Daily Sunshine

নওগাঁর ক্লিনিকে নারীর মৃত্যু, ডাক্তার চম্পট

Share

নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁয় সদর হাসপাতাল রোডে শাহ্ নার্সিং হোম এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার নামক বেসরকারি ক্লিনিকে ডাক্তারের ভূল চিকিৎসায় এক নারীর মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে। স্থানীয়রা জানায়, মঙ্গলবার দুপুরে সুফিয়া বেগম (৬০) নামের এক নারীকে ওই ক্লিনিকে ভর্তি করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. কাজী ওহিদুল ইসলাম রোগী দেখার পর রোগীর লোকজনকে জানায় রোগীর জরুরী রক্তের প্রয়োজন।
চিকিৎসকের কথা মত রোগীর লোকজন বিকাল ৫টার দিকে ওই ক্লিনিক থেকে রক্ত সংগ্রহ করে ডাক্তারকে দিলে ওই রক্ত রোগীর শরীরে দেয়া মাত্র ১০ মিনিট পর রোগী মারা যায়। মৃত সুফিয়া বেগম জেলার মহাদেবপুর উপজেলার হরিপুর গ্রামের মৃত হামিদ সরদারের স্ত্রী। এ ঘটনায় জানাজানি হলে ক্লিনিকের মালিক নূরুল ইসলাম রোগীর লোকজনের সঙ্গে মোটা অংকের টাকায় আপোশ মিমাংসা হয়। পরে সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ আসলে ক্লিনিকের মালিক তড়িঘড়ি করে মাইক্রো ভাড়া করে লাশ পাঠিয়ে দেয়। রোগীর জামাই আব্দুর রহিম বলেন, চিকিৎসা করতে এসে শ্বাশুড়ির লাশ হয়ে ফেরত হলো।
রোগীর সঙ্গে আসা আত্মীয়া তসলিমা বলেন, রোগী সুস্থ ছিল কিন্তু ডাক্তার ভূল চিকিৎসা দিয়ে মেরে ফেলেছে। ধারনা করা হচ্ছে, রোগীর শরীরে ব্লাড মাসিং না হওয়ার কারনে রোগীর মৃত্যু হয়েছে। ডা. কাজী ওহিদুল ইসলাম রোগী মারা যাওয়ার সাথে সাথে ক্লিনিক থেকে পলায়ন করেন। ক্লিনিকের ও‘টি ও বিভিন্ন দিকের ব্যবস্থাপনা দেখলে মনে হয় এটি একটি বাড়ি যার নেই কোন ডাক্তার নেই কোন প্রয়োজনীয় জনবল।
এ বিষয়ে নওগাঁর সির্ভিল সার্জন ডা. মমিনুল হকের সঙ্গে সেল ফোনে যোগাযোগ করে তাকে পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় নওগাঁর জেলা প্রশাসক হারুন অর রশীদকে জানালে তিনি বলেন বিষয়টি সিভিল সার্জনের দেখার কথা তথাপি আমি তাকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থার জন্য বলছি।
নওগাঁ সদর মডেল থানার এস.আই রবিউল বলেন, মৃতের পক্ষ থেকে কেউ অভিযোগ করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।
গত কয়েক দিন আগেও শহরের পার-নওগাঁয় বেসরকারি নওগাঁ ডায়াবেটিক সমিতি হাসপাতালে ভূল সিজারিয়ান অপারেশনে রাজিয়া সুলতানা (২৭) নামে এক প্রসূতি অপারেশন টেবিলেই মারা যায়।

জানুয়ারি ১৬
০৪:৩২ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

আঁকাআঁকি থেকেই তন্বীর ‘রংরাজত্ব’

আঁকাআঁকি থেকেই তন্বীর ‘রংরাজত্ব’

আসাদুজ্জামান নূর : ছোটবেলা থেকেই আঁকাআঁকির প্রতি নেশা ছিল জুবাইদা খাতুন তন্বীর। ক্লাসের ফাঁকে, মন খারাপ থাকলে বা বোরিং লাগলে ছবি আঁকতেন তিনি। কারও ঘরের ওয়ালমেট, পরনের বাহারি পোশাক ইত্যাদি দেখেই এঁকে ফেলতেন হুবহু। এই আঁকাআঁকির প্রতিভাকে কাজে লাগিয়েই হয়েছেন ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা। তুলির খোঁচায় পরিধেয় পোশাকে বাহারি নকশা, ছবি, ফুল

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

জোরালো হচ্ছে সরকারি চাকরিতে ‘বয়সসীমা’ বাড়ানোর দাবি

জোরালো হচ্ছে সরকারি চাকরিতে ‘বয়সসীমা’ বাড়ানোর দাবি

সানশাইন ডেস্ক : সর্বশেষ ১৯৯১ সালে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়ানো হয়। এরপর অবসরের বয়স বাড়ানো হলেও প্রবেশের বয়স আর বাড়েনি। বেকারত্ব বেড়ে যাওয়া, সেশনজট, নিয়োগের ক্ষেত্রে দীর্ঘসূত্রতা, অন্যান্য দেশের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স বাড়ানোর দাবিতে আন্দোলন করে আসছেন শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রার্থীরা। তবে এ বিষয়ে উদ্যোগ নেয়নি

বিস্তারিত