Daily Sunshine

ধোনি এখনও আইপিএলের দিকে তাকিয়ে

Share

স্পোর্টস ডেস্ক: ভারতীয় ক্রিকেটে মহেন্দ্র সিং ধোনির ভবিষ্যত নিয়ে গত এক বছর ধরেই নানারকম জল্পনা চলছে। কিন্তু এর সমাধান কবে হবে তা কেউ জানে না। গত ২০১৯ বিশ্বকাপের পর থেকেই জাতীয় দলের বাইরে ভারতের দুই বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক। ইতোমধ্যেই তিনি বিসিসিআইয়ের কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়েছেন।
অনেকেই বলছেন, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ধোনির প্রত্যাবর্তনের সম্ভবনা প্রায় নেই বললেই চলে। তবে ধোনি এ বিষয়ে কিছু না বললেও তার ম্যানেজারের দ্বারা কিছু আভাস পাওয়া গেছে।
এবারের আইপিএলের মাধ্যমে নিজেকে প্রমাণ করে বাইশ গজে ফেরার কথা ছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির। কিন্তু করোনার কারণে আইপিএল অনিশ্চিত। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও ঝুলে আছে। মরণ ভাইরাসের কারণে ধোনির ক্যারিয়ারও অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। একবছর ক্রিকেট ছাড়া থাকলেও ধোনির ভাবনায় কোনো অবসর পরিকল্পনা নেই। সংবাদসংস্থা পিটিআইকে এমন কথাই বলেছেন তার ম্যানেজার তথা ছোটবেলার বন্ধু মিহির দিবাকর। ধোনি নাকি এখনও আইপিএলের আশায় আছেন।
মিহির দিবাকর বলেছেন, ‘বন্ধু হিসেবে আমরা ক্রিকেট নিয়ে খুব একটা কথা বলি না।তবে ওকে দেখে যতটা বুঝি অবসর নিয়ে এখন ওর তেমন কোনো ভাবনা নেই। বরং আইপিএল খেলতে ও দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। এই মেগা টুর্নামেন্টে মাঠে নামার জন্য ও কিন্তু অনুশীলন শুরু করেছিল। চেন্নাইয়ের প্রস্তুতি ক্যাম্পেও যোগ দিয়েছিল। এখনও নিজের ফার্মহাউজে ফিটনেস ট্রেনিং কিন্তু চালিয়ে যাচ্ছে। লকডাউন উঠলে সে আবার অনুশীলন শুরু করবে।’

জুলাই ১০
০৫:৩৪ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

রাজশাহীর রেশম শিল্পেও করোনার থাবা

রাজশাহীর রেশম শিল্পেও করোনার থাবা

স্টাফ রিপোর্টার : চলমান করনোকালে চরম অস্তিত্ব সংকটে রাজশাহীর রেশম শিল্প। বিশ্বব্যাপী মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে ধুঁকে ধুঁকে চলা এ শিল্পখাত আরো অস্তিত্ব সংকটে পড়েছে। করোনা ভাইরাসের কারণে গত দুই মাসের লকডাউনে কোটি কোটি টাকার লোকসানে পড়েছে সিল্কের তৈরি পোশাকখাত। এখন সিল্কের তৈরি পোশাকের শো-রুম খোলা থাকলেও বেচাবিক্রি নেমে এসেছে

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

সরকারি চাকরিতে আরও বেড়েছে ফাঁকা পদ

সরকারি চাকরিতে আরও বেড়েছে ফাঁকা পদ

সানশাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে সরকারি চাকরির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ না হওয়ায় বেড়েছে চাকরিপ্রার্থীর সংখ্যা, সঙ্গে ফাঁকা পদের সংখ্যাও বাড়ছে। সরকারি চাকরিতে এখন তিন লাখ ৮৭ হাজার ৩৩৮টি পদ ফাঁকা পড়ে আছে, যা মোট পদের ২১ দশমিক ২৭ শতাংশ। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলছেন, অগাস্ট মাসে কোভিড-১৯ সংক্রমণ কমে আসবে

বিস্তারিত