Daily Sunshine

ভাঙা কালভার্টে পাঁচ গ্রামবাসীর ঝুঁকিপূর্ণ চলাচল

বড়াইগ্রাম প্রতিনিধি : বড়াইগ্রামের দ্বারীখৈর-নিতাইনগর রাস্তায় দুটি কালভার্টের পাটাতন ভেঙে যাওয়ায় পাঁচটি গ্রামের বাসিন্দারা প্রতিনিয়ত ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছেন। একই সঙ্গে গরু-মহিষের গাড়ি চলতে না পারায় মাঠ থেকে ফসল আনাসহ চরম বিপাকে পড়েছেন এলাকার কয়েকশ কৃষক।
জামাইদিঘা, পাঁচবাড়ীয়া, নিতাইনগর, মহেশপুর ও নগর মৌজার মধ্যবর্তী এ রাস্তাটিতে মাত্র ২০০ গজের মধ্যে স্থাপিত দুটি কালভার্টেরই উপরের পাটাতন একাধিক জায়গায় ভেঙে গেছে। এ পথে আশেপাশের কয়েকটি গ্রামের বাসিন্দারা চলাচল করেন। এছাড়া এ এলাকার মধ্যবর্তী বিলের কয়েক হাজার একর জমির কৃষি ফসল ধান, পাট, ইক্ষু, গমসহ বিভিন্ন প্রকারের শাকসব্জি এ কালভার্ট দু’টির উপর দিয়েই গরু- মহিষের গাড়ীতে বহন করে নিজ নিজ বাড়িসহ পাশের দ্বারীখৈর সাহেরের হাটে নিয়ে যান কৃষকেরা। কিন্তু দ্বারীখৈর ঈদগাহ মাঠের পাশের কালভার্ট ও একই রাস্তায় প্রায় দুইশ’ গজ পশ্চিমে আরেকটি কালভার্ট ভেঙে যাওয়ায় কোন গরু-মহিষের গাড়ী পারাপার হতে পারছে না।
রাতের বেলায় অন্ধকারে এসব কালভার্টের ভাঙা অংশে পড়ে একাধিক পথচারী আহত হয়েছেন। একই ভাবে কৃষিপণ্য বোঝাই গাড়ি টানার কাজে নিয়োজিত বেশ কয়েকটি গরু মহিষের পা ভেঙে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।
মহেশপুর গ্রামের গাড়োয়ান আনসার শাহ ও করিম বলেন, এ রাস্তায় কৃষিপণ্য আনা নেয়ার প্রধান বাহন হচ্ছে গরু মহিষের গাড়ী। ২০ থেকে ২৫টি গাড়ীতে করে ধান, পাট, রসুন ও বিভিন্ন পণ্য বহন করা হয়। কিন্তু দুটি ভাঙা কালভার্টের কারণে বেশ কয়েক মাস হলো কোন গাড়ী চলতে পারছে না। এতে আমরাও বেকার হয়ে পড়েছি, কৃষকেরাও পড়েছেন বিপাকে।
জামাইদিঘা গ্রামের কৃষক আবু তাহের বলেন, কালভার্ট ভেঙে যাওয়ায় গাড়ির পরিবর্তে দিন মজুর দিয়ে কৃষিপণ্য বাড়িতে আনতে আমাদের অতিরিক্ত টাকা গুণতে হচ্ছে। এমনিতেই ফসলের দাম নেই, উপরন্তু খরচ ও সময় বেশি লাগছে। এতে আমাদের লোকসান আরো বাড়ছে।
নগর ইউপি চেয়ারম্যান নিলুফার ইয়াসমিন ডালু বলেন, এলাকার কয়েকটি গ্রাম এবং বিলে যাতায়াতের একমাত্র রাস্তার ভাঙা কালভার্ট দু’টি মেরামত করা দরকার। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে আগামীতে কালভার্ট দু’টি মেরামতের প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়া হবে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আনোয়ার পারভেজ জানান, বিষয়টি আমার জানা ছিলো না। এ ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জানুয়ারি ১৯
০৩:৪৭ ২০১৯

আরও খবর