Daily Sunshine

উপজেলা নির্বাচন ঘিরে গরম বাগমারা

মাহফুজুর রহমান প্রিন্স, বাগমারা : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন শেষ হতেই বাগমারায় এবার বইতে শুরু করেছে পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনী হওয়া। চলতি মাসের শেষ সপ্তাহে অথবা আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা হতে পারে এমন খবরে আগেভাগেই তৎপর হয়ে উঠেছে বাগমারা উপজেলার সম্ভাব্য প্রার্থীরা। বিশেষ করে ক্ষমতাসীন দলের সর্বত্রই এখন উপজেলা নির্বাচনের প্রার্থীতা নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়েছে। অনেকেই নানান কৌশলে সাধারণ ভোটারদের মাঝে প্রচারনাও শুরু করেছেন।
প্রথমবারের মতো এবারের উপজেলা পরিষদ নির্বাচন দলীয় প্রতীকে অনুষ্ঠিত হবে। যে কারণে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সম্ভাব্য প্রার্থীরা এ নির্বাচনকে টার্গেট করে দলীয় মনোনয়ন নিশ্চিত করতে দলের হাইকমান্ডের কাছে জোর লবিং শুরু করেছেন।
দলীয় সূত্র মতে, জাতীয় নির্বাচনে ভরাডুবির পর বাগমারা আসনে অনেকটা বেকায়দায় পড়েছে বিএনপি। সে হিসাবে নিরঙ্কুশ বিজয়ের পর অনেকটা ভালো অবস্থানে আছে আওয়ামী লীগ। বিগত উপজেলা নির্বাচনে এই আসনে বিএনপি’র বিদ্রোহী প্রার্থী থাকার পরও সামান্য ভোটের ব্যবধানে জয়লাভ করে আওয়ামী লীগ। সে কারণে এবার বিএনপি হারানো উপজেলাটি উদ্ধারে ব্যাপক তৎপর রয়েছে। আবার দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকার প্রভাবে আওয়ামী লীগের অধিকাংশ নেতাই এবার উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থী হতে ইচ্ছুক। এতে দলের ভিতরে বাইরে নেতাদের মাঝে বাড়ছে মান অভিমান। নানামূখী মান অভিমান নিয়ে ক্ষমতাসীন দলের প্রায় আধা ডজনেরও বেশি নেতা দলীয় মনোনয়ন নিশ্চিত করতে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জেলা নেতৃবৃন্দের কাছে ছুটে যাচ্ছে।
দলীয় নেতাকর্মীদের মতে, এবারও এই আসনে মনোয়ন চাইবেন বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাকিরুল ইসলাম সান্টু। মনোনয়ন প্রাত্যাশীর পরের অবস্থানে রয়েছে জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান কল্যান ট্রাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় নেতা বাবু শ্রী অনীল কুমার সরকার। অনীল সরকারের হিন্দু ভোট ব্যাংকের কারণে তিনি মনোনয়ন দৌড়ে বেশ এগিয়ে রয়েছেন। অনীল সরকারের তালে তালে মনোনয়ন দৌড়ে এগিয়ে থাকার চেষ্টা চালাচ্ছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি সাবেক অধ্যক্ষ মতিউর রহমান টুকু, দলের বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম সারোয়ার আবুল, উপজেলা কৃষক লীগের সাধারন সম্পাদক ও এমপি’র এপিএস আসাদুজ্জামান আসাদ, আউসপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি সরদার জান বক্্র, বাসুপাড়া ইউনিয়ন আ’লীগর সভাপতি লুৎফর রহমান ও উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আব্দুল মালেক নয়ন। এছাড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন পাওয়ার আগ্রহ ব্যক্ত করেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য সাবেক ব্যাংকার বিরেন্দ্রনাথ সরকার। তবে সান্টু মনোনয়ন চাইলে তিনি সরে দাঁড়াতে পারেন বলে জানান। এছাড়া মনোনয়ন আরো এক নেতার নামে প্রচারনা রয়েছে উপজেলাব্যাপী। তিনি হলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী ভবানীগঞ্জ বনিক সমিতির সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম হেলাল।
দলীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, এবার জাতীয় নির্বাচনে ভোটের পরিবেশ দেখে স্থানীয় বিএনপি নেতা কর্মীরা নার্ভাস হয়ে পড়েছেন। এছাড়া ব্যাপক ধড়পাকড়ে দলটির মাজা এখনও সোজা হয়ে উঠতে পারেনি। তার পরও আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে দলের প্রায় স্তরের নেতাকর্মীরা আশার প্রদীপ হিসাবে দেখছেন সাবেক উপজলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি ডিএম জিয়াউর রহমান জিয়াকে। এছাড়া জাতীয় পার্টির আবু তালেব এবারও এই আসনে মনোনয়ন চাইবেন বলে জানিয়েছেন। বিগত উপজেলা নির্বাচনে তিনি ছাতা প্রতীক নিয়ে প্রায় ২১ হাজার ভোট পেয়ে সবাইকে চমক লাগিয়ে দেন। তিনি এবার লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে উপজেলা নির্বাচন করে জয়লাভের প্রত্যাশী হয়ে ঘরোয়া প্রচারনা শুরু করেছেন।
এছাড়া আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পুরুষ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদের জন্য আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জামায়াত থেকে একাধিক সম্ভাব্য প্রার্থীদের আনগোনা নিয়ে ভোটারদের মাঝে জল্পনা কল্পনা রয়েছে। পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে এবারও প্রার্থী পারেন বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান জামায়াত নেতা মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিম রুবলের নাম। তিনি এবারও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে প্রার্থী হতে পারেন। এছাড়া ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ থেকে পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে সম্ভাব্য প্রার্থী তালিকায় রয়েছেন বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আউসপাড়া ইউনিয়ন আ’লীগের সাবেক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, গোয়ালকান্দী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি সোহেল রানা ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা ইসমাইল হোসেন কর্নেলের নাম । এছাড়া মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন চাইতে পারেন বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাছিমা বাবুল। এছাড়া ক্ষমতাসীন দল থেকে নতুন মুখ হিসাবে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন উপজেলা মহিলা লীগের সভানেত্রী মরিয়ম বেগম ও উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভানেত্রী প্রভাষক শাহিনুর বেগম। অপর দিকে বিএনপি থেকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে এক জনের নামই প্রচারনায় রয়েছে তিনি হলেন ভবানীগঞ্জ মহিলা ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক রিনা সুলতানা। তিনি বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে নেমে দলীয় সমর্থন না পাওয়ায় পরে সরে দাঁড়ান। এবার তিনি বিএনপি থেকে একক প্রার্থী হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করতে পারেন।
তবে নানান জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন নিয়ে বাগমারার প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চল আবারও সরগরম হয়ে উঠেছে। সাধারন ভোটারদের অভিমত বিগত সংসদ নির্বাচনের হওয়া উপজেলাতেই এসেছে।

জানুয়ারি ১২
০৩:০২ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

আলোকিত সিটি পেয়েছেন মহানগরবাসী

আলোকিত সিটি পেয়েছেন মহানগরবাসী

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী মহানগরীর শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামান চত্বরে দাঁড়িয়ে আছে মাস্তুল আকৃতির মজবুত দুইটি পোল। প্রতিটি পোলের উপর রিং বসিয়ে তার চতুরদিকে বসানো হয়েছে উচ্চমানের এলইডি লাইট। আর সেই লাইটের আলোয় আলোকিত বিস্তৃত এলাকা। শুধু শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামান চত্বর নয়, এভাবে মহানগরীর আরো গুরুত্বপূর্ণ ১৪টি চত্বর আলোকিত হয় প্রতি

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সানশাইন ডেস্ক : করোনা মহামারিতে সাধারণ ছুটিতে স্বাভাবিক জীবনযাত্রার সঙ্গে স্থগিত ছিল সরকারি-বেসরকারি চাকরির নিয়োগ প্রক্রিয়া। এ কয়েক মাসে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পায়নি দেশের শিক্ষিত বেকার জনগোষ্ঠী। অংশ নিতে পারেনি কোনো নিয়োগ পরীক্ষাতেও। অনেকেরই বয়স পেরিয়ে গেছে ৩০ বছর। স্বাভাবিকভাবেই সরকারি চাকরির আবেদনে সুযোগ শেষ হয়ে যায় তাদের। তবে এ দুর্যোগকালীন

বিস্তারিত