানীর মতোই এরকম অনেকেই আছেন যারা প্রশিক্ষণ পেয়ে সন্তান লালন পালনে তাদের আচরণের ইতিবাচক পরিবর্তন করেছেন।
এসিডি তার কর্মএলাকায় ২০১৭ সাল থেকে এপর্যন্ত ১৬ ব্যাচকে (৩২০ জন) প্রশিক্ষণ দিয়েছেন। তাদের অনেকেই সন্তান লালন পালনে ইতিবাচক নিয়মানুবর্তিতা মেনে চলছে। সরেজমিনে কর্মএলাকার ৮০ জন পিতামাতা ও ৭৩ জন সন্তানের মধ্যে একটি জরিপ পরিচালনা করা হয়।
জরিপের মাধ্যমে তুলে আনার চেষ্টা করা হয় প্রশিক্ষণের আগে তারা সন্তানের সাথে কি ধরনের আচরণ করতেন এবং প্রশিক্ষণ পাওয়ার পর তাদের আচরণের কি ধরণের পরিবর্তন হয়েছে না আদৌ কোন পরিবর্তন হয়নি।
সেখানে দেখা যায় প্রশিক্ষণ পাওয়ার আগে ২৭ জন পিতামাতা সন্তানের সাথে বকাঝোকা, রাগারাগি, ও মারধর করত, প্রশিক্ষণের পরে ১৬ জন বলছেন আগের চেয়ে ভালো ব্যবহার, ১০ জন খুব ভালো ব্যবহার ও ১ জন এখনও মারধর বন্ধ করলেও বকাঝোকা ও রাগারাগি করছেন। একই বিষয় নিয়ে ঐ পিতামাতার সন্তানদের সাথে কথা হয়। সন্তানদের মধ্যে ২৬ জন বলেন আগের চেয়ে পিতামাতারা তাদের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করছেন এবং ১ জন শিশু জানায় তার বাবার এখনও কোন পরিবর্তন হয়নি। প্রশিক্ষণের আগে শুধু বকাঝোকা ও রাগারাগি করত এমন ২০ জন পিতামাতা। তাদের মধ্যে ১০ জন আগের চেয়ে ভালো ব্যবহার ও ১০ জন খুব ভালো ব্যবহার করছেন বলে জানান।
তাদের সন্তানদের মধ্যে ১৯ জন বলেন আগের চেয়ে ভালো ব্যবহার করছেন এবং ১ জন এখন ও রাগারাগি করছেন। মারধর ও বকাঝোকা করত ২ জন পিতা মাতা, তারা সকলেই আগের চেয়ে সন্তানের সাথে ভালো ব্যবহার করছেন। তাদের সন্তানরাও একই কথা বলেন। প্রশিক্ষণের আগে শুধু মারধর করত এমন ৪ জন পিতামাতা, প্রশিক্ষণের পরে তারা সকলেই আগের চেয়ে সন্তান লালন পালনে যত্নবান হয়েছেন।
আবার রাগারাগি ও মারধর করত ৬ জন, প্রশিক্ষণের পর মারধর সকলেই বন্ধ করলেও ৩ জন এখনও সন্তানের সাথে রাগারাগি করছেন ও ৩ জন আগের চেয়ে ভালো ব্যবহার করছেন। তাদের সন্তানরাও বলছেন পিতামাতারা আগের চেয়ে ভালো ব্যবহার করছেন। জরিপে এমন ১৪ জন পিতামাতা আমরা পেয়েছি যারা সন্তানের সাথে শুধু রাগারাগি করত। তাদের মধ্যে এখন ১০ জন পিতামাতা আগের চেয়ে ভালো ব্যবহার ও ৪ জন খুব ভালো ব্যবহার করছেন। সন্তানকে শুধু বকাঝোকা করত ৪ জন, তাদের মধ্যে ২ জন আগের চেয়ে ভালো ব্যবহার এবং বাকী ২ জন খুব ভালো ব্যবহার করছেন। প্রশিক্ষণ পাওয়ার আগে ও ১ জন সন্তানের সাথে ভালো ব্যবহার করতেন এবং এখন ও তিনি আরো ভালো ব্যবহার করছেন।
দৈনন্দিন শিশু লালন পালনে ইতিবাচক নিয়মানুবর্তিতার প্রশিক্ষণের ফলে পিতামাতারা সন্তান লালন পালনে আগের চেয়ে অনেক বেশী দায়িত্বশীল হয়েছে। যা এই জরিপের মাধ্যমে উঠে এসেছে। মুক্তা রানীর মতো অনেক মা-ই এখন আর সন্তানদের উপর আর অহেতুক রেগে যান না বা মারধর করেন না। তারা এখন বিশ^াস করছেন সন্তান লালন পালনের জন্য শাস্তিই একমাত্র পথ নয়, ভালোবেসে ও বকাঝোকা না করেও সন্তানকে মানুষ করা যায়।
তাই প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত পিতামাতারা ‘দৈনন্দিন শিশু লালন পালনে ইতিবাচক নিয়মানুবর্তিতার প্রশিক্ষণ’ আরো বেশী জনগোষ্ঠীর মধ্যে ছড়িয়ে দেয়ার আহব্বান জানান।

অক্টোবর ২১
০৬:৪৩ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

শীতের আমেজে আহা…ভাপা পিঠা

শীতের আমেজে আহা…ভাপা পিঠা

রোজিনা সুলতানা রোজি : প্রকৃতিতে এখন হালকা শীতের আমেজ। এই নাতিশীতোষ্ণ আবহাওয়ায় ভাপা পিঠার স্বাদ নিচ্ছেন সবাই। আর এই উপলক্ষ্যটা কাজে লাগচ্ছেন অনেক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। লোকসমাগম ঘটে এমন মোড়ে ভাপা পিঠার পসরা সাজিয়ে বসে পড়ছেন অনেকেই। ভাসমান এই সকল দোকানে মৃদু কুয়াশাচ্ছন্ন সন্ধ্যায় ভিড় জমাচ্ছেন অনেক পিঠা প্রেমী। রাজশাহীর বিভিন্ন

বিস্তারিত




আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

৭ ব্যাংকের সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত

৭ ব্যাংকের সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত

সানশাইন ডেস্ক: সাত ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার পদের সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষা (২০১৮ সালভিত্তিক) স্থগিত করা হয়েছে। আগামী ৫ ডিসেম্বর রাজধানীর ৬৭টি কেন্দ্রে এ পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। শনিবার (২৮ নভেম্বর) ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির (বিএসসি) সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। যে সাতটি ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষার স্থগিত করা হয়েছে সেগুলো হলো হলো—সোনালী

বিস্তারিত