Daily Sunshine

পার্লামেন্টের বাইরেও বিরোধী দল হয়: খালেদা জিয়া

সানশাইন ডেস্ক: কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, ‘বিরোধী দল শুধু পার্লামেন্টের ভেতরেই হয় না, পার্লামেন্টের বাইরেও বিরোধী দল হয়। যারা জনগণের কথা বলে, মানুষের অধিকারের কথা বলে তারাই বিরোধী দল।’
রবিবার দুপুরে পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে অবস্থিত ঢাকার ৯ নং বিশেষ জজ শেখ হাফিজুর রহমানের আদালতে নাইকো মামলার শুনানিকালে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন।
দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আদালতে তারঁ মামলার শুনানি শুরু হয়েছে। শুনানির আগে দীর্ঘ ১০ মাস কারাবন্দি থাকা বিএনপি প্রধানকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়েছে। শুনানিকালে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, ‘আজ আমরা বিরোধী দলে আছি বলেই বিপদে পড়েছি।’ এ সময় পাশ থেকে এক আইনজীবী প্রশ্ন করেন- ‘আপনারা কি বিরোধী দলে আছেন?’ তখন এর জবাবে খালেদা জিয়া এসব কথা বলেন।ৎ
এর আগে আদালতে হাজির করার জন্য বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) প্রোডাকশন ওয়ারেন্ট বা হাজতি পরোয়ানা (কারাগার থেকে মামলায় হাজিরা দেয়ার অনুমতি) জারি করেন আদালত। গত ৩ জানুয়ারিতেও হুইল চেয়ারে করে আদালতে হাজির করা বিএনপি চেয়ারপারসনকে। সেদিন আদালতের কক্ষের অবস্থা ও পরিবেশ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন বিএনপি প্রধান।
এসময় খালেদা জিয়া বিচারককে উদ্দেশ্যে করে বলেন, ‘এতো ছোট জায়গায় মামলা চলতে পারে না। এখানে আমাদের কোনো আইনজীবী বসতে পারেন না। এখানে মামলা চললে আমি আর আদালতে আসব না।’
তিনি আরও বলেন, ‘এখানে আইনজীবীদের গেট থেকে ফিরিয়ে দেয়া হয়, আসতে পারে না। এর আগেও আমি বলেছি এ কথা। কিন্তু কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। আপনারা সাজা দিলে দিয়ে দেন, তাও আমি এ আদালতে আসব না।’

জানুয়ারি ১৪
০২:৫২ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

আঁকাআঁকি থেকেই তন্বীর ‘রংরাজত্ব’

আঁকাআঁকি থেকেই তন্বীর ‘রংরাজত্ব’

আসাদুজ্জামান নূর : ছোটবেলা থেকেই আঁকাআঁকির প্রতি নেশা ছিল জুবাইদা খাতুন তন্বীর। ক্লাসের ফাঁকে, মন খারাপ থাকলে বা বোরিং লাগলে ছবি আঁকতেন তিনি। কারও ঘরের ওয়ালমেট, পরনের বাহারি পোশাক ইত্যাদি দেখেই এঁকে ফেলতেন হুবহু। এই আঁকাআঁকির প্রতিভাকে কাজে লাগিয়েই হয়েছেন ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা। তুলির খোঁচায় পরিধেয় পোশাকে বাহারি নকশা, ছবি, ফুল

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

জোরালো হচ্ছে সরকারি চাকরিতে ‘বয়সসীমা’ বাড়ানোর দাবি

জোরালো হচ্ছে সরকারি চাকরিতে ‘বয়সসীমা’ বাড়ানোর দাবি

সানশাইন ডেস্ক : সর্বশেষ ১৯৯১ সালে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়ানো হয়। এরপর অবসরের বয়স বাড়ানো হলেও প্রবেশের বয়স আর বাড়েনি। বেকারত্ব বেড়ে যাওয়া, সেশনজট, নিয়োগের ক্ষেত্রে দীর্ঘসূত্রতা, অন্যান্য দেশের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স বাড়ানোর দাবিতে আন্দোলন করে আসছেন শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রার্থীরা। তবে এ বিষয়ে উদ্যোগ নেয়নি

বিস্তারিত