Daily Sunshine

নওগাঁয় চুরি হওয়া ১১৩ ভরি সোনা ও সাড়ে ৭ লাখ টাকা উদ্ধার, গ্রেপ্তার ৮

নওগাঁ প্রতিনিধি : নওগাঁ শহরের বহুল আলোচিত রুমি জুয়েলার্সে দুর্ধর্ষ প্রায় ৫০০ ভরি সোনা চুরির ঘটনায় ১১৩ ভরি স্বর্নলংকার এবং সোনা বিক্রির ৭ লাখ ৫৫ হাজার টাকা উদ্ধারসহ ৮ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রবিবার দুপুরে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে পুলিশ সুুপার ইকবাল হোসেন এক প্রেস ব্রিফিং-এ এতথ্য জানান।
তিনি জানান, সোনা চুরির এই ঘটনাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে পুলিশ ঘটনা উদঘাটন, চোরদের গ্রেপ্তার এবং সোনা উদ্ধারে তাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন। এরই প্রেক্ষিতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে নওগাঁ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল হাইয়ের নেতৃত্বে গত ২৪ ঘন্টায় কুমিল্লা জেলার শরন খোলা থানার অন্তর্গত পূর্ব খোন্তাকাটা গ্রামের আব্দুর রউফ ফারাজির ছেলে স্বপন ফারাজী (৪১), ফজলুল হকের দুই ছেলে রুস্তম আলী (৫৭) ও আবুল কালাম (৩৮), মুরাদনগর উপজেলার কিষ্টপুর সিদ্ধেশ্বরী গ্রামের মৃত আনু মিয়ার ছেলে জামাল (৩৭), তিতাস থানার অন্তর্গত দক্ষিন বিংলাবাড়ি গ্রামের মৃত মতিউর রহমান স্বর্নকারের ছেলে সাগর আহম্মেদ (৩৪), একই থানার মঙ্গলকান্দি গ্রামের মৃত হাবিবুল্লার ছেলে ইয়াকুব আলী (৩৬), পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া থানাধীন গৌরীপুর গ্রামের আব্দুল হাকিমের ছেলে ইউনুস আলী (৩৫) এবং একই থানার টিএন্ডটি রোডের বাসিন্দা মৃত বেলাল হাওলাদারের ছেলে হানিফ হাওলাদারকে (২৬) গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
গ্রেপ্তারকৃত রুস্তমের নিকট থেকে সোনা বিক্রির ১ লাখ ৭৮ হাজার টাকা, সাগরের নিকট থেকে ৩১ ভরি ১১ আনা সোনা, ইউনুস এর নিকট থেকে দেড় ভরি সোনা ও সোনা বিক্রির ৫ লাখ টাকা, হানিফের কাছে থেকে দেড় ভরি সোনা ও সোনা বিক্রির ৭৭ হাজার টাকা এবং জামালের নিকট থেকে ৭৮ ভরি গলানো সোনা উদ্ধার করা হয়েছে।
পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন জানিয়েছেন চুরি হয়ে যাওয়া অবশিষ্ট সোনা খুব অল্প সময়ের মধ্যে উদ্ধার করা হবে।
উল্লেখ্য, ২ নভেম্বর শুক্রবার বিকালে রুমি জুয়েলার্সের পাশের দোকানের তালা ভেঙে প্রবেশ করে সিঁদ কেটে সকল সিসি ক্যামেরা বন্ধ করে দিয়ে রুমি জুয়েলার্সে প্রবেশ করে ৫০০ ভরি সোনা চুরির ঘটনা ঘটে।

জানুয়ারি ১৪
০২:৫৬ ২০১৯

আরও খবর