Daily Sunshine

কোহলি আমার মতোই দুষ্টু

Share

স্পোর্টস ডেস্ক: সাবেক পাকিস্তানি স্পিডস্টার শোয়েব আখতার হরহামেশাই ভারতের ক্রিকেটের প্রশংসা করেন। বিশেষ করে অধিনায়ক বিরা কোহলির প্রশংসা প্রায়ই শোনা যায় তার মুখে। কিছুদিন আগে সমালোচকদের জবাব দিয়ে বলেছনে, কোহলি যদি ক্রিকেটে উদাহরণ তৈরি করতে পারে তাহলে কেন তিনি তার প্রশংসা করবেন না?
পাকিস্তানিদের কোহলির কাছ থেকে শেখা উচিত বলে মনে করেন শোয়েব। এবার আবারও তার মুখে শোনা গেল বিশ্বের ভয়ংকরতম ব্যাটসম্যানটির প্রশংসা। মাঠে কোহলির ছেলেমানুষি নিয়ে অনেক সমালোচনা আছে। তবে পাকিস্তানের সাবেক গতি তারকা মনে করেন, ক্যারিয়ারের শুরুতে কোহলি তার মতোই দুষ্ট ছেলে ছিলেন।
তার ভাষায়, ‘বিরাট কোহলি নিজেকে অনন্য এক উচ্চতায় তুলেছে। কিন্তু কোহলির এই ব্র্যান্ডের পেছনে কে? ২০১০, ২০১১ সালে কোহলি কিন্তু আলোচনায় ছিল না। আমার মতোই দুষ্ট ছেলে ছিল। হঠাৎ করেই ভারতীয় ক্রিকেটের প্রক্রিয়া তাকে সহায়তা করতে শুরু করল। ম্যানেজমেন্টও পাশে ছিল। আর কোহলি নিজেও জানত, সামনে অনেক কিছু অর্জনের সুযোগ আছে।’
আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সেঞ্চুরির পর সেঞ্চুরি করে যাচ্ছেন ভারতের বর্তমান অধিনায়ক। মাত্র ৩১ বছর বয়সে তিনি বর্তমান বিশ্বের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন। অনেকেই মনে করেন, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রান ও সেঞ্চুরির মালিক শচীন টেন্ডুলকারের রেকর্ড একমাত্র কোহলির পক্ষেই ভাঙা সম্ভব।
শোয়েব আরও বলেন, ‘সে এখন সহজ ক্রিকেটের সময়ে খেলছে-এতে তার কোনো হাত নেই। কিংবা শচীন, ওয়াসিম, ইনজামাম, ওয়াকাররা যে কঠিন সময়ে খেলেছে সেখানেও কারও হাত নেই। তাই এখন সে কোহলি যদি রান করে চলে তাতে কার কী বলার থাকতে পারে?’

সেপ্টেম্বর ১৩
০৫:২৪ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

আলোকিত সিটি পেয়েছেন মহানগরবাসী

আলোকিত সিটি পেয়েছেন মহানগরবাসী

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী মহানগরীর শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামান চত্বরে দাঁড়িয়ে আছে মাস্তুল আকৃতির মজবুত দুইটি পোল। প্রতিটি পোলের উপর রিং বসিয়ে তার চতুরদিকে বসানো হয়েছে উচ্চমানের এলইডি লাইট। আর সেই লাইটের আলোয় আলোকিত বিস্তৃত এলাকা। শুধু শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামান চত্বর নয়, এভাবে মহানগরীর আরো গুরুত্বপূর্ণ ১৪টি চত্বর আলোকিত হয় প্রতি

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সানশাইন ডেস্ক : করোনা মহামারিতে সাধারণ ছুটিতে স্বাভাবিক জীবনযাত্রার সঙ্গে স্থগিত ছিল সরকারি-বেসরকারি চাকরির নিয়োগ প্রক্রিয়া। এ কয়েক মাসে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পায়নি দেশের শিক্ষিত বেকার জনগোষ্ঠী। অংশ নিতে পারেনি কোনো নিয়োগ পরীক্ষাতেও। অনেকেরই বয়স পেরিয়ে গেছে ৩০ বছর। স্বাভাবিকভাবেই সরকারি চাকরির আবেদনে সুযোগ শেষ হয়ে যায় তাদের। তবে এ দুর্যোগকালীন

বিস্তারিত