Daily Sunshine

বাস্তবায়িত হোক সব প্রতিশ্রুতি ॥ ক্ষুধা দারিদ্র্যমুক্ত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হোক বাংলাদেশ

আওয়ামী লীগের বিজয় সমাবেশ
আওয়ামী লীগ গত শনিবার ঢাকার সোহওয়ার্দী উদ্যানে বিজয় মহাসমাবেশ করেছে। ৩০শে ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ভূমিধস বিজয়ের পর এই বিজয় উদযাপন করলো দলটি ওই সমাবেশের মাধ্যমে। সমাবেশে দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর বক্তব্যে দেশবাসীকে এই অভূতপূর্ব সমর্থন দেয়ায় শুভেচ্ছা জানান এবং তাঁদের কাছে দোয়া প্রতিটি প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের অঙ্গিকার করেন। সেই সাথে তিনি সকলে মিলে দেশ গড়ার আহবান জানান।
আওয়ামী লীগের ওই সমাবেশে দলটি বিজয়ের মতোই ছিল অভূতপূর্ব, কানাই কানাই ভরে যায় পুরো সোহওয়ার্দী উদ্যান। এ যেন স্বাধীনতাপূর্ব বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সেই ঐতিহাসিক ময়দান, যেখান থেকে তিনি জাতিকে মুক্তি ও স্বাধীনতা সংগ্রামের আহবান জানিয়েছিলেন। শনিবার তেমনি এক প্রতিচ্ছবি দেখলো জাতি এবং শুনলো দেশকে উন্নত সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গড়ার আহবান, যা ছিল বঙ্গবন্ধুর আজীবনের লালিত স্বপ্ন। সেই স্বপ্নের বাস্তবায়ন করতে আজ বাঙালির পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন তাঁরাই মতো তাঁর কন্যা শেখ হাসিনা। যিনি বাবার মতোই জীবন উৎসর্গ করতে প্রস্তুত জাতির জন্যে। সত্যি জাতি যথার্থ একজন কান্ডারী পেয়েছেন। তাই তো লাখো লাখো বাঙালি এমন বিজয় সমাবেশে যোগ দিয়েছিলেন।
আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা তাঁর সংক্ষিপ্ত ভাষণে গত ১০ বছরের ধারাবাহিকতা রক্ষা করে তাঁর দলের প্রতি অকুণ্ঠ সমর্থন দেয়ায় এখন কাজের মাত্রা আরো গতি পাবে এবং প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন সহজতর হবে বলে উল্লেখ করে দেশ গঠনে সকলকে এক সাথে কাজ করার আহবান জানান। তাঁর এই আহবান যথার্থ বলে আমরা মনে করি এবং দেশকে উন্নত সমৃদ্ধ ক্ষুধা দারিদ্র্যমুক্ত করতে হলে সবার মিলিত প্রয়াস দরকার। দরকার দুর্নীতি দূর করে সুশাসন প্রতিষ্ঠার এই কাজটি এখন করতে চায় সরকার, সে কথাই দৃঢ়তার সাথে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। আমরা তাঁর এই উদ্যোগকে স্বাগত জানাই এবং প্রত্যশা করি তিনি যথার্থই দেশকে আরো সামনে এগিয়ে নিতে সক্ষম হবেন।
আওয়ামী লীগকে দেশের মানুষ নিরঙ্কুশ সমর্থন দিয়েছেন তার গত ১০ বছরের কর্মকান্ডের কারণে। প্রতিটি প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে দলটি অঙ্গিকারবদ্ধ থাকায়। বাংলাদেশকে একটি উন্নত সমৃদ্ধ দেশ যেমন দেখতে চায় দেশের মানুষ। তেমনি যুদ্ধাপরাধী মানবতাবিরোধী জামাত ও অপশক্তি মুক্তও দেখতে চায়। আর সে কারণে জামাতীদের ভিন্নরূপ নেওয়ার পরও দারুন ভাবে প্রত্যাখ্যান করেছে। এই জনমতের প্রতি আওয়ামী লীগ আগামীতে শ্রদ্ধাশীল থেকে জামাত ও অপশক্তির বিরুদ্ধে নিরন্তর সংগ্রাম অব্যাহত রাখবে নিষিদ্ধ হবে জামাতীদের রাজনীতি এই প্রত্যাশা আমাদের। আমরা সার্বিক ভাবে সরকারের সব প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন হোক সেই কামনা করি।

জানুয়ারি ২১
০৩:১৮ ২০১৯

আরও খবর