Daily Sunshine

মাথাচাড়া দিচ্ছে ‘কিশোর গ্যাং’

Share

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীতে ‘কিশোর গ্যাং’ ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছে। শুরুতে নিজেরা মাদক সেবনের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলেও ক্রমেই তাদের কর্মকাণ্ড সমাজের সামনে হিংস্র হিসেবে পরিচিতি লাভ করছে। এসব কিশোরেরা সংঘবদ্ধ ভাবে পাড়া মহল্লার প্রভাবশালী, মাস্তান বা কথিত বড় ভাইদের হয়ে নয়তো দলীয় ব্যানারে সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ছে।
কিশোর গ্যাং এর সদস্যরা একসাথে মাদক সেবন, পাড়া-মহল্লায় নারীদের উত্ত্যাক্ত করাসহ ছোট-বড় ঘটনাকে কেন্দ্র করে মারামারি ও ঝগড়া বিবাদ এমনকি খুনের সাথে জড়িয়ে পড়ছে। স্থানীয় বিভিন্ন চায়ের স্টল ও মোড়ে-মোড়ে দলগত আড্ডার ছলে তারা এলাকায় ভীতিকর সৃষ্টি করছে।
এসব ক্ষেত্রে অনেক সময় খুন ধর্ষণের মত ঘটনাও ঘটছে। কিশোর গ্যাং এর সদস্য অপরাধ করার পরিকল্পনার অংশ হিসেবে তারা বিভিন্ন গ্রুপ তৈরি করে নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ স্থাপন করছে এবং পরিকল্পনা করছে।
সম্প্রতি নগরীর আরডিএ অফিসের পেছনে এক যুবককে খুন করা হয়। পরবর্তিতে পুলিশের তদন্তে বের হয়ে আসে আসল রহস্য। জানাযায়, ওই হত্যাকাণ্ডের পেছনেও ছিলো স্থানীয় কয়েকজন কিশোর। নগরীতে প্রকাশ্যে মোটরসাইকেলযোগে ছিন্তাইয়ের ঘটনা ঘটছে। সিসি টিভি ফুটেজ ও ছিন্তাইয়ের শিকার ভুক্তভোগীদের কথায় ওই সব ছিন্তাইয়ের সাথে রয়েছে একদল সংঘবদ্ধ কিশোর। নগরীতে এখন মাদকের ব্যবসা হচ্ছে ভ্রাম্যমাণ মাদক ব্যবসায়ীদের দ্বারা। এসব ব্যবসায়ীরা কারিয়োর (বহনকারী) হিসেবে কিশোরদের ব্যবহার করছে। কিশোররা মাদক নিয়ে মাদকসেবীদের দারপ্রান্তে পৌছে দিচ্ছে। গতবছর নগরীর নিউমার্কেটের কাছে কাদিরগঞ্জ এলাকায়র কাড়ই তলার কাছে দিনে দুপুরে বিদেশি পিস্তল সহ দুই যুবককে আটক করে সিরোইল ফাঁড়ির পুলিশ। এসময় ওই দুই যুবকের ছুরিকাঘাতে আহত হন সংশ্লিষ্ট ফাঁড়ির এসআই। পরে জানাযায় তাদের বাড়ি নগরীর কামারুজ্জামান স্টেডিয়াম এলাকার কাছে। তারা স্থানীয় কথিত বড়ভাইদের ছত্রছায়ায় নগরীতে ছিন্তাইসহ নানা অপকর্মের সাথে জড়িত। একই বছর রাজশাহী নগরীর মনিচত্বরের কাছের একটি মেসে এক যুবককে অপহরণ করে রাখা হয়। এঘনায় পরে যাদেরকে আটক করা হয় তারাও কিশোর গ্যাং এর সদস্য বলে পরে প্রতিয়মান হয়েছে।
এদিকে নগরীর বিভিন্ন মোড় ও চায়ের স্টলগুলোতে কিশোরদের দিন-রাত অবাধ বিচরণ দেখা যায়। তারা এই স্থানগুলোকে তাদের ডেরা হিসেবে গড়ে তলেছে। চায়ের স্টলগুলো অবৈধ ভাবে জায়গা দখল করে গড়ে তোলা। স্টলমালিকেরা নিজেদের এইসব কিশোরদের আশ্রয় ও প্রশ্রয় দিয়ে আসছে। বিনিময়ে তারা নিজেদের অবৈধ দখলদারিত্বের দৌরাত্ম টিকিয়ে রাখতে কিশোরদের ব্যবহার করছে।
এমন অবস্থায় বিষয়টি এরই মধ্যে আাঁচ করতে পেরেছে রাজশাহী মহানগর পুলিশ (আরএমপি)। বিদ্যমান পরিস্থিতিতে পুলিশ কমিশনারের নির্দেশে কিশোর গ্যাং ও কিশোর অপরাধীদের বিরুদ্ধে আরএমপি সর্বাত্মক অভিযান শুরু করেছে।
এ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে শুক্রবার ১২ থানাধীন বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালানো হয়। অভিযানে ৫৬ জন কিশোর গ্যাং এর সদস্যকে আটক করা হয়। আটককৃতদের থানায় এনে যাচাই বাছাই করা হয়। যাচাই বাছাই শেষে ৩২ জনকে মুচলেকা নিয়ে তাদের অভিভাবকের নিকট জিম্মায় প্রদান করা হয়। বাকিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
আরএমপির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর) গোলাম রুহুল কুদ্দস জানান, সমাজ থেকে কিশোর গ্যাং কালচার নির্মুল করে কিশোরদের সঠিক পথে ফিরিয়ে আনতে এ ধরনের অভিযান আগামীতেও অব্যাহত থাকবে। এ সমস্ত কিশোর গ্যাং এর সদস্যরা অন্য কোন অপরাধের সাথে জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধে প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অক্টোবর ১১
০৯:০০ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

নগরীর পুরাতন বইয়ের বাজার, কেমন আছেন দোকানীরা?

নগরীর পুরাতন বইয়ের বাজার, কেমন আছেন দোকানীরা?

আবু সাঈদ রনি: সোনাদীঘি মসজিদের কোল ঘেষে গড়ে উঠেছে রাজশাহীর ঐতিহ্যবাহী পুরাতন বইয়ের দোকান। নিম্নবিত্ত ও অস্বচ্ছল শিক্ষার্থীদের একমাত্র আশ্রয়স্থল এই পুরাতন লাইব্রেরী। মধ্যবিত্তরা যে যায় না ঠিক তেমনটিও না। কি নেই এই লাইব্রেরীতে? একাডেমিক, এডমিশন, জব প্রিপারেশনসহ সব ধরনের বই রাখা আছে সারি সারি সাজানো। নতুন বইয়ের দোকানের সন্নিকটে

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

চাকুরির নিয়োগ দিচ্ছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

চাকুরির নিয়োগ দিচ্ছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

সানশাইন ডেস্ক : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন পদে জনবল নিয়োগ দেয়া হবে। রাবির নিজস্ব ওয়েবসাইটে এই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। পদের নাম: কম্পিউটার অপারেটর পদ সংখ্যা: ০১ টি। বেতন: ১২৫০০-৩০২৩০ টাকা। পদের নাম: মেডিক্যাল টেকনােলজিস্ট (ফিজিওখেরাপি) পদ সংখ্যা: ০২ টি। বেতন: ১২৫০০-৩০২৩০ টাকা। পদের নাম: মেডিক্যাল টেকনােলজিস্ট (ডেন্টাল) পদ সংখ্যা:

বিস্তারিত