Daily Sunshine

বাগান সাবাড় করে পুকুর খননের হিড়িক

Share

চারঘাটে স্থায়ী জলাবদ্ধতার আশঙ্কা, হুমকির মুখে পরিবেশ
মিজানুর রহমান, চারঘাট : ফসলি জমির পর এবার রাজশাহীর চারঘাটের আমবাগানে লোভের থাবা পড়েছে পুকুর খননকারীদের। সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে উপজেলার আমবাগাম ধ্বংস করে সেখানে রাতারাতি খনন করা হচ্ছে পুকুর। সরকারি কতিপয় অসৎ কর্মকর্তাদের যোগসাজশে অন্যতম অর্থনীতির উৎস আমবাগান ধ্বংস করে পুকুর খনন করলেও দেখার কেউ নেই। ফলে অনেকটা বাধাহীন ভাবেই চলছে পুকুর খননের মহোৎসব। এতে শুধু আম বাগানই নয়, হুমকির মুখে পড়েছে পরিবেশ। আমের চেয়েও মাছে বেশী লাভের আশায় পুকুর খননের মহোৎসব চলছে।
শুধু বাগান ধ্বংস নয়, বাগানের মাটি কেটে ট্রাক্টরে করে বহনের জন্য ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে রাস্তাঘাটও। সড়ক-মহাসড়কেরও ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। দ্রুত অবসান না হলে জলাবদ্ধতাসহ পরিবেশের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়ারও আশঙ্কা করছেন কৃষি সংশ্লিষ্টরা। তবে উপজেলা প্রশাসনের দাবি পুকুর খনন বন্ধে জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন তারা। বিভিন্ন সময় অভিযান চালিয়ে পুকুর খনন বন্ধ করা হয়েছে।
আম কেন্দ্রিক অন্যতম অর্থনৈতিক জোন হিসেবে প্রসিদ্ধ জেলার চারঘাট ও বাঘা উপজেলা। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, চারঘাট উপজেলার নিমপাড়া, চারঘাট সদর ও শলুয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় অবাধে চলছে পুকুর খনন। তবে অধিকাংশ পুকুর খননকারীরা বিভিন্ন জমির মালিকদের নিকট থেকে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে বাগান লিজ নিয়ে গাছ উজার করে এসব পুকুর খনন করছেন। দেদারসে সাবাড় করা হচ্ছে আমসহ বিভিন্ন ধরনের ফলের বাগান। সঙ্গে ধ্বংস করা হচ্ছে ধানসহ তিন ফসলী জমি। এতে সাময়িক ভাবে জমির মালিকরা লাভবান হলেও দীর্ঘমেয়াদী ক্ষতির মুখে পড়ছেন পুকুর খননকারী জমির আশে পাশে থাকা বাগান মালিক ও ফসলী জমির মালিকরা। তাদের দাবি, এভাবে যত্রতত্র আম বাগান কেটে পুকুর খননের ফলে স্থায়ী জলাবদ্ধতাসহ জমির উর্বরতা নষ্ট হচ্ছে। কমছে কৃষি জমির পরিমান।
রবিবার উপজেলার নিমপাড়া ইউনিয়নের কামিনী ফকিরপাড়া গ্রামে গিয়ে দেখা যায় জমির মালিক মহব্বত আলী দিনের বেলায় আম বাগান কেটে সাবাড় করে ফেলছেন। বাগান কেটে সেখানে কাটা হচ্ছে পুকুর। এসময় মহব্বত আলী বলেন, আমি আমার জমি উপজেলার ফতেপুর গ্রামের জরিপকে লিজ দিয়েছি। তিনি এখানে পুকুর খনন করছেন। বাগান কেটে পুকুর খনন অবৈধ কিনা জানতে চাইলে মহ্ববত আলী বলেন, জরিপ ভাই ভালো বলতেন পারবেন। এ বিষয়ে পুকুর খননকারী জরিপ বলেন, আমরা মাটি কেটে নিচ্ছি। এ মাটি ভাটায় দেয়া হচ্ছে। এভাবে আমের বাগান কেটে পুকুর খনন চলছে পুরো উপজেলা জুড়েই।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে নিমপাড়া ইউনিয়নের নন্দনগাছী বাজারের ব্যবসায়ী বলেন, শুধু ফকিরপাড়া মাঠে নয়, ভাটপাড়া মাঠ জুড়ে আগে যেখানে দেখা গেছে ধানের শীষ। এখন সেখানে তাকালেই দেখা যাবে পুকুর আর পুকুর। এভাবে পুরো ইউনিয়নের বেশীর ভাগ মাঠ জুড়েই দীর্ঘদিন ধরেই পুকুর খনন করে চলেছেন।
শুধু নিমপাড়া ইউনিয়নেই পুকুর খনন সীমাবদ্ধ নয়। উপজেলার শলুয়া ও চারঘাট সদর ইউনিয়নেরও বেশীর ভাগ আম বাগান কেটে এখন চলছে পুকুর খননের মহোৎসব। দেখার যেন কেউ নেই। এতে করে পুকুর খননকারীরা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। দ্রুত এসব অবৈধ পুকুর খননকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানিয়েছেন এলাকার কৃষকরা।
এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মনজুর রহমান বলেন, কৃষি জমি বা বাগান নষ্ট করে পুকুর খনন সম্পুর্ণরুপে অবৈধ। তার পরেও যেসব স্থানে পুকুর খননের খবর পাওয়া যাচ্ছে সেখনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অভিযান চালাচ্ছেন। তবে পুকুর খনন বন্ধে জনগনকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানয়েছেন কৃষি কর্মকর্তা মনজুর রহমান।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ নাজমুল হক বলেন, বাগান কেটে পুকুর খনন সম্পুর্ণ ভাবেই অবৈধ। উপজেলার যে প্রান্তেই পুকুর খননের সংবাদ পাওয়া যাচ্ছে সেখানেই অভিযান পরিচালনা করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে।
প্রসঙ্গত, রাজশাহীতে নির্বিচারে কৃষিজমিতে চলছে পুকুর খনন। কৃষিজমিতে পুকুর ছাড়াও নির্মাণ হচ্ছে ইটভাটি। উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকলেও থেমে নেই পুকুর খনন ও ইটভাটি নির্মাণ। নানাভাবে স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে চলছে এসব অবৈধ কাজ কারবার। এ কারণে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে ফসলি জমি। তবে পুকুর খনন বন্ধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে দুএকটি অভিযান চালানো হলেও ইটভাটি বন্ধে কোন পদক্ষেপ নেয়।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দিনে অভিযান চালিয়ে যে পুকুর খনন বন্ধ করা হচ্ছে, রাতেই আবার সেই পুকুর খনন করা হচ্ছে। আবার কোনো কোনো উপজেলায় ভুক্তভোগীরা প্রশাসনের সহযোগিতাই পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ উঠেছে। ফলে গত পাঁচ বছরে শুধু রাজশাহীতেই কৃষিজমি কমেছে ১৫ হাজার হেক্টর। পুকুর খননের কারণে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে লাখো কৃষক।

জানুয়ারি ২৭
০৪:৫০ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

সাহস সংগ্রাম নেতৃত্বে অবিচল

সাহস সংগ্রাম নেতৃত্বে অবিচল

সানশাইন ডেস্ক : মহামারি কোভিড-১৯ এর ধাক্কায় দুমড়ে-মুচড়ে যাচ্ছে বিশ্বব্যবস্থা। বৈশ্বিক এ মহামারির নিদারুণ প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশেও। অথচ এমন ঘোর অমানিশার মাঝেও আশার প্রদীপ জ্বালিয়ে রেখেছেন তিনি। তিনি-ই সম্প্রতি রিজার্ভ ও রেমিট্যান্সে রেকর্ড গড়ার খবর দিয়েছেন। বিশ্লেষকরা মনে করেন, মহামারিকালে জরুরি ভিত্তিতে প্রায় এক লাখ কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

অস্ত্র মামলায় সাহেদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

অস্ত্র মামলায় সাহেদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

সানশাইন ডেস্ক : রিজেন্ট গ্রুপ ও রিজেন্ট হাসপাতাল লিমিটেডের চেয়ারম্যান সাহেদ করিম ওরফে মোহাম্মদ সাহেদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে করা একটি মামলায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার আগে সাহেদকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা

বিস্তারিত