Daily Sunshine

ভারী বর্ষণে বাগমারার নিম্নাঞ্চল ফের প্লাবিত

Share

মাহফুজুর রহমান প্রিন্স, বাগমারা: গত কয়েকদিন ধরে আকস্মিক বর্ষণে বাগমারার নিম্নাঞ্চল ফের প্লাবিত হয়েছে। প্রবল বর্ষণের ফলে ফুলেফেঁপে ওঠেছে ফকিরাণী ও বারনই নদীর পানি। এতে এ নদী তীরবর্তী এলাকার বিভিন্ন খালে বিলে নদীর পানি প্রবেশ করছে। ফলে বিল এলাকার বিভিন্ন গ্রামের নিম্নাঞ্চল সমুহ এরি মধ্যে প্লাবিত হয়ে পড়েছে।
উপজেলা কৃষি অফিস ও এলাকার কৃষক সূত্রে জানা গেছে, বাগমারা ও এর আশে পাশের এলাকায় গত কয়েকদিন ধরে অবিরাম বর্ষণ হয়ে এলাকার খাল বিলগুলো আবার পানিকে ভরে যায়। বিল এলাকার কৃষকরা বিল সংলগ্ন উচু জমিতে আমন ধান চাষ করেছিল। গত কয়েকদিনের বর্ষণের পানিতে সেই ধান গুলো অনেকটাই ডুবে গেছে। আবার কোন কোন এলাকার কৃষকের সবজি ক্ষেতও তলিয়ে গেছে। ফলে বাজারে কয়েকদফা বেড়েছে সবজির দাম। গত পঞ্চাশ ষাট টাকার নীচে কোন সবজি মিলছে না।
মড়িয়ার কৃষক লুৎফর রহমান জানান, এক বিঘা জমিতে তিনি মূলা ও পটলের চাষ করেছিলেন। গত দুই দিন ধরে প্রবল বর্ষণে তার সবজি ক্ষেত তলিয়ে গেছে। মাড়িয়ার আরেক কৃষক আসাদুল প্রায় একই পরিনতির কথা জানিয়ে বলেন, তিনি শীতকালীন আগাম মূলা ও ফুল কফির চাষ করেছিলেন প্রায় বিশ শতক জমিতে। বর্ষণে তার এই দুই ক্ষেতের সবজি তলিয়ে গেছে। এভাবে শুধু কৃষকের সবজির ক্ষতি হয়নি। অনেক কৃষকের পুকুরের পোনা মাছও ভেসে গেছে বর্ষণের কারণে। বন্যার পানি নেমে যাওয়ার পর এসব পুকুর মালিকরা তাদের পুকুরে বিভিন্ন জাতের পোনা মাছ ছেড়েছিলেন। গত কয়েকদিনের প্রবল বর্ষণের কারণে পুকুরের পাড় উপছে পানি প্রবাহিত হয়ে পুকুরের পোনা মাছগুলো ভেসে গেছে।
উত্তর একডালার পুকুর চাষী আব্দুল কুদ্দুস জানান, কিছুদিন আগে প্রচন্ড তাপমাত্রা বেড়ে হাটৎ বৃষ্টিপাত নেমে পানিতে আক্স্রিজেন স্বল্পতায় তার পুকুর সকল মাছ মরে ভেসে ওঠে। শুধু তারই নয় আশেপাশের অনেক পুকুর মালিকের একই অবস্থা হয়েছে। পরে তারা আবার পোনা মাছ সংগ্রহ করে পুকুরে ছেড়েছিলেন। ভেবেছিলেন এই মাছ বড় হলে তাদেরর সেই ক্ষতি পোষতে পারবেন। কিন্তু সে আশায় গুড়েবালি হয়েছে। গত কয়েকদিনের প্রবল বর্ষণের ফলে তার তিনটি পুকুর ভেসে গেছে। এতে তার প্রায় আড়াই লক্ষাধিক টাকার পোনা মাছ ভেসে গেছে।
ওই এলাকার কুদ্দুস, আব্দুল মজিদসহ ৫-৬ জন পুকুর চাষীরা জানান, এ সময় খাল বিলের পানি নদী দিয়ে নেমে যাওয়ার কথা । কিন্তু গত কয়েকদিনের প্রবল বর্ষণে এবং উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে নদ নদীর পানি আবার বৃদ্ধি পেয়েছি। এ পানিতে কৃষক যেমন সর্বস্বান্ত হয়ে পড়েছে তেমনি পুকুর চাষীরাও বড় বেকায়দায় পড়েছে।
এসব বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ রাজিবুর রহমান জানান, হটাৎ নিম্নচাপ শুরু হওয়ায় সাগর কিছুটা উত্তাল হয়েছে। ক্রমে নিম্নচাপ কেটে গেলে আবার খাল বিলের পানি নদী দিয়ে নেমে যাওয়া শুরু হবে। তখন বন্যার এ প্রকোপ থাকবে না।
সবজি ও ধানসহ কৃষকের যেসব আবাদের ক্ষতি হয়েছে। আমরা তার জরিপ কাজ শুরু করেছি। ইতোমধ্যে কিছু কৃষককে বিনামূল্যে বিভিন্ন সবজি বীজ প্রদান করা হয়েছে। এ কার্যক্রম চলমান থাকতে। এছাড়া কৃষকের ধানসহ অন্যান্য ক্ষতির বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

সেপ্টেম্বর ২৬
০৬:১০ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

নগরীর পুরাতন বইয়ের বাজার, কেমন আছেন দোকানীরা?

নগরীর পুরাতন বইয়ের বাজার, কেমন আছেন দোকানীরা?

আবু সাঈদ রনি: সোনাদীঘি মসজিদের কোল ঘেষে গড়ে উঠেছে রাজশাহীর ঐতিহ্যবাহী পুরাতন বইয়ের দোকান। নিম্নবিত্ত ও অস্বচ্ছল শিক্ষার্থীদের একমাত্র আশ্রয়স্থল এই পুরাতন লাইব্রেরী। মধ্যবিত্তরা যে যায় না ঠিক তেমনটিও না। কি নেই এই লাইব্রেরীতে? একাডেমিক, এডমিশন, জব প্রিপারেশনসহ সব ধরনের বই রাখা আছে সারি সারি সাজানো। নতুন বইয়ের দোকানের সন্নিকটে

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

চাকুরির নিয়োগ দিচ্ছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

চাকুরির নিয়োগ দিচ্ছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

সানশাইন ডেস্ক : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন পদে জনবল নিয়োগ দেয়া হবে। রাবির নিজস্ব ওয়েবসাইটে এই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। পদের নাম: কম্পিউটার অপারেটর পদ সংখ্যা: ০১ টি। বেতন: ১২৫০০-৩০২৩০ টাকা। পদের নাম: মেডিক্যাল টেকনােলজিস্ট (ফিজিওখেরাপি) পদ সংখ্যা: ০২ টি। বেতন: ১২৫০০-৩০২৩০ টাকা। পদের নাম: মেডিক্যাল টেকনােলজিস্ট (ডেন্টাল) পদ সংখ্যা:

বিস্তারিত