Daily Sunshine

টিআইবির প্রতিবেদন বিএনপির প্রতিধ্বনি: তথ্যমন্ত্রী

সানশাইন ডেস্ক : বিগত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়মের তথ্য দিয়ে দুর্নীতিবিরোধী সংস্থা টিআইবি যে প্রতিবেদন দিয়েছে তা প্রত্যাখ্যান করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। সংস্থাটির এই প্রতিবেদনকে ‘মনগড়া’ দাবি করে তাকে বিএনপি-জামায়াতের প্রতিধ্বনি বলে আখ্যায়িত করেছেন তিনি।
শুক্রবার সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আয়োজিত এক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। আওয়ামী লীগের বিজয় সমাবেশের প্রস্তুতি হিসেবে এই সভার আয়োজন করা হয়। হাছান মাহমুদ বলেন, ‘টিআইবি নির্বাচন পর্যবেক্ষকও ছিল না। যারা পর্যবেক্ষক ছিল তারা বলেছে নির্বাচন সুষ্ঠু, আর পর্যবেক্ষক না হয়ে মনগড়া প্রতিবেদন দিয়ে বিএনপি-জামায়াতের কথার প্রতিধ্বনি করছে সংস্থাটি।’
মন্ত্রী বলেন, ‘আওয়ামী লীগের বিজয় যেমন বিশাল, প্রতিপক্ষের পরাজয়ও তেমন ধস নামানো। আর এমন ধসে যাওয়া পরাজয়ের পর মুখরক্ষার জন্যই সংলাপের দাবি তাদের। এখন এই মুখ থুবড়ে পড়া বিএনপি-জামায়াতের পরাজিত নেতারা যখন আইসিইউতে, তখন টিআইবি তাদের অক্সিজেনের ভূমিকা নিয়েছে।’
গত ১৫ জানুয়ারি সংবাদ সম্মেলনে টিআইবি এক ‘গবেষণাপত্র’ উপস্থাপন করে জানায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৪৭টি আসনের প্রতিটিতে এক বা একাধিক ভোটকেন্দ্রে নির্বাচনী অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ৪১ আসনে পড়েছে জাল ভোট। ৩৩ আসনে আগের রাতে ব্যালটে সিল মারা হয়েছে।
দেশের মানুষ যেন তাদের ভালোবাসে এবং আওয়ামী লীগকে দেশ পরিচালনার জন্য আবারো দায়িত্ব দেয় সেজন্য নেতাকর্মীদের আরও দায়িত্ববান হওয়ার আহ্বান জানান ক্ষমতাসীন দলের প্রচার সম্পাদক হাছান মাহমুদ। বলেন, ‘কাঁধে দায়িত্ব এলে বিনয়ী ও নম্র হতে হয়, বিজয়ীর আচরণ যেন কারো বিরক্তির কারণ না হয়। বিজয়ের পর যেভাবে আমরা নেত্রীর নির্দেশ মেনে চলেছি, তা বজায় রাখতে হবে।’
শনিবারের সমাবেশ বিজয় সমাবেশ, উৎসব নয় উল্লেখ করে নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, সমাবেশ বর্ণিল কিন্তু সুশৃঙ্খল হবে। নেত্রীর বক্তব্য শেষ হওয়া পর্যন্ত সবাই উপস্থিত থাকবো। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ আয়োজিত বর্ধিত সভায় সভাপতিত্ব করেন শাখা সভাপতি হাজী আবুল হাসনাত। প্রধান বক্তা ছিলেন মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ। বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতারা সভায় অংশ নেন।

জানুয়ারি ১৯
০৩:৩৫ ২০১৯

আরও খবর