Daily Sunshine

বাসা থেকে সংগ্রহ করা করোনা পরীক্ষার নমুনা ড্রেনে ফেলে দিত জেকেজি

Share

সানশাইন ডেস্ক: বাসা থেকে সংগ্রহ করা করোনা পরীক্ষার নমুনা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে পাঠাত না জেকেজি হেলথ কেয়ার। সংগৃহীত নমুনা ড্রেনে ও ওয়াশ রুমে ফেলে তা নষ্ট করে ফেলা হতো। ওভাল গ্রুপের চিফ ভিজ্যুয়ালাইজার হুমায়ূন কবীর গত ২৪ জুন ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়ে এ কথা স্বীকার করেন।
পুলিশ ও আদালত সূত্রে জানা যায়, ওভাল গ্রুপের মালিক ও সিইও আরিফুল ইসলাম চৌধুরী গত ২৬ মার্চ রাতে হুমায়ূন কবীরকে অফিসে ডেকে নেন এবং তাঁকে পিপিই ডিজাইন করতে বলেন। আরিফুল ইসলাম চৌধুরীর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বাসায় গিয়ে নমুনা সংগ্রহ করা হয় এবং বাংলাদেশিদের জন্য ৫ হাজার টাকা ও বিদেশিদের জন্য ১০০ ডলার নেওয়া হয়। হুমায়ূন জানান, নমুনা সংগ্রহ করার পর তা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে না পাঠিয়ে নিজেরাই ড্রেনে বা ওয়াশ রুমে ফেলে নষ্ট করে ফেলতেন।
আদালত সূত্রে জানা গেছে, হুমায়ুন কবীর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। সুস্থ হওয়ার পর আরিফুল ইসলাম তাঁকে বাসায় বসে ভুয়া রিপোর্ট তৈরি করে পাঠাতে বলেন।
পুলিশ ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, হুমায়ুন কবীরের স্ত্রী তানজিনা পাটোয়ারীও জেকেজিতে কাজ করতেন। তিনিও আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন এবং ভুয়া করোনা রিপোর্ট তৈরির কথা স্বীকার করেছেন। তানজিনা পাটোয়ারী সেন্ট্রাল হসপিটাল নার্সিং ইনস্টিটিউটের নার্সিং ইনস্ট্রাক্টর হিসেবে কাজ করতেন। তানজিনা গত ৪ জুন জেকেজি থেকে পদত্যাগ করেন এবং ১৪ জুন থেকে ১৯ জুন পর্যন্ত বাসায় বসে ভুয়া রিপোর্ট তৈরি করেন বলে জবানবন্দিতে উল্লেখ করেছেন। করোনা নমুনা সংগ্রহ ও রিপোর্ট তৈরির কাজে সমন্বয় করতেন মাসুম বিল্লাহ, তানিয়া ও রিদিতা নামের তিন জন ব্যক্তি।
তানজিনা তাঁর জবানবন্দিতে বলেন, তিনি করোনা ক্যাম্পে ইনস্ট্রাক্টর হিসেবে ছিলেন। নমুনা সংগ্রহের বিষয়ে ট্রেনিং দিতেন তিনি। তাঁর কাজ ছিল, নমুনা সংগ্রহের বুথ পরিদর্শন করা এবং সংগৃহীত নমুনাগুলো স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে পাঠানো। হুমায়ূন কবীর ও তানজিনা পাটোয়ারীকে ২৩ জুন আটক করা হয়। বর্তমানে তাঁরা কারাগারে আটক আছেন।
আদালত ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, জোবেদা খাতুন হেলথ (জেকেজি) কাজ শুরু করেছিল ২০১৫ সালে। এ ঘটনায় জেকেজির চেয়ারম্যান ও চিকিৎসক সাবরিনা আরিফ চৌধুরীকে গ্রেপ্তার করে তিন দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া ওভাল গ্রুপের মালিক ও সিইও আরিফুল ইসলাম চৌধুরী এখন গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে আটক আছেন।

জুলাই ১৬
০৫:৫২ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

দুই নেতার শীতল যুদ্ধে বিএনপিতে বিভক্তি!

দুই নেতার শীতল যুদ্ধে বিএনপিতে বিভক্তি!

সানশাইন ডেস্ক : দলে প্রভাব বিস্তার, সিদ্ধান্ত গ্রহণে দ্বিমুখিতা, প্রাত্যহিক কার্যক্রমে সমন্বয়হীনতাসহ সাংগঠনিক দ্বন্দ্বে বিএনপিতে বিভক্তি সৃষ্টি হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। নেতারা পরস্পরের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ছেন শীতল যুদ্ধে। দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নির্দেশ পাশ কাটিয়ে বিশেষ ক্ষমতাবলে সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ নিজের মতো করে দলের

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

যেসব নিয়োগ পরীক্ষা আছে সামনে

যেসব নিয়োগ পরীক্ষা আছে সামনে

সানশাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাসের কারণে বেশ কিছু সরকারি নিয়োগ পরীক্ষা পিছিয়ে গেছে। তবে অবস্থা স্বাভাবিক হলে সামনে এসব পরীক্ষা হবে বলে জানিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। এই পরীক্ষাগুলোর জন্য এই সময়ে আপনি নিজেকে প্রস্তুত করতে পারেন আরও ভালোভাবে। পিএসসির পরীক্ষা করোনাভাইরাসের কারণে বেশ কিছু পরীক্ষা স্থগিত করেছে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন। পিএসসি

বিস্তারিত