Daily Sunshine

প্রথমবারের মতো ইউএস ওপেনের ফাইনালে জারেভ

Share

স্পোর্টস ডেস্ক: জার্মানির তরুণ টেনিস তারকা আলেকজান্ডার জারেভ ইউএস ওপেনের ফাইনালে উঠেছেন। শুক্রবার সেমিফাইনালে পাঁচ সেটের লড়াইয়ে ৩-২ সেটে স্পেনের পাবলো কারেনো বুস্তাকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো কোনো গ্র্যান্ডস্লামের ফাইনালে নাম লেখান তিনি।
অবশ্য প্রথম দুই সেট পাবলোর কাছে হেরে গিয়েছিলেন ২৩ বছর বয়সী এই তরুণ তুর্কি। এরপর টানা পরবর্তী তিন সেট জিতে ফাইনালে নাম লেখান। প্রথম দুই সেট তিনি ২-৬ ও ৩-৬ ব্যবধানে হেরে যান। এরপর ৬-৩, ৬-৪ ও ৬-৩ ব্যবধানে পরবর্তী তিন সেট জিতে ফাইনাল নিশ্চিত করেন। তার ক্যারিয়ারে এই প্রথম শুরুর দুই সেট হেরেও জয় পেলেন।
‘আমি জানতাম আমাকে ঘুরে দাঁড়াতেই হবে। ধীরস্থির হয়ে খেলতে হবে। আমি জানতাম আমাকে আরো ভালো খেলতে হবে। এর আগে আমি কখনোই প্রথম দুই সেট হেরে ম্যাচ জিততে পারিনি। এই পর্যায়ে এসে এমন কিছু করতে পেরে ভালো লাগছে। আমি প্রথম কোনো গ্র্যান্ডস্লামের ফাইনালে উঠেছি। এটাই আমার কাছে অনেক কিছু।’ ম্যাচ শেষে বলেছেন জারেভ।
আজ ফাইনালে ডমিনিক থেইম অথবা দানিল মেদভেদেভের মুখোমুখি হবেন জারেভ। এবার অবশ্য ইউএস ওপেন নতুন গ্র্যান্ডস্লাম চ্যাম্পিয়ন পেতে যাচ্ছে। সবশেষ ২০১৪ সালে ইউএস ওপেনে নতুন চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। সেবার ক্রোয়েশিয়ার মার্টিন সিলিক জিতেছিলেন ইউএস ওপেন। এবার যেই জিতুক না কেন, নতুন রাজার খেতাব পাবেন তিনি।
এবারের আসরে অবশ্য রাফায়েল নাদাল ও রজার ফেদেরার খেলছেন না। অন্যদিকে সার্বিয়ান তারকা নোভাক জকোভিচ লাইন রেফারির গায়ে বল মেরে বাদ পড়েছেন। তাতেই নতুনদের জন্য গ্র্যান্ডস্লাম জয়ের দ্বার উন্মোচিত হয়েছে।

সেপ্টেম্বর ১৩
০৫:২৫ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

ডিগ্রী থাকলেও মিলছেনা যোগ্য চাকরি

ডিগ্রী থাকলেও মিলছেনা যোগ্য চাকরি

শাহ্জাদা মিলন: বাংলাদেশের অন্যতম বিভাগীয় শহর রাজশাহী। সিল্কসিটি, আমের রাজধানী হিসেবে পরিচিত সারা দেশে রাজশাহী। তবে এসব পরিচয় ছাপিয়ে রাজশাহী ‘শিক্ষা নগরী’ হিসেবে সবচেয়ে বেশি পরিচিত। অসংখ্য নামিদামি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে এখানে। এর সুফলে রাজশাহীতে বছর বছর বাড়তে ডিগ্রিধারী মানুষের সংখ্যা। তবে সেই অনুপাতে বাড়ছে না কর্মসংস্থান। রাজশাহীতে রয়েছে রাজশাহী

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সানশাইন ডেস্ক : করোনা মহামারিতে সাধারণ ছুটিতে স্বাভাবিক জীবনযাত্রার সঙ্গে স্থগিত ছিল সরকারি-বেসরকারি চাকরির নিয়োগ প্রক্রিয়া। এ কয়েক মাসে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পায়নি দেশের শিক্ষিত বেকার জনগোষ্ঠী। অংশ নিতে পারেনি কোনো নিয়োগ পরীক্ষাতেও। অনেকেরই বয়স পেরিয়ে গেছে ৩০ বছর। স্বাভাবিকভাবেই সরকারি চাকরির আবেদনে সুযোগ শেষ হয়ে যায় তাদের। তবে এ দুর্যোগকালীন

বিস্তারিত