Daily Sunshine

গোদাগাড়ীতে ইউপি চেয়ারম্যানের পা ভেঙে দিলেন সদস্যরা

গোদাগাড়ী প্রতিনিধি: রাজশাহী গোদাগাড়ী উপজেলার একটি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানকে পিটিয়ে তার পা ভেঙে দেয়া হয়েছে। উপজেলার মোহনপুর ইউপির এই চেয়ারম্যানের নাম গোলাম মোস্তফা (৫৮)। একই পরিষদের তিনজন সদস্য এই হামলা চালিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন তার ছেলে।
সোমবার দিবাগত রাতে উপজেলার হাট গোবিনপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পরে আহত অবস্থায় চেয়ারম্যান মোস্তফাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মোস্তফা উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে সোমবারই তিনি পদত্যাগ করেন। এর কয়েক ঘণ্টা পরেই তার ওপর হামলার ঘটনা ঘটে।
চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফার ছেলে শফিক উদ্দিন মানিক জানান, সন্ধ্যার পর তার বাবা গোলাম মোস্তফা ইউপি কার্যালয় থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে গোবিনপুর এলাকায় ইউপির ৩, ৪ এবং ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য যথাক্রমে এলাম উদ্দিন, হাসান ইমাম বাবু ও আবু বক্কর আবুর নেতৃত্বে ৮-১০ জন তার ওপর হামলা চালান।
এ সময় হামলাকারীরা লোহার রড এবং বাঁশের লাঠি দিয়ে চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফাকে বেধড়ক পেটান। এতে তার বাম পা ভেঙে গেছে। পরে স্থানীয় লোকজন চেয়ারম্যানকে উদ্ধার করে রামেক হাসপাতালের ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করেন। এ নিয়ে তারা মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানান শফিক উদ্দিন মানিক।
হামলার বিষয়ে জানতে চাইলে ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য হাসান ইমাম বাবু বলেন, চেয়ারম্যান বিএনপি করেন। তাই যেসব সদস্য আওয়ামী লীগ করেন তাদের নানাভাবে তিনি বঞ্চিত করেন। জমে থাকা ক্ষোভ থেকে তার ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। তবে হামলার সময় তিনি ছিলেন না বলে দাবি করেন।
এ ব্যাপারে গোদগাড়ী মডেল থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম জানান, এখনও এ ব্যাপারে কেউ অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে এ বিষয়ে আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

জানুয়ারি ০৯
০৩:২৩ ২০১৯

আরও খবর